Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > সিস্টেম আপগ্রেড না করেও ভিসতার স্বাদ নেয়া এক্সপি ব্যবহারকারীদের জন্য ভিসতার কিছু ফিচার
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: লুৎফুন্নেছা রহমান
মোট লেখা:১৩৫
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৮ - এপ্রিল
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
অপারেটিং সিস্টেম
তথ্যসূত্র:
ব্যবহারকারীর পাতা
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
সিস্টেম আপগ্রেড না করেও ভিসতার স্বাদ নেয়া এক্সপি ব্যবহারকারীদের জন্য ভিসতার কিছু ফিচার

নতুন অপারেটিং সিস্টেম বা অ্যাপ্লিকেশনে সাধারণত সম্পৃক্ত করা হয় নতুন নতুন ফিচার ও সুবিধা৷ এসব সুযোগ পুরোপুরি পেতে চাইলে আমাদের অনেক সময় সিস্টেম আপগ্রেড করতে হয়৷ কিন্তু সিস্টেম আপগ্রেড করা সবার পক্ষে সবসময় সম্ভব হয়ে ওঠে না৷

অতি সম্প্রতি অবমুক্ত হওয়া উইন্ডোজের নতুন অপারেটিং সিস্টেম ভিসতার ক্ষেত্রে একই কথা প্রযোজ্য৷ উইন্ডোজের এ নতুন ভার্সনে সব সুবিধা পেতে হলে সিস্টেম আপগ্রেড করা ছাড়া অন্য কোনো বিকল্প নেই৷ কেননা, কিছু কিছু ক্ষেত্রে উইন্ডোজের ব্যাপক পরিবর্তন ঘটিয়ে উন্নত করা হয়েছে৷ এসব উন্নত ফিচারের সুবিধা ভোগ করতে আপনাকে যথেষ্ট টাকা খরচ করতে হবে, যা সবার পক্ষে সম্ভব নয়৷



সিস্টেম আপগ্রেড না করে উইন্ডোজ এক্সপিতে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকলে আপনি ভিসতার সব সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবেন, এমনটি ভেবে হতাশায় নিজেকে নিমজ্জিত করবেন, তা ঠিক হবে না৷ কেননা, ব্যবহারকারীদের উদ্দেশে এ লেখায় এমন কিছু ফিচার তুলে ধরা হয়েছে, যার মাধ্যমে কিছু সুবিধা ও টুল পাবেন যা উইন্ডোজ ভিসতায় অফার করা হয়েছে৷ লক্ষণীয় ব্যাপার হলো, এসব টুলের সুবিধা ভোগ করার জন্য আপনাকে সিস্টেম আপগ্রেড করতে হবে না, অর্থাত্ উইন্ডোজ এক্সপি ব্যবহার করে ভিসতার কিছু সুবিধা ভোগ করতে পারবেন৷

আকর্ষণীয় রূপ

উইন্ডোজ ভিসতার সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হলো এর নতুন সাজ বা রূপ, যা অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন এবং ট্রান্সপারেন্সি এফেক্টবিশিষ্ট৷ ট্রান্সঅ্যাপস (Transapps)ফিচার ব্যবহার করে উইন্ডোজ এক্সপিতে এটি হুবহু নকল করা যাবে৷ এই টুলটি ফ্রি ডাউনলোড করা যাবে www.vasileios.gr/freesoft সাইট থেকে৷ এই পেজের ওপরের দিকে রেমঢলর্ড্র লিঙ্কে ক্লিক করে নিচের দিকে স্ক্রল করুন এবং Transapps 1.1 হেডিংয়ের অন্তর্গত Download লিঙ্কে ক্লিক করুন৷ প্রোগ্রাম ডাউনলোড ও ইনস্টল হবার পর সিস্টেম ট্রে আইকনে ক্লিক করুন, যা আবির্ভূত হয় এবং এরপর ওপরে বাম প্রান্তের অ্যারোতে ক্লিক করুন৷ এর ফলে স্টার্টআপ গ্রুপে ট্রান্সঅ্যাপস যুক্ত হবে, যাতে করে এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে উইন্ডোজের সাথে চালু হয়৷



প্রধান প্রোগ্রাম উইন্ডোর ভিজিবল অ্যাপ্লিকেশন সেকশনে ট্রান্সঅ্যাপস সব রানিং প্রোগ্রামের একটি লিস্ট প্রদর্শন করে৷ এই লিস্ট থেকে একটি সিলেক্ট করুন৷ এরপর স্ক্রিনের নিচের দিকের লেভেল সেকশনের একটি বাটনে ক্লিক করুন৷



0 বাটনে ক্লিক করলে প্রয়োগ হয় 0 পারসেন্ট ট্রান্সপারেন্সি লেভেল৷ এর ফলে অ্যাপেয়ারেন্সে কোনো পরিবর্তন হয় না৷ পক্ষান্তরে 90 সিলেক্ট করলে 90 পারসেন্ট ট্রান্সপারেন্সি লেভেল প্রয়োগ হয়৷ এমনভাবে সেটিং সিলেক্ট করুন, যাতে সেটি প্রতিটি প্রোগ্রামে ব্যবহার করা যায়৷ এরপর উপরের ডানের স্টার্ট বাটন ইমেজে ক্লিক করুন৷ 0-90 বাটন ব্যবহার করে টাস্কবারকে একইভাবে সেমি-ট্রান্সফারেন্স করা যায়৷ ট্রান্সঅ্যাপসকে লুকানোর জন্য মিনিমাইজ বাটনে ক্লিক করুন৷

ভিসতায় অফার করা আরেকটি সহজ ব্যবহারযোগ্য ফিচার হলো টাস্কবার প্রিভিউ৷ যখন টাস্কবারে মাউস কোনো বাটনের উপর দিয়ে মুভ করানো হয়, তখন একটি উইন্ডো ওপেন হয়৷ ফলে একটি ছোট পপআপ প্রিভিউতে এর কনটেন্ট প্রদর্শিত হয়, যার কারণে শনাক্ত করা সহজ হয়৷ www.visualtask tips.com সাইট থেকে ফ্রি ডাউনলোড করা যাবে ভিজ্যুয়াল টাস্ক টিপস ২.১৷ ভিসতার এই ফিচার এক্সপিতে ব্যবহার করা যাবে৷ এ প্রোগ্রামের জন্য কোনো বাড়তি কনফিগারেশনের দরকার নেই৷

আকর্ষণীয় ফ্লিপিং

ভিসতার ফ্লিপ থ্রিডি ফিচার শুধু দেখতেই আকর্ষণীয় নয় বরং উইন্ডোজের মধ্যে সুইচ করার জন্য গতানুগতিক কী বোর্ডের ইর্ফ ও কটঠ সার্কিটেরও উন্নয়ন করা হয়েছে স্বতন্ত্র উইন্ডোজকে সহজভাবে শনাক্ত করার মাধ্যমে৷ এমনকি শনাক্তকরণে সহায়তা করার জন্য স্ট্যান্ডার্ড ইর্ফ এবং কটঠ শর্টকাটের উন্নয়ন করা হয়েছে, যাতে করে ওপেন উইন্ডোজের প্রিভিউ প্রদর্শন করে৷ www.ntwind.com/software/ taskswitchxp.html সাইট থেকে টাস্কসুইচএক্সপি ডাউনলোড করে নিতে পারেন, যা উইন্ডোজ এক্সপি ব্যবহারকারীদের জন্য একই ধরনের অপশন নিয়ে আসে৷ ডাউনলোড লিঙ্কে ক্লিক করুন৷ প্রোগ্রাম ইনস্টল করার পর ইর্ফ ও কটঠ কী প্রেস করুন, যাতে প্রোগ্রামজুড়ে আবর্ত করা যায়৷ এতে দীর্ঘ প্রিভিউ প্রদর্শন করে বর্তমানে সিলেক্ট করা উইন্ডোর কনটেন্ট৷ প্রোগ্রামে সরাসরি জাম্প করে যাওয়ার জন্য লিস্টের যেকোনো উইন্ডোতে ক্লিক করুন৷

ভিসতার উইন্ডোজ সাইডবার এলিমেন্ট অনেকগুলো কাস্টোমাইজযোগ্য গ্যাজেটকে স্ক্রিনের এক প্রান্তে ডিসপ্লে করতে পারে, যাতে করে নিয়মিতভাবে ব্যবহার করা টুলে সহজে এক্সেস করা যায় এবং আরএসএস ফিড ডিসপ্লে করে৷ উইন্ডোজ এক্সপিতে এর বিকল্প একটি ফ্রি টুল রয়েছে ডেস্কটপ সাইডবার রূপে, যা ডাউনলোড করা যাবে www.desktopsidebar.com সাইট থেকে৷ এই প্রোগ্রাম ইনস্টল করার পর স্ক্রিনের ওপরের দিকে সাইডবার বাটনে ক্লিক করুন৷ এরপর Run this program when windows starts লেবেল করা বক্সে ক্লিক করুক৷

অ্যাপেয়ারেন্স-এ মুভ করুন৷ এর ড্রপডাউন মেনু ডেস্কটপ সাইডবারকে skins ফিচার ব্যবহারের মাধ্যমে কাস্টোমাইজ করা যেতে পারে৷ প্রোগ্রামে বেশ কিছু নম্বর রয়েছে তবে Download more skins লিঙ্কে ক্লিক করে আরো বেশি অপশন পাওয়া যায়৷ ভিসতায় উইন্ডোজ সাইডবার ফিচার গ্যাজেট ডেস্কটপ সাইডবার প্যানেলসহ কাজ করে৷ ডিসপ্লে ঠিক কেমন হবে তা কাস্টোমাইজ করার জন্য সাইডবার বাটনে ক্লিক করুন এবং সিলেক্ট করুন অ্যাড প্যানেল অপশন৷ বাইডিফল্ট স্কিন ফিচারে কয়েকটি প্যানেল যুক্ত করা হয়েছে এবং এগুলো লিস্ট থেকে সিলেক্ট করে সাইডবারে যুক্ত করা যায় অ্যাড বাটনে ক্লিক করে৷ মোর প্যানেলস লিঙ্কে ক্লিক করুন, যা ডেস্কটপ সাইডবার ওয়েবসাইটে স্থানান্তরিত হবে যেখানে ডাউনলোডের জন্য বাড়তি প্যানেল পাওয়া যাবে৷

ফাইল ইনডেক্সিং ও ডেস্কটপ সার্চ

কাস্টোমাইজ করা সাইডবার প্যানেলের লেআউটকে প্রয়োজনে নতুন লোকেশনে ড্র্যাগ অ্যান্ড ড্রপ করা যায়৷ প্যানেলকে স্বতন্ত্রভাবেও কাস্টোমাইজ করা যায়৷ এজন্য প্যানেলের যেকোনো প্রান্তে রাইট ক্লিক করে প্যানেল প্রোপার্টিজ অপশন সিলেক্ট করুন৷ প্যানেলগুলো উইন্ডোজ ডেস্কটপ সার্চ অপশনের মাধ্যমে অধিকতর সহজ ও দক্ষতার সাথে অ্যাডভান্স ফাইল সার্চ করা যায়৷ এ অপশনটি উইন্ডোজ ভিসতা ও এক্সপিতে পাওয়া যাবে৷ এ অপশনটি ফ্রি ডাউনলোড করা যাবে www.microsoft.com/windows/desktopsearch/default.msp.x সাইট থেকে৷ উইন্ডোজ ডেস্কটপ সার্চ প্রোগ্রাম থেকে সবচেয়ে ভালো ও কার্যকর সুবিধা পেতে চাইলে প্রথমে দরকার হার্ডডিস্কে স্টোর করা সব ফাইলের ক্যাটালগ তৈরি করা৷ এই প্রসেসকে বলে ইনডেক্সিং৷ এটি ধীরে ধীরে কার্যকর হলেও এর গতি বাড়ানো যায়৷ এর জন্য নোটিফিকেশন এরিয়া-অপশনের ম্যাগনিফায়িং গ্লাস আইকনে রাইট ক্লিক করে ইনডেক্সিং স্ট্যাটাস সিলেক্ট করতে হবে৷ অবশ্য এ কাজটি করতে হবে ইনডেক্স নাও অপশনে ক্লিক করার আগে৷ এই প্রসেস সম্পন্ন হবার পর উইন্ডোজ ডেস্কটপ সার্চ সক্রিয় হয় এবং আবির্ভূত হয় সার্চ অপশন৷ যখন স্টার্ট মেনু থেকে সিলেক্ট করা হয় তখন সার্চ বক্সে সার্চ টার্ম যুক্ত করে ভিসতার স্টাইলে লাইভ সার্চ করার সুবিধা পাওয়া যায়৷ স্ট্যান্ডার্ড সার্চ উইন্ডোতে সার্চিংয়ের কার্যক্রমকে ই-মেইল কনটেন্ট, টেক্সট ডকুমেন্ট অথবা ভিন্ন কোনো ফাইলের মধ্যে সীমাবদ্ধ করা যায়৷ যদি স্ট্যান্ডার্ড উইন্ডোজ এক্সপি ব্যবহার করে সার্চ করতে চান, তাহলে নিচের বাম দিকে উইন্ডোজ ডেস্কটপ সার্চের Click here to use Search Companion লেভেল করা লিঙ্কে ক্লিক করুন৷

এন্টারটেইনমেন্ট

উইন্ডোজ ভিসতা অবমুক্ত হবার আগে থেকে মাইক্রোসফট প্রচারণা চালিয়েছিল ভিসতা হবে ডিজিটাল এন্টারটেইনমেন্ট-সমৃদ্ধ৷ আর এ লক্ষ্যে মাইক্রোসফট সম্পৃক্ত করেছে উইন্ডোজ মিডিয়া সেন্টার৷

উইন্ডোজ মিডিয়া সেন্টারকে ব্যবহার করা যাবে এমপিথ্রি ও সিডির গান শোনা, ডিভিডি ও টেলিভিশন দেখা ও ছবি দেখার জন্য৷ উইন্ডোজ এক্সপিতে মিডিয়া সেন্টার এডিশন সম্পৃক্ত করা হয়নি, তবে একই ধরনের অনেক ফিচার পাওয়া যাবে মিডিয়া পোর্টাল প্রোগ্রামে৷ এগুলো ফ্রি ডাউনলোড করা যাবে www.team-mediaportal.com সাইট থেকে৷

এই সফটওয়্যার ডাউনলোড করার পর মিডিয়া পোর্টাল চেক করে দেখে যে, ইতোমধ্যে ডিভিডি প্লেব্যাকে কোনো সফটওয়্যার ইনস্টল করা হয়েছে কিনা৷ যদি না থাকে, তাহলে আপনি এমপেগ-২ ডিকোডার ফ্রি ডাউনলোড করতে পারবেন, যা ডিভিডি ও অন্যান্য ভিডিও ফরমেট প্লে করতে পারে৷

ইনস্টলেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবার পর মিডিয়া পোর্টাল সেটআপ লেবেল করা ডেস্কটপ আইকনে ক্লিক করে নেক্সটে ক্লিক করলে কনফিগারেশন ব্যবহার হবে৷ কোন স্কিন ব্যবহার হবে তা সিলেক্ট করে নেক্সটে ক্লিক করুন৷ এরপর স্ক্যানে ক্লিক করলে মিডিয়া পোর্টাল যেকোনো ধরনের মিডিয়া ফাইল শনাক্ত করতে পারবে৷ বাকি কনফিগারেশন প্রসেস সম্পন্ন করে ফিনিশে ক্লিক করুন৷

যথাযথভাবে প্রোগ্রাম কনফিগার করতে পারলে মূল মেনু ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের সুযোগসুবিধা পাওয়া যাবে মাউস ও কীবোর্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে৷ কিছু কম্পোনেন্ট সরাসরি কাজ করবে৷ তবে মাইটিভি অপশনের সুবিধা পেতে হলে কনফিগার করতে হবে৷ উইজার্ড মেনুতে ক্লিক করে টেলিভিশন সিলেক্ট করুন৷ এরপর প্রোগ্রাম বন্ধ করার আগে ইয়েস বাটনে ক্লিক করতে হবে৷ এবার নেক্সটে ক্লিক করে বেসিক টিভি অপশন সেট করতে হবে৷ এরপর নেক্সটে ক্লিক করে টিভি কার্ড সিলেক্ট করতে হবে যা ব্যবহার হবে৷ এরপর রেকর্ডিং সেটিং কনফিগার করা হলে মিডিয়া পোর্টাল ব্যবহার করা যাবে টেলিভিশন ব্রডকাস্ট রেকর্ড ও দেখার জন্য৷

প্রোগ্রাম কম্পোনেন্ট লোড হবার পর মেইন স্ক্রিনে ফিরে আসা যায়৷ মাউসকে প্রোগ্রাম উইন্ডোর ওপরে আনতে হবে যাতে পপআপ টুলবার ডিসপ্লে করে৷ ব্যাক বাটনে ক্লিক করলে হোম স্ক্রিন লোড হবে৷ মিডিয়া পোর্টালকে সম্প্রসারণ করা যায় প্লাগইনস ব্যবহার করে৷

সিকিউরিটি

সিকিউরিটি হলো ভিসতার অন্যতম মূল ফিচার এবং এর উপাদানগুলো হলো এনহ্যান্সড অনলাইন প্রোটেকশন সম্বলিত ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ৭ এবং স্পাইওয়্যারের জন্য উইন্ডোজ ডিফেন্ডার৷ এগুলো মাইক্রোসফটের ওয়েবসাইট থেকে ফ্রি ডাউনলোড করা যাবে৷ ওয়েবসাইট www.microsoft.com ভিসতার আরেকটি সিকিউরিটি ফিচার হলো বিট লকার যা হার্ডডিস্কের সম্পূর্ণ কনটেন্টকে এনক্রিপ্ট করতে পারে৷ তবে এটি শুধু ভিসতা আল্টিমেটে কাজ করে৷ উইন্ডোজ এক্সপি ব্যবহারকারীরা তাদের গুরুত্বপূর্ণ ডাটাকে নিরাপদ রাখার জন্য ব্যবহার করতে পারেন কমপু সেক নামের ইউটিলিটি৷ এই ইউটিলিটি ফ্রি ডাউনলোড করা যাবে www.ceinfosys.com.sg সাইট থেকে৷ এটি একটি শক্তিশালী টুল, যা দিয়ে শুধু হার্ডডিস্ক এবং সিডি/ডিভিডির ডাটা এনক্রিপ্ট করা যায় না বরং যুক্ত করে বুট প্রসেসে পাসওয়ার্ড প্রোটেকশন৷ তাই কমপিউটার স্টার্ট হবার আগেই পাসওয়ার্ড দিতে হয়৷ অন্যথায় কমপিউটার এক্সেস করা যাবে না এবং হার্ডডিস্কে স্টোর করা ডাটা এনক্রিপ্টেড থেকে যায় ও এক্সেসযোগ্য হবে না৷ ইনস্টলেশন প্রক্রিয়ার সময় এসব কনফিগারেশন বিশেষ যত্নসহকারে করতে হয় যদিও আপাতদৃষ্টিতে অপশন লিস্ট একই রকম মনে হয়৷ তাই ডিফল্ট সেটিংয়ের কোনো পরিবর্তন করা দরকার হয় না৷

কমপু সেক শুধু হার্ডডিস্ক এনক্রিপ্ট করতে পারে তাই নয় বরং বিভিন্ন রিমুভাল মিডিয়ার জন্য সিকিউরিটিসংশ্লিষ্ট কাজগুলো কার্যকর করতে পারে৷ যেমন রেকর্ডযোগ্য সিডি, ফ্লপি ডিস্ক এবং ইউএসবি কী৷ এ প্রোগ্রামের সাথে আইডেন্টিটি ম্যানেজমেন্ট মডিউলও সম্পৃক্ত, যা এক ব্যাপক বিস্তৃত প্রোগ্রাম ও ওয়েবসাইটের পাসওয়ার্ড নিরাপদে স্টোর করতে পারে৷

শেষ কথা

অনেকে বুঝেই হোক বা না বুঝে কিংবা অপ্রয়োজনে সিস্টেম আপগ্রেড করার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেন৷ যদি এক্সপি স্যুট দিয়ে স্বাভাবিক প্রয়োজনীয়তা চালিয়ে নেয়া যায়, তাহলে সিস্টেম আপগ্রেড করার তেমন দরকার নেই৷ যদি ভিসতার বিশেষ কোনো ফিচারের প্রতি আগ্রহী হয়ে থাকেন এবং এ লেখায় বর্ণিত টুলগুলো যদি সেই চাহিদা পূরণ করে, তাহলে অযথা পয়সা খরচ না করে এই টুলগুলো ফ্রি ডাউনলোড করে আপনার সেই চাহিদা মিটিয়ে নিতে পারেন৷ কেননা, এই টুলগুলো ভিসতার হলেও উইন্ডোজ এক্সপিতে ব্যবহার করা যাবে৷ ফলে সিস্টেম আপগ্রেড আপাতত না করলেও চলবে৷


ফিডব্যাক : swapan52002@yahoo.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
২০০৮ - এপ্রিল সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস