Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > নতুন বছরের কিছু আপডেটেড সফটওয়্যার
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: মোহাম্মদ ইশতিয়াক জাহান
ইমেইল:rony446@yahoo.com:
মোট লেখা:৮৮
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৯ - জানুয়ারী
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
সফটওয়্যার
তথ্যসূত্র:
সফটওয়্যার
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
নতুন বছরের কিছু আপডেটেড সফটওয়্যার
হার্ডওয়্যার পারফরমেন্স লেভেল দিন দিন বেড়েই চলেছে। আর তাই হার্ডওয়্যার প্রস্তুতকারকেরা গুরুত্ব দিচ্ছে বিভিন্ন কম্পোনেন্টের স্বতন্ত্র পারফরমেন্স লেভেলের প্রতি। যেমন- বিদ্যুতের ব্যবহার, থার্মাল ম্যানেজমেন্ট এবং অ্যাকুয়সটিক লেভেল বা শব্দবিজ্ঞান সংক্রান্ত বিষয়ে। এগুলোও বর্তমানে হার্ডওয়্যারের গুরুত্বপূর্ণ কম্পোনেন্টের সাথে যেমন- গ্রাফিক্স কার্ড, হার্ডডিস্ক এবং মাদারবোর্ড চিপসেটে সম্পৃক্ত। বিভিন্ন আকার ও ধরনের হিট সিঙ্ক ও ফ্যান কমপিউটারের হার্ডওয়্যারের সাথে লাগানো থাকে, যা সিস্টেমে তাপ নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। তবে কিছু কিছু হার্ডওয়্যার বেশ তাপ সৃষ্টি করে। যেমন- এএমডির নতুন গ্রাফিক্স কার্ড এইচডি ৪৮৫০ লোড অবস্থায় ৮৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপ উৎপন্ন করে, যা এয়ার কন্ডিশন পরিবেশেও অনেক বেশি।



কার্ডের রেফারেন্স কুলিং সিস্টেমে অঙ্গীভূত অংশ হিসেবে রয়েছে হিট সিঙ্ক, যা ঠাণ্ডা হয় বিভিন্ন গতির ফ্যানের মাধ্যমে। ফ্যানের গতি নিয়ন্ত্রিত হয় অনবোর্ড থার্মাল সেন্সর দিয়ে। এএমডি স্ফীত ডুয়াল স্লট ডিজাইনের পরিবর্তে ব্যবহার করছে এমন এক হালকা-পাতলা সিঙ্গেল স্লট কুলার, যা হার্ডওয়্যারের উচ্চ তাপমাত্রাকে প্রতিরোধ করতে পারে। অন্যথায় অত্যধিক তাপ সিস্টেম ফেইল্যুরের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। যদিও তাপ কেসের ভেতরের তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়া রোধ করে, তথাপি অন্যান্য কম্পোনেন্টকে উত্তপ্ত করে।

পিসি কম্পোনেন্ট প্রস্তুতকারকেরা কুলিংয়ের জন্য উচ্চগতির ফ্যান ব্যবহার করলেও ডেসিবেল (ধ্বনির উচ্চতর একক) লেভেল বেশ বিরক্তিকর। অবশ্য উচ্চগতির হার্ডওয়্যারের ক্ষেত্রে এমনটি কমই দেখা যায়, যা শক্তিশালী, শব্দহীন এবং সিস্টেমকে ঠাণ্ডা রাখে। সুতরাং গ্রাফিক্স কার্ড যদি অনেক বেশি তাপ সৃষ্টি করে বা কেসের ভেতরে তাপমাত্রার লেভেল বাড়ানোর মাধ্যমে তাপ দূর করে, তাহলে আমাদের করণীয় কী হবে তা অনেকের প্রশ্ন? প্রসেসরের এবং গ্রাফিক্স কার্ডের তাপমাত্রার লেভেল কমানোর কিছু টিপ নিচে বর্ণিত হলো, যার মাধ্যমে কেসকে যেমন ঠাণ্ডা রাখা যায়, তেমনি পাবেন এক স্বাভাবিক কর্মক্ষম ও দক্ষ পিসি।

কেস ঠাণ্ডা রাখা

কেসের ভেতরের কুলিং ব্যবস্থাকে সর্বোত্তম পর্যায়ে রাখার জন্য কিছু ইনট্যাক ও এক্সজস্ট ফ্যান যুক্ত করার মাধ্যমে বায়ুপ্রবাহকে বাড়াতে হবে। বর্তমানে ৮০ মিলি, ৯২ মিলি, ১২০ মিলি এবং ১৪০ মিলি সাইজের কেস ফ্যান পাওয়া যায়। সর্বোচ্চ সাইজের কেস ফ্যান ব্যবহার করুন, যেটি আপনার কেসে মানানসই হয়। লক্ষণীয় বিষয়, ফ্যানের পাখার গতি কম হয় এবং ছোট ফ্যানের পাখার তুলনায় কম শব্দ সৃষ্টি করে। ফ্যান ইনস্টলের সময় নিশ্চিত করতে হবে, ইনট্যাক ফ্যানের তুলনায় এক্সজস্ট ফ্যান যেন বেশি থাকে। এর ফলে কেস থেকে বেশি পরিমাণে তাপ বের হতে পারবে। ইনট্যাক ফ্যানের ভালো অবস্থান হলো হার্ডড্রাইভ বে-এর সামনের অংশ এবং সাইড প্যানেল। কেসের পেছন এবং সামনের অংশ এক্সজস্ট ফ্যানের জন্য সবচেয়ে উপযোগী স্থান।

নতুন পিসি তৈরি করতে চাইলে বিবেচনায় আনতে হবে এমন এক কেস, যেখানে কেস ফ্যানের একাধিক অপশন থাকে। কেসের সামনের, পেছনের এবং সাইড প্যানেল খেয়াল করে দেখুন। ভালো ফ্যানের জন্য প্রয়োজনে কিছু বেশি অর্থ খরচ করুন, যা সচরাচর সবাই এড়িয়ে যায়। পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিটের ক্ষেত্রে লক্ষ রাখতে হবে, যেন ১২০ মিলি ইনট্যাক ফ্যান সেট করা যায়। এর ফলে কেস থেকে বেশি পরিমাণে গরম বাতাস বের হতে পারবে।

এটিআই গ্রাফিক্স কার্ড

বেশিরভাগ মিড রেঞ্জ এবং হাই-এন্ড গ্রাফিক্স কার্ড ঠাণ্ডা হয় বিভিন্ন গতির ফ্যান দিয়ে, যা তাপমাত্রা এবং ডেসিবেল লেভেল কম রাখতে সহায়তা করে। তবে গ্রাফিক্স কার্ডের ক্ষেত্রে উচ্চতাপ সৃষ্টি হতে পারে বিশেষ করে যেখানে সিঙ্গেল-স্লট কুলার ব্যবহার হয়। যেমন- লোডেড অবস্থায় রেডিয়ন এইচডি ৩৮৫০ এবং এইচডি ৪৮৫০ গ্রাফিক্স কার্ডের তাপমাত্রা ৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াস হয়। এমনকি কার্ড যখন আইডল বা অলস অবস্থায় থাকে, তখনও তাপমাত্রা ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নামে না। এক্ষেত্রে স্পিড ফিক্সড করার জন্য ফ্যান সেটিং বেশ কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে। এজন্য http://en. expreview.com/img/software/0808/ Exper tool-ati.exe সাইটে গিয়ে Gainward Expertool ইউটিলি ডাউনলোড করে ইনস্টল করুন।

* এই ইউটিলিটি সিস্টেম ট্রে-তে প্রদর্শন করে একটি আইকন। এতে রাইট ক্লিক করে কনটেক্সট মেনু হতে Fan Control অপশন সিলেক্ট করুন, যা পপআপ হয়। এর ফলে দুটি টেকোমিটার সম্বলিত একটি ডায়ালগ বক্স প্রদর্শিত হবে, যা ফিক্সড ও ডায়নামিক স্পিড নির্দেশ করে।

* বাই ডিফল্ট Dynamic speed -এ গতি সেট করা থাকে। Fixed speed রেডিও বাটন চেক করে Apply -এ ক্লিক করুন। এর ফলে ফ্যানের গতি ৫০ শতাংশে ফিক্সড হবে।

* জিপিইউ-এর তাপমাত্রার পরিবর্তনকে লিখে রাখুন যা টেকোমিটারে প্রদর্শিত হয়। গেম প্লে-এর সময় ফ্যান স্পিডকে ৬৫ শতাংশের কাছাকাছি সেট করুন। এর ফলে তাপমাত্রা ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে থাকবে। গেম সেশনের পর ফ্যান স্পিড কমানোর ব্যাপারটি মনে রাখতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা Gainward Expertool ব্যবহার করে রেডিয়ন এইচডি ৪৮৫০ গ্রাফিক্স কার্ডের তাপমাত্রাকে লোড অবস্থায় ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নামিয়ে আনতে সক্ষম হন।

এনভিডিয়া গ্রাফিক্স কার্ড

এনভিডিয়া গ্রাফিক্স কার্ডও ঠাণ্ডা হয়, তবে তাপমাত্রা আরো কমিয়ে আনা যায় ফ্যান স্পিড টোয়েকিংয়ের মাধ্যমে। আর এজন্য দরকার হয় জরাধঞঁহবৎ নামে ইউটিলিটি ব্যবহারের। এই ইউটিলিটি ফ্রি ডাউনলোড করা যাবে http://www. guru3d.com/rivatuner সাইড থেকে।

* রিভাটিউনার চালিয়ে Main ট্যাবে Driver সেটিংয়ের অন্তর্গত Customize বাটনের পাশে ড্রপডাউন লিস্টে ক্লিক করুন।

* পপআপ হওয়া পাঁচটি আইকনের মধ্য থেকে একটি সিলেক্ট করুন যেটি সিস্টেম সেটিং হিসেবে লেবেল করা। এর ফলে সিস্টেম টোয়েক লেবেল করা একটি ডায়ালগ বক্স আবির্ভূত হবে।

* এবার Fans ট্যাব নেভিগেট করুন এবং ফ্যানের নিয়ন্ত্রণ পরিবর্তন করার জন্য ড্রপডাউন লিস্ট ব্যবহার করুন।

* ফ্যানের গতি সেট করার জন্য Performance 3D সেকশনের অন্তর্গত স্লাইডারকে ড্র্যাগ করুন। বেশিরভাগ গ্রাফিক্স কার্ডের ক্ষেত্রে ৬৫ থেকে ৭০ শতাংশ গতি সবচেয়ে ভালো কাজ করে। আর এটি সম্ভব হয় তাপমাত্রা ১০ থেকে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমিয়ে

জিপিইউ-এর তাপমাত্রা চেক করার জন্য GPU-2 নামের ইউটিলিটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন। এই টোয়েক সেই সব গ্রাফিক্স চিপসেটে কাজ করে যেগুলো জিফোর্স ৮৮০০ জিটি সিরিজ থেকে শুরু হয়েছে। এই টোয়েক পুরনো জিফোর্স ৮৪০০ জিএস, ৮৫০০ জিটি, ৮৬০০ জিটি প্রভৃতি গ্রাফিক্স কার্ডে কাজ করবে না। বিশেষজ্ঞরা ৯৮০০ জিটিএক্স+ গ্রাফিক্স কার্ডকে ৭০ শতাংশে ফিক্সড করে তাপমাত্রাকে ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমাতে সক্ষম হয়। যদি আপনার গ্রাফিক্স কার্ডটি সিঙ্গেল-স্লট ডিজাইনের ৮৮০০ জিটি হয়, তাহলে এই টোয়েক ব্যবহার করে তাপমাত্রাকে ২০ সেলসিয়াস পর্যন্ত কমাতে পারবেন। শুধু তাই নয়, এর ফলে গ্রাফিক্স কার্ডে আয়ু ও পারফরমেন্সও বাড়াতে পারবেন।

ফিডব্যাক rony446@yahoo.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
২০০৯ - জানুয়ারী সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস