Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > প্রি-টাচ প্রযুক্তির রোবট আসছে
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: সুমন ‍ইসলাম
মোট লেখা:৮৭
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৭ - ডিসেম্বর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
রোবট
তথ্যসূত্র:
দশদিগন্ত
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
প্রি-টাচ প্রযুক্তির রোবট আসছে



এগিয়ে যাচ্ছে রোবট টেকনোলজি৷ গৃহস্থালিসহ বহুবিধ কাজে এখন ব্যবহার করা হচ্ছে নানা আকৃতির রোবট৷ এর ফলে মানুষের কাজের ঝুঁকি অনেক কমে গেছে এবং গতিও বেড়েছে৷ বিশ্বখ্যাত প্রসেসর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ইন্টেলের গবেষকরা এখন এমন এক রোবট তৈরির কাজ করছেন যা কিনা কোনো বস্তু স্পর্শ করার আগেই বুঝে ফেলতে পারবে বস্তুটির আদ্যোপান্ত৷ এজন্য তারা ব্যবহার করছেন ইলেকট্রিক ফিল্ড সেন্সর৷ পুরো প্রযুক্তিটিকে গবেষকরা নাম দিয়েছেন প্রি-টাচ টেকনোলজি৷

যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে ইন্টেলের একটি ল্যাবরেটরিতে গবেষকরা তৈরি করেছেন একটি রোবটিক হাত৷ টেবিলের ওপর রাখা দুইটি খালি গ্লাস ও একটি পানিভর্তি গ্লাস এই হাত চিহ্নিত করতে পারে৷ এই হাতের সাথে যুক্ত রয়েছে একাধিক সেন্সর৷ টেবিলে ৩টি গ্লাস পাশাপাশি রাখা হলে ওই রোবটিক হাত প্রথমে প্রতিটি গ্লাসের সামনে গিয়ে গ্লাসটি সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করে এবং পরে খালি গ্লাস দুটিকে টেবিল থেকে ফেলে দেয়৷ খালি গ্লাস চিহ্নিত করার জন্য তাকে গ্লাসটি হাত দিয়ে ধরার প্রয়োজন হয় না৷ যেভাবে প্রোগ্রাম করা থাকবে রোবটিক হাতটি সেভাবেই কাজ করবে৷

পুরো প্রযুক্তিটি এখনো উদ্ভাবন করা সম্ভব হয়নি৷ এটি নিয়ে কাজ চলছে৷ গবেষকরা বলছেন, তারা ক্রমেই উন্নয়ন ঘটিয়ে চলেছেন এই প্রি-টাচ প্রযুক্তির৷ রোবটিক হাতে তারা বসিয়েছেন একাধিক সেন্সর৷ হাত দিয়ে যাতে কোনো বস্তু ধরা যায়, সেজন্য মানুষের হাতের মতোই রোবটিক হাতেও রয়েছে ভাঁজ করা যায় এমন আঙ্গুল৷ ইন্টেল রিসার্চ সিয়াটলের সিনিয়র গবেষক জোস স্মিথ বলেছেন, এ ধরনের একটি রোবট তৈরির মূল লক্ষ্য হলো বৈরী পরিবেশে কাজে লাগানো৷ তিনি বলেন, কখনো এমন পরিস্থিতির উদ্ভব হতে পারে যেখানে মানুষের পক্ষে যাওয়া বা অবস্থান করা সম্ভব নয়৷ কিন্তু সেই স্থান থেকে কোনো বস্তু অপসারণ কিংবা বস্তুটি উদ্ধার করা জরুরি৷ এমন পরিস্থিততে এ কাজের জন্য প্রি-টাচ প্রযুক্তির রোবট অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা রাখবে৷



জোস স্মিথ বলেন, বর্তমানে রোবটিক হাত কারখানার মেঝেতে পড়ে থাকা যেকোনো কিছুই আকড়ে ধরতে পারে এবং মেঝে পরিষ্কারও করতে পারে৷ কিন্তু বস্তু শনাক্ত করতে পারে না৷ ফলে সে সামনে যা পায় তাই ধরতে বা পরিষ্কার করতে চেষ্টা করে৷ এ কাজে বাধাপ্রাপ্ত হলে সে অন্যদিকে সরে যায়৷ কিন্তু প্রি-টাচ প্রযুক্তি যদি এসব রোবটে যুক্ত করা যায় তাহলে এ অবস্থার উন্নতি হবে৷ যেহেতু রোবটের হাতে যুক্ত থাকবে সেন্সর তাই মেঝেতে যেকোনো বস্তুই তার পক্ষে চিহ্নিত করা সম্ভব হবে এবং অস্বাভাবিক কিছু দেখলেই সে সঙ্কেত দেবে৷ তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, রোবটের এই শনাক্তকরণ শক্তি তাদের কর্মতৎপরতায় গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন এবং গতি সঞ্চার করবে৷ গৃহস্থালির কাজে যেসব রোবট ব্যবহার হচ্ছে সেগুলো আরো সঠিকভাবে অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে সক্ষম হবে৷ উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, বাড়ির বয়স্ক কারো এক গ্লাস পানির প্রয়োজন হলে ওই রোবট পানির পাত্র থেকে গ্লাসে তা ঢেলে পরিবেশন করতে পারবে৷ পানি উপচে পড়বে না৷ কারণ রোবট তার সেন্সরের মাধ্যমেই বুঝতে পারবে কতটুকু পানি গ্লাসে ঢালতে হবে৷ এছাড়া মেঝে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার দিয়ে পরিষ্কার করার সময় মেঝেতে কোনো দরকারী বস্তু পড়ে থাকলে ওই রোবট তা সংগ্রহ করে উঠিয়ে রাখতে পারবে৷

স্মিথের প্রি-টাচ সেন্সর কোনোরকম জটিলতা ছাড়াই কাজ করে৷ প্রতিটি সেন্সরে রয়েছে ইলেকট্রোড৷ আর এটি তৈরি হয়েছে কপার এবং অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে৷ এই ইলেকট্রোড থাকবে প্রতিটি আঙ্গুলের মাথায়৷ গবেষকরা যখন ইলেকট্রোডের মধ্যে বিদ্যুত্ প্রবাহ ঘটান, তখন সেখানে বিদ্যুত্ ক্ষেত্র তৈরি হয়৷ কোনো বস্তু যখন এই সেন্সরের কাছাকাছি আসে তখন আঙ্গুলের ইলেকট্রোডে উত্পন্ন বিদ্যুত্ কমে যায়৷ বিদ্যুত্ ক্ষেত্রের এই পরিবর্তন ধরা পড়ে সেন্সরে৷ স্পেশালাইজড অ্যালগরিদম এই ডাটা প্রক্রিয়াকরণ করে এবং রোবটিক আঙ্গুলকে কোনো বস্তু সঠিকভাবে ধরার নির্দেশনা দেয়৷

ইন্টেলের রোবটিক হাতে যে সেন্সর ব্যবহার করা হচ্ছে তা ইলেকট্রিক ফিল্ড (ইএফ)প্রোক্সিমিটিসেন্সর নামে পরিচিত৷ এটি হোন্ডা কোম্পানি তার গাড়িতে সাইড এয়ার ব্যাগের সাথে ব্যবহার করছে৷ স্মিথ এমআইটির ছাত্র থাকাকালে ইলেকট্রিক ফিল্ড সেন্সরের উন্নয়ন ঘটান৷ এই সেন্সরের আরো উন্নয়ন ঘটানোর কাজ অব্যাহত রয়েছে৷ ইএফ সিগন্যালের জটিল ডাটা উদ্ধার সহজসাধ্য ব্যাপার নয়৷ তাই গবেষকরা চাইছেন গবেষণার মাধ্যমে বিষয়টিকে এমন পর্যায়ে নিয়ে যেতে যাতে করে সেন্সরের উপাত্ত বিশ্লেষণ সহজসাধ্য হয়৷
স্মিথ বলেন, কোনো বস্তু ধরার আগে রোবট তার হাতের সেন্সর ব্যবহার করে বস্তুটি সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করে৷ এই সব তথ্য ডিকোড করতে হয় এবং যথাযথ গণনা ও বিশ্লেষণের মাধমে নির্দেশনা পাওয়া মাত্রই রোবট তা বাস্তবায়ন করে৷ এখানে বস্তুর আকার, আকৃতি এবং অন্যান্য বিষয় গুরুত্বপূর্ণ৷ আকার বড় হলে রোবট তার হাতের আঙ্গুল দিয়ে বস্তুটি ধরতে নাও পারে৷ তাই এখানে মাপজোকের ব্যাপার রয়েছে৷ সেন্সর থেকে প্রাপ্ত উপাত্ত সঠিকভাবে বিশ্লেষণের পরই কেবল বস্তুটি নিয়ে করণীয় সম্পর্কে নির্দেশনা দেয়া চলে৷ নির্দেশনা দেয়ার আগে বস্তুটি ধরার জন্য আঙ্গুলকে উপযুক্ত অবস্থানে নেয়ারও প্রয়োজন পড়ে৷ একটি গ্লাস ধরার জন্য হাতের আঙ্গুল যতটা ফাঁকা করার প্রয়োজন হয়, একটি জগ বা চওড়া কিছু ধরতে হলে আঙ্গুল তারচেয়ে অনেক বেশি ছড়ানোর প্রয়োজন হবে৷ তাই সেন্সরের মাধ্যমে বস্তুর আকার-আকৃতি চিহ্নিত করার পরই প্রোগ্রাম অনুযায়ী রোবট তার হাত দিয়ে বস্তুটি ধরবে অথবা ফেলে দেবে৷ এখানে হিসেবের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ হিসেবে যদি গরমিল হয় তাহলে রোবট সঠিক কাজটি করতে পারবে না৷ ফলে এ ধরনের প্রি-টাচ প্রযুক্তির রোবট উদ্ভাবনের উদ্দেশ্য ব্যর্থ হবে৷

রোবটে যে শুধু ইলেকট্রিক ফিল্ড সেন্সরই ব্যবহার হচ্ছে তা নয়৷ কখনো কখনো দূরের বস্তু চিহ্নিত করার জন্য ভিডিও ক্যামেরাও ব্যবহার করা হচ্ছে৷ মার্কিন ডিফেন্স অ্যাডভান্সড রিসার্চ প্রজেক্ট এজেন্সি তাদের রোবটিক গাড়িতে ব্যবহার করছে লেজার রেঞ্জ ফাইন্ডার্স৷ এটি কোনো বস্তু লক্ষ্য করে অবলোহিত রশ্মি নিক্ষেপ করে এবং প্রতিফলিত আলোক পর্যবেক্ষণ করে বস্তুর মানচিত্র অঙ্কন করে৷ এই উভয় ব্যবস্থাই অপেক্ষাকৃত ব্যয়বহুল৷ তাছাড়া কাছাকাছি বস্তু ধরার ক্ষেত্রে ভিডিও পদ্ধতি খুব একটা কার্যকর নয়৷ তাই গবেষকরা ইলেকট্রিক ফিল্ড সেন্সরকেই এ কাজে উপযুক্ত বলে মনে করছেন৷

ক্যালিফোর্নিয়ার পাশে আলটোর স্ট্যানফোর্ডে কমপিউটার সায়েন্সের অধ্যাপক উসামা খতিব বলেছেন, রোবটিকসের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা হচ্ছে বস্তু চিহ্নিত করা, স্পর্শ করা, অনুভব করা এবং বস্তুটিকে আয়ত্ত করতে পারা৷ তিনি বলেন, ইন্টেলের গবেষকরা যদি এটি করতে পারেন, তাহলে রোবটিক প্রযুক্তি অনেক দূর এগিয়ে যাবে সে ব্যাপারে সন্দেহ নেই৷ তবে এমন সেন্সরসমৃদ্ধ পূর্ণাঙ্গ রোবট তৈরি করতে হলে গবেষকদের আরো সমন্বিত কার্যক্রম চালাতে হবে৷

জোস স্মিথ একথা স্বীকার করেছেন৷ তিনি বলেছেন, এখনই আনন্দিত হওয়ার সময় আসেনি৷ ইএফ সেন্সিংয়ের সীমাবদ্ধতা রয়েছে৷ ভালো ফল পেতে সেন্সরের সংখ্যাও অনেক প্রয়োজন হবে৷ ইএফ সেন্সিংয়ের মাধ্যমে পাতলা প্লাস্টিক, কাঠ এবং কাগজের ভেতরে বস্তু চিহ্নিত করা সম্ভব৷ স্মিথ এবং তার সহযোগীরা অন্যান্য সেন্সর নিয়েও গবেষণা করছেন৷ তবে তাদের ধারণা, ইএফ সেন্সর অন্যান্য অপটিক্যাল সেন্সরের চেয়ে বেশি সুবিধাজনক৷ এই সেন্সরের পর্যবেক্ষণ অপেক্ষাকৃত নিখুঁত৷ ফলে রোবটে যদি এই ইএফ সেন্সর কার্যকরভাবে ব্যবহার করা যায় তাহলে অভীষ্ট লক্ষ্যার্জন সম্ভব হবে৷

ফিডব্যাক :smonislam7@gmail.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
২০০৭ - ডিসেম্বর সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস