Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > নিয়ন্ত্রক নয়, বিটিআরসি সহযোগীর ভূমিকা পালন করছে : বিআইজেএফকে চেয়ারম্যান
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: নিজস্ব প্রতিবেদক
মোট লেখা:৬১
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৯ - ফেব্রুয়ারী
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
সি জে খবর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগতের খবর
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
নিয়ন্ত্রক নয়, বিটিআরসি সহযোগীর ভূমিকা পালন করছে : বিআইজেএফকে চেয়ারম্যান

কমপিউটার জগৎ রিপোর্ট - বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল মনজুরুল আলম বলেছেন, তাদের কমিশনের নাম নিয়ন্ত্রণ কমিশন হলেও তারা টেলিযোগাযোগ খাতের সহযোগী হিসেবে কাজ করছে, নিয়ন্ত্রক হিসেবে নয়। বর্তমান কমিশন গত প্রায় দুই বছরের অনিয়মের জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে ৮৮১ কোটি টাকা জরিমানা আদায় করেছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, আগামী কিছুদিনের মধ্যে আইপি টেলিফোনের লাইসেন্স এবং মার্চে থ্রি-জি টেকনোলজির লাইসেন্স দেয়া সম্ভব হবে। বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরামের সদস্যদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় বিটিআরসি চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন। তিনি বিটিআরসির বর্তমান ও ভবিষ্যৎ কার্যক্রম তুলে ধরেন।



মতবিনিময় থেকে বেরিয়ে আসে, বাংলাদেশের মানুষ বিশ্বের সবচেয়ে কম চার্জে মোবাইল ফোনে কথা বলছে। মোবাইলে ইন্টারনেট ব্যবহারের ব্যয় ও আগামীতে কমিয়ে আনার উদ্যোগ নেয়া হবে। ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ব্যান্ডউইডথের দাম আগে ছিল ৭৫ হাজার টাকা। এখন তিন দফায় তা কমে হয়েছে ২৭ হাজার টাকা। দাম আরো কমানোর চেষ্টা চলছে।

মতবিনিময়কালে বিআইজেএফের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সভাপতি মোহাম্মদ কাওছার উদ্দীন, সহ-সভাপতি নাজনীন কবির, সাধারণ সম্পাদক মো: মোজাহেদুল ইসলাম, মাসুদ রুমি, তরিক রহমান, সাবিবন হাসান, এম এ হক অনু প্রমুখ। বিটিআরসির পক্ষে কমিশনার এস এম মনির আহমেদ, আলিবর্দী খন্দকার মাহবুবুর রহমান, কর্নেল মো: সাইফুল ইসলাম, সৈয়দ আহমেদ, রেজাউল কাদের প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
২০০৯ - ফেব্রুয়ারী সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস