Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে হার্ডওয়্যার প্রদর্শনী
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: এস.এম. গোলাম রাব্বি
মোট লেখা:৭২
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৭ - ডিসেম্বর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
হার্ডওয়্যার
তথ্যসূত্র:
রির্পোট
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে হার্ডওয়্যার প্রদর্শনী

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কমপিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই)বিভাগের ছাত্রছাত্রীদের উদ্যোগে ১০ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়ামে আয়োজিত হয় হার্ডওয়্যার প্রদর্শনী৷ বিভাগের স্নাতক শ্রেণীর বিভিন্ন বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের তৈরি বিভিন্ন হার্ডওয়্যার প্রজেক্ট এতে প্রদর্শিত হয় হার্ডওয়্যার প্রদর্শনী ২০০৭ শীর্ষক এ প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যান সফিকুল ইসলাম ভুইয়া৷ বিশেষ অতিথি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মো: জাহিদুর রহমান এবং একই বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর ড. মুহম্মদ হানিফ আলী৷

সিএসই বিভাগের বিভিন্ন বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের তৈরি মোট ২৯টি প্রজেক্ট প্রদর্শিত হয়৷ সর্বোচ্চ ৪ জন ছাত্রছাত্রীর সমন্বয়ে গঠিত হয় এক একটি দল৷ প্রতিটি দল অন্তত ১টি করে প্রজেক্ট তৈরি করে৷ প্রদর্শনীর বিভিন্ন প্রজেক্টের সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে এ প্রতিবেদনে৷
মাইক্রোকন্ট্রোলার নির্মিত ট্র্যাফিক কন্ট্রোল সিস্টেম : কমপিউটার ইন্টারফেসের মাধ্যমে মাইক্রোকন্ট্রোলার চিপ ব্যবহার করা একটি আধুনিক ট্র্যাফিক কন্ট্রোল সিস্টেম এটি৷


চিত্র : ছাত্রছাত্রীদের উদ্ভাবিত বিভিন্ন প্রজেক্ট ঘুরে দেখছেন অতিথিরা

কমপিউটার নিয়ন্ত্রিত গাড়ি : একটি খেলনা গাড়ির রিমোট কন্ট্রোলকে কমপিউটারের কী-বোর্ড দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করে গাড়িটি চালানো যাবে এ প্রজেক্টের মাধ্যমে৷ এটিও কমপিউটার ইন্টারফেসের একটি প্রজেক্ট৷
ইলেকট্রিক্যাল ডাইস : এটি একটি ডিজিটাল লুডু খেলা৷ এ প্রকল্পে লাইট এমিটিং ডায়োড (এলইডি), টাইমার ও কাউন্টার ব্যবহার করা হয়েছে৷

ডার্ক ডিটেক্টর : এ প্রকল্পের মাধ্যমে অন্ধকার শনাক্ত করা যাবে৷ এতে লাইট ডিপেন্ডেবল রেজিস্টার (এলডিআর) নামের সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে৷

ফ্ল্যাশিং লাইট : আমাদের দেশে বিয়েবাড়িতে সাজসজ্জার কাজে ব্যবহার করা হয় এমন একটি প্রজেক্ট হলো ফ্ল্যাশিং লাইট৷
অটোমেটেড ট্র্যাফিক কন্ট্রোল সিস্টেম : ট্র্যাফিক সিগন্যাল নিয়ন্ত্রণের জন্য আমাদের দেশে ব্যবহার করা পদ্ধতি তৈরি হয়েছে এ প্রজেক্টে৷

৭-সেগমেন্ট ডিসপ্লে ও স্টেপার মোটর ব্যবহৃত গেম : এটি একটি মজাদার প্রজেক্ট এ প্রজেক্টে ৭- সেগমেন্ট ডিসপ্লে ব্যবহার করে CSEJU লেখা হয়েছে এবং স্টেপার মোটর ব্যবহার করে তাতে একটি ওয়েভ তৈরি করা হয়েছে৷

মাইক্রোকন্ট্রোলার নির্মিত ভোটিং মেশিন : এটি মাইক্রোকন্ট্রোলার ব্যবহৃত একটি ডিজিটাল ভোটিং মেশিন৷ এটি কমপিউটার ইন্টারফেসিংয়ের একটি প্রজেক্ট৷

৬-বিট প্রাইম নম্বর চেকার : কিছু লজিক গেট নির্মিত এ প্রজেক্টিটর মাধ্যমে মৌলিক সংখ্যা যাচাই করা হয়৷

৩ * ৪ মাল্টিপ্লায়ার : ৩-বিট ও ৪-বিটের কিছু বাইনারি ডাটাকে গুণ করে ৭ বিটের বাইনারি আউটপুট পাওয়া যায় এ প্রকল্পের মাধ্যমে৷

২-বিট স্কয়ার জেনারেটর, ৪-বিট অড্‌ অ্যান্ড ইভেন নম্বর চেকার : এ প্রজেক্টটির মাধ্যমে ২-বিটের যেকোনো বাইনারি সংখ্যার বর্গ পাওয়া যাবে এবং ৪-বিটের যেকোনো সংখ্যা জোড় না বিজোড়, তা পরীক্ষা করা যাবে৷

কালার ডিটেক্টর : লাইট ডিপেন্ডেবল রেজিস্টারকে (এলডিআর)সেন্সরহিসেবে ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছে কালার ডিটেক্টর নামের এ প্রজেক্টটি৷ এর মাধ্যমে যেকোনো রং শনাক্ত করা যাবে৷

৩-বিট বাইনারি কনভার্ট টু স্কয়ার : এ প্রজেক্টের মাধ্যমে ৩-বিটের যেকোনো বাইনারি সংখ্যার বর্গ পাওয়া যায়৷

লো কস্ট অ্যালার্ম : স্বল্প মূল্যের এ অ্যালার্ম প্রজেক্টটি তৈরি করা হয়েছে মিউজিক্যাল আইসি ব্যবহার করে৷ প্রচলিত যেকোনো ঘড়ির অ্যালার্মের মতোই কাজ করে এটি৷

৪-বিট কম্পারেটর : ৪-বিটের দুটি সংখ্যা সমান কিনা তা এ প্রকল্পের মাধ্যমে পরীক্ষা করা যায়৷ এ প্রজেক্টে একটা ৪-বিটের সংখ্যাকে ফিক্সড রেখে আরেকটা ৪-বিটের সংখ্যাকে ইনপুট হিসেবে দেয়া হয়৷

৫৫৫ টাইমার ব্যবহৃত ট্র্যাফিক লাইট : একমুখী রাস্তার ট্র্যাফিক নিয়ন্ত্রণের কাজে ব্যবহার করা যাবে এমন ট্র্যাফিক লাইট তৈরি করা হয়েছে এ প্রজেক্টে৷ এখানে ৫৫৫ টাইমার ব্যবহার করা হয়েছে৷

রিচার্জেবল মোবাইল লাইট অ্যান্ড চার্জার : এ প্রজেক্টে একটা খেলনাগাড়ির মধ্যে লাইট, ফ্যান এবং মোবাইল চার্জার রয়েছে৷

অ্যাডার সাবট্রাক্টর : লজিক গেট নির্মিত এ প্রকল্পের মাধ্যমে যোগ-বিয়োগ করা যায়৷

সোলার ব্যাটারি চার্জার : এ প্রকল্পটির মাধ্যমে সূর্য থেকে শক্তি নিয়ে ব্যাটারি চার্জ করা যায় এবং সেই ব্যাটারি দিয়ে মোবাইল চার্জ করা যায়৷

মাইক্রোকন্ট্রোলার নির্মিত অটোমেটিক কার পার্কিং সিস্টেম : PIC16F84A মাইক্রোকন্ট্রোলার ব্যবহার করে তৈরি স্বয়ংক্রিয় এ করে পার্কিং পদ্ধতিতে যেকোনো গাড়ি পার্ক নির্দিষ্টসংখ্যক গাড়ি নিয়ে পূর্ণ হওয়ার পরে একটা বাধা তৈরি হবে এবং গাড়ির সংখ্যা না কমা পর্যন্ত বাধাটি থাকবে৷

ক্যুইজ : মাল্টিপ্লেক্সার ব্যবহার করে এ ক্যুইজ ইঞ্জিনটি তৈরি করা হয়েছে৷

মাইক্রোকন্ট্রোলার নির্মিত ডিজিটাল ঘড়ি: PIC16F84A মাইক্রোকন্ট্রোলার চিপ ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছে এ ডিজিটাল ঘড়ি৷

মাইক্রোকন্ট্রোলার ব্যবহৃত কাউন্টডাউন টাইমার : PIC16F84A মাইক্রোকন্ট্রোলার ব্যবহৃত ইন্টারফেসের এ প্রজেক্টের মাধ্যমে ৯৯ মিনিট থেকে ০ মিনিট পর্যন্ত গণনা করা যায়৷

লজিক গেট ব্যবহৃত ডিজিটাল ঘড়ি : এ প্রজেক্টে বিভিন্ন লজিক গেট এবং কাউন্টার ব্যবহার করা হয়েছে৷

হোম সিকিউরিটি সিস্টেম : হোম সিকিউরিটি সিস্টেম নামের এ প্রজেক্টে ঘরের দরজা খুললে সাইরেন বাজে৷

পিসি প্রটেক্টর : এ প্রজেক্টে ৮-বিট পাসওয়ার্ড (সর্বোচ্চ ২৫৬টি) ব্যবহার করার মাধ্যমে কমপিউটারের নিরাপত্তা দেয়া যায়৷

ইউএসবি টর্চ লাইট : এ প্রজেক্টের মাধ্যমে কমপিউটার ইউএসবি পোর্ট ব্যবহার করে টর্চ লাইট জ্বালানো যায়৷

হু প্রেস ফার্স্ট : এ প্রজেক্টটি গতানুগতিক ক্যুইজিং পদ্ধতির মতো কাজ করে৷

ফল্টি রিসেট : কোনো সিস্টেমের রিসেট বাটন চাপার পর সিস্টেমটি রিস্টার্ট হওয়ার আগেই ইউজারকে সতর্ক করে দেয়া হয় এ প্রজেক্টের মাধ্যমে৷

প্রদর্শনী শেষে সেরা দশটি প্রজেক্টকে পুরস্কৃত করা হয়৷ ১ম পুরস্কার ৫ হাজার টাকা পেয়েছেন নাফজ আল নাহারুল ইসরাম, তন্ময় সাহা ও মো: আবু সুফিয়ান (প্রজেক্ট : মাইক্রোকন্ট্রোলার নির্মিত ট্রাফিক কন্ট্রোল সিস্টেমে), দ্বিতীয় পুরস্কার ৩ হাজার টাকা পেয়েছেন মো : সানাউল হক ও তামিম রায়হান (প্রজেক্টরিচার্জেবলমোবাইল লাইট অ্যান্ড চার্জার) এবং তৃতীয় পুরস্কার ২ হাজার টাকা পেয়েছেন স্বর্ণালী বসাক, তানিয়া আকতার ও ইশতিয়াক মাহমুদ প্রজেক্ট অটোমেটেড ট্রাফিক কন্ট্রোল সিস্টেম৷
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
২০০৭ - ডিসেম্বর সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস