Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > ‘কমপিউটর জগৎ’ চালু করল দেশের বৃহত্তম বাংলা তথ্যপ্রযুক্তি ওয়েব পোর্টাল [www.comjagat.com]
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: মো: আবদুল ওয়াহেদ তমাল
মোট লেখা:৪১
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৯ - মে
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
আইটিওয়েবসাইট, 
তথ্যসূত্র:
রির্পোট
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
‘কমপিউটর জগৎ’ চালু করল দেশের বৃহত্তম বাংলা তথ্যপ্রযুক্তি ওয়েব পোর্টাল [www.comjagat.com]

গত ২৫ এপ্রিল, ২০০৯ মাসিক কমপিউটার জগৎ-এর ইতিহাসে, এমনকি বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ইতিহাসে সৃষ্টি হলো একটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক। এই দিনে মাসিক কমপিউটার জগৎ আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করে এর নিজস্ব ওয়েবপোর্টাল www.comjagat.com-এর বেটা ভার্সন। এটি বাংলায় এবং ইংরেজিতে করা বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক সবচেয়ে বড় ওয়েবপোর্টাল। এতে কমপিউটার জগৎ-এর গত ১৮ বছরে প্রকাশিত সব ম্যাগাজিন আর্কাইভ করা আছে, যেগুলো বিনে পয়সায় ডাউনলোড করা যাবে অথবা অনলাইনে পড়া যাবে।


কেক কেটে www.comjagat.com ওয়েবপোর্টাল ‍উদ্বোধন করেছেন মাসিক
কমপিউটার জগৎ-এর প্রকাশিকা মিসেস নাজমা কাদের

এই ওয়েবপোর্টাল চালু করার লক্ষ্যে নগরীর একটি রেস্তরাঁয় মাসিক কমপিউটার জগৎ তথ্যপ্রযুক্তিপ্রেমীদের এক মিলনমেলার আয়োজন করে। এ সম্মেলনে কমপিউটার জগৎ-এর লেখক, পাঠক, পৃষ্ঠপোষক ও এদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের নেতৃবৃন্দসহ অনেক শিক্ষাবিদও যোগ দেন। তাদের উপস্থিতিতেই মাসিক কমপিউটার জগৎ-এর প্রকাশক নাজমা কাদের কেক কেটে comjagat.com ওয়েবপোর্টালের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এ সময় সমবেত অতিথিরা করতালি দিয়ে comjagat.com ওয়েবপোর্টালের বেটা ভার্সনের উদ্বোধনকে স্বাগত জানান।



অনুষ্ঠানের শুরুতেই অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য রাখেন মাসিক কমপিউটার জগৎ-এর সম্পাদক গোলাপ মুনীর। তিনি তার স্বাগত ভাষণে বলেন, ‘আজকের এই আয়োজনের মাধ্যমে মাসিক কমপিউটার জগৎ চালু করলো comjagat.com ওয়েবপোর্টালের বেটা ভার্সন। এর মাধ্যমে কমপিউটার জগৎ এর সেবা সম্প্রসারণের ক্ষেত্রে আরেকটি মাইলফলক তৈরি করলো। এজন্য আমরা গর্ববোধ করছি। এ ওয়েবপোর্টালটি হবে প্রযুক্তিপ্রেমীদের জন্য একটি কমন প্ল্যাটফরম। যেকেউ চাইলে নিবন্ধিত হয়ে এ সাইটের সেবাসমূহ কাজে লাগাতে পারবেন।

তিনি আরো বলেন, comjagat.com ওয়েবপোর্টাল আনুষ্ঠানিকভাবে চালুর এ দিনে যে মানুষটিকে কাছে পেলে আমরা সবচেয়ে বেশি খুশি হতে পারতাম, তিনি আজ আমাদের মাঝে নেই। তিনি আমাদের প্রেরণা-পুরুষ, কমপিউটার জগৎ-এর প্রতিষ্ঠাতা, এ দেশের তথ্যপ্রযুক্তি আন্দোলনের অগ্রপথিক অধ্যাপক মরহুম আবদুল কাদের। তিনি নিজেও এ অনুষ্ঠানে আজ উপস্থিত থাকতে পারলে নিশ্চিতভাবেই সমধিক সুখবোধ করতেন। কারণ, কমপিউটার জগৎ-এর পক্ষ থেকে প্রযুক্তিপ্রেমীদের জন্য নতুন নতুন সেবা সম্প্রসারণের মাঝে তিনি খুঁজে পেতেন অন্যরকম এক আনন্দ। সেজন্য কমপিউটার জগৎ-এর তৎপরতাকে শুধু প্রকাশনার মধ্যেই সীমিত রাখেননি। তিনি কমপিউটার জগৎকে করে তোলেন এ দেশের তথ্যপ্রযুক্তি আন্দোলনের মোক্ষম এক হাতিয়ার। এজন্য তাকে ভাঙতে হয়েছে ছকবাঁধা সাংবাদিকতার গন্ডি । সে সূত্রেই কমপিউটার জগৎকে অনুষদ করে তিনি অনেক রেকর্ড গড়েছেন। ‘জনগণের হাতে কমপিউটার চাই’ স্লোগান নিয়ে কমপিউটার জগৎ-এর প্রকাশনা শুরু করে তিনি এর জন্য যখন যা প্রয়োজন, তখন আমাদের সীমিত ক্ষমতা দিয়ে তাই করতে উদ্যোগী হয়েছেন। প্রয়োজনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছেন। এদেশে প্রথম সূচনা করেছেন কমপিউটার মেলা, প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা, বিবিএস সার্ভিস ও এমনি আরো অনেক কিছুই। তারই প্রেরণাসূত্রে আজ আমরা চালু করলাম দেশের বৃহত্তম তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবপোর্টাল।

এরপর comjagat.com ওয়েবপোর্টালের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন মাসিক কমপিউটার জগৎ-এর কারিগরি সম্পাদক আবদুল ওয়াহেদ তমাল। তিনি জানান, প্রযুক্তিপ্রেমীরা এর নানাধর্মী সেবা সহজেই গ্রহণ করতে পারবেন।

এই ওয়েবপোর্টালের পাঠকরা-

০১. কমপিউটার জগৎ-এ প্রকাশিত পুরনো ও নতুন সব লেখা পড়তে ও ডাউনলোড করতে পারবেন।

০২. নিজের লেখা পোস্ট করতে পারবেন।

০৩. ক্যুইজ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন।

০৪. তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক খবর, নতুন পণ্য, ইভেন্ট এবং বিভিন্ন সুযোগসুবিধা, যেমন-চাকরি, ফ্রিল্যান্সিং, স্কলারশিপ ইত্যাদি বিষয়ের তথ্য জানতে পারবেন।

০৫. পণ্য ও লেখার র্যাকঙ্কিং, রেটিং ও মন্তব্য করতে পারবেন।

০৬. নিজস্ব প্রতিষ্ঠানের প্রোফাইল তৈরি, অনুষ্ঠিত ও অনুষ্ঠিতব্য অনুষ্ঠানের খবর প্রকাশ করতে পারবেন।

০৭. আইসিটিবিষয়ক বিভিন্ন সুযোগসুবিধা ও নতুন পণ্যের বিবরণ তুলে ধরতে পারবেন।

০৮. ব্লগের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের আগ্রহের বিভিন্ন আইসিটি বিষয়ে দলীয় আলোচনায় অংশ নেয়ার সুযোগ পাবেন।

এরপর শুরু হয় আমন্ত্রিত অতিথিদের শুভেচ্ছা বক্তব্য। এ পর্বে অন্যদের মাঝে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিসিএস সভাপতি মোস্তাফা জববার, ইন্টারন্যাশনাল অফিস ইকুইপমেন্টের প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী আফতাবুল ইসলাম, জেএএন অ্যাসোসিয়েটসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল্লাহ এইচ কাফি, আমাদের গ্রাম-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক রেজা সেলিম, ডি.নেটের নির্বাহী পরিচালক ড. অনন্য রায়হান, অধ্যাপক ড. সৈয়দ আখতার হোসেন, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগের সাবেক প্রধান, প্রখ্যাত চিকিৎসক ও মাসিক কমপিউটার জগৎ-এর সম্পাদনা উপদেষ্টা অধ্যাপক ডা. একেএম রফিক উদ্দিন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাবেক প্রধান আশরাফ উদ্দিন মাহমুদ, বিশিষ্ট সাংবাদিক আবীর হাসান এবং কামাল আরসালান, www.southasiafair.com-এর করেসপনডেন্ট রাজীব আহমেদ এবং বাংলাদেশ কমপিউটার কাউন্সিলের সিস্টেম এনালিস্ট তারেক বরকতউল্লাহ।

এছাড়াও comjagat.com ওয়েবপোর্টালের ডেভেলপমেন্ট টিমের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন কমপিউটার জগৎ ব্লগ (www.blog. comjagat.com) ডেভেলপার সামহয়্যারইন-এর হেড অব অপরচুনিটি, আরিল, comjagat.com সাইটের ডেভেলপার ইনফরমেটিক্স সফট-এর সিটিও মিজানুর রহমান এবং প্রোগ্রামার ও মূল ডেভেলপার ইউনুস খান।

বক্তারা তাদের শুভেচ্ছা বক্তব্যে এই ওয়েবপোর্টাল চালুর বিষয়টিকে স্বাগত জানিয়ে এর উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন। এ প্রসঙ্গে বক্তারা বলেন, ওয়েবপোর্টাল চালুর চেয়ে বড় কথা হচ্ছে একে সময়োপযোগী তথ্যসমৃদ্ধ রাখা। তাই অন্যান্য বক্তার মধ্যেও কমপিউটার জগৎ পরিবারের প্রতি একটা মৃদু তাগিদ রাখা হয়েছে ওয়েবপোর্টালটিকে নিয়মিত হালনাগাদ ও তথ্যসমৃদ্ধ রাখার। কমপিউটার জগৎ পরিবারের পক্ষ থেকেই সমভাবে এ ব্যাপারে সচেতন থাকার ব্যাপারে সবাইকে আশ্বস্ত করা হয়।

তবে বক্তাদের শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখার সময় আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে এসেছে। বক্তারা উল্লেখ করেছেন, অধ্যাপক আবদুল কাদের সূচিত কর্মযজ্ঞের পথ বেয়েই আমরা আজ এখানে সমবেত নতুন এক মাইলফলক উন্মোচনের জন্য। তার দেখানো পথ ধরে হয়তো আমরা তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে আরো এগিয়ে নিয়ে যাবো। কিন্তু মরহুম আবদুল কাদের আজ চাওয়া-পাওয়ার উর্ধ্বে। তার প্রতি আজো আমরা জাতীয়ভাবে কোনো সম্মান প্রদর্শন করতে পারিনি। এ প্রসঙ্গে মরহুম আবদুল কাদেরের সম্মানে কিছু করার তাগিদ রেখে বক্তব্য রাখেন আফতাবুল ইসলাম ও আব্দুল্লাহ এইচ কাফি। এ ব্যাপারে তারা উভয়ই বিসিএস সভাপতি মোস্তাফা জববারের বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। মোস্তাফা জববার এ বিষয়টি বিসিএসের সক্রিয় বিবেচনায় আছে বলে তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন। কেউ কেউ তাদের বক্তব্যে জানিয়েছেন, তারা এ বছর মরহুম আবদুল কাদেরের নাম স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্তদের তালিকায় কিংবা একুশে পদকপ্রাপ্তদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার প্রয়াস চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছেন। তবে তারা আশাবাদী জাতি একদিন অধ্যাপক মরহুম আবদুল কাদেরের অবদান শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে।

সবশেষে সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বক্তব্য রাখেন মাসিক কমপিউটার জগৎ-এর প্রকাশক নাজমা কাদের। অনুষ্ঠানটির সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন মাসিক কমপিউটার জগৎ-এর সহকারী সম্পাদক এম. এ. হক অনু, ওয়েব মডারেটর এহ্তেশাম উদ্দিন, ইশতিয়াক জাহান রনি এবং বদরুন্নেসা স্বাগতা।

কজ ওয়েব
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
২০০৯ - মে সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস