Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > গেমের কিছু সমস্যাও সমাধান
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: সৈয়দ হাসান মাহমুদ
মোট লেখা:১৪৪
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৯ - মে
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
কমপিউটার গেমগেম, গেমস, 
তথ্যসূত্র:
গেমের জগৎ
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
গেমের কিছু সমস্যাও সমাধান

পূর্ব মেরুল বাড্ডা থেকে কার্তিক দাস (শুভ) কয়েকটি গেমের সমস্যার কথা জানতে চেয়েছেন, তার গেমের সমস্যার সমাধানগুলো পর্যায়ক্রমে দেয়া হলো :

সমস্যা-১ :

১৯৮৯ সালে বের হওয়া একটি জনপ্রিয় গেম প্রিন্স অব পার্সিয়া। এর চতুর্থ লেভেলের দরজা খোলা গেলেও একটি আয়না এই দরজার সামনে যাওয়ার পথ রোধ করছে। এর সমাধান কি? গেমটির লেভেল সংখ্যা কত? পরবর্তীতে কি এরকম সমস্যা আরও রয়েছে?

সমাধান :

প্রিন্স অব পার্সিয়া সিরিজের প্রথম গেম হচ্ছে এই গেমটি। এর পর এই সিরিজের আরো অনেক গেম বের হয়েছে। এই সিরিজের সর্বশেষ সংযোজনের নামও প্রিন্স অব পার্সিয়া (২০০৮) এবং এটিও একটি ট্রিলজি। অর্থাৎ তিন পর্ব মিলিয়ে এর কাহিনী গড়ে উঠেছে এবং ২য় পর্বে প্রিন্সের অভিযান শেষ হবে। আপনি যে গেমটির কথা বলছেন তা অনেক পুরনোই বলা চলে। গেমটি বানানো হয়েছিলো মেকিনটোশ ও আইবিএম পিসির জন্য। আপনি চতুর্থ লেভেল যার নাম দ্য শ্যাডো-এর একেবারে শেষ পর্যায়ে রয়েছেন। আপনার সামনে যে আয়নাটি পথ রোধ করে আছে সে আয়নার দিকে মুখ করে দাঁড়ান। কিছুটা পিছিয়ে এসে আয়নার দিকে দৌড়ে আসুন এবং কাছাকাছি এসে লাফ দিন। আয়নার দিক থেকে আপনার প্রতিবিম্বও আপনার দিকে লাফিয়ে আসবে। এতে আপনার লাইফ এক পয়েন্ট কমে যাবে, কিন্তু আপনার লাইফ যদি এক পয়েন্ট থাকে তবে আপনার লাইফের কিছুই হবে না এবং আপনি পৌঁছে যাবেন ৫ম লেভেলে। গেমটিতে মোট ১২টি লেভেল রয়েছে। পরবর্তীতে আরো অনেক সমস্যা রয়েছে, যা আপনাকে সমাধান করতে হবে। গেমটি দারুণ এক পাজল ও অ্যাডভেঞ্চার গেম। গেমটি পুরনো হতে পারে, কিন্তু এর কঠিন পাজল সমাধানের ধরন একে আজও জনপ্রিয় করে রেখেছে। এমন ব্যক্তিও খুঁজে পাবেন যে এই গেমটি শেষ করতে বছর পার করে ফেলেছেন।

সমস্যা-২ :

কমান্ডোজ একটি নামকরা গেম। গেমটির দিবতীয় লেভেলে একটি চলমান জাহাজ কোনোভাবেই ধ্বংস করা যাচ্ছে না এবং Sapper নামের একজন সৈনিকের গ্রেনেড ব্যবহার করা যাচ্ছে না, এর সমাধান কি? গেমটির লেভেল সংখ্যা কত?

সমাধান :

যখন কোনো গেমের সমস্যার কথা লিখবেন তখন গেমের পুরো নাম লিখবেন, তাতে আমাদের গেমটি চিনতে সুবিধা হয়। কারণ গেম সিরিজের সব গেমের মূল নাম একই থাকে এবং সাথে পর্বের নাম দেয়া থাকে। আপনি শুধু উল্লেখ করেছেন কমান্ডোজ। কিন্তু আপনার উল্লেখ করা উচিত ছিলো কমান্ডোজ-বিহাইন্ড দ্য এনিমি লাইন নামে। এটি কমান্ডোজ সিরিজের প্রথম গেম। এর পর বের হওয়া এই সিরিজের অন্য গেমগুলো হচ্ছে-বিয়ন্ড দ্য কল অব ডিউটি, মেন অব কারেজ, ডেস্টিনেশন বার্লিন এবং স্ট্রাইক ফোর্স। আপনি আটকে গেছেন মিশন ২-এ, যার নাম ডিসক্রিট এক্সপ্লোশন। এখানে আপনাকে চলমান বোটটি ধ্বংস করতে হবে না। আপনার কাজ হচ্ছে কেউ যেনো টের না পায় সেভাবে বাকি সৈন্যদের মেরে ফেলা এবং ট্রাক নিয়ে পালিয়ে যাওয়া। প্রথমে গ্রিন ব্যারেটকে নিয়ে ম্যাপের ডানদিকে হাঁটতে থাকা সৈন্যকে গুলি করে মারুন, তারপর অন্য দুজন দৌড়ে আসলে তাদেরও গুলি করুন। তারপর টহলরত বোটটির নজর ফাঁকি দিয়ে মেরিনের কাছে থাকা রাবারের বোটটি পানিতে রেখে সবাইকে নিয়ে নদীর এপাশ হতে অন্য পাশে চলে যান। তারপর ধীরে ধীরে বুদ্ধি করে অপর পাশের সৈন্যদের সাথে মোকাবেলা করুন। আর স্যাপারকে নিয়ে কোনো গ্রেনেড ছোড়া যায় না, স্যাপারের কাছে টাইমবোমা আছে এবং প্রয়োজন হলে সে সেটা জায়গামতো স্থাপন করতে পারবেন। গেমে মোট মিশন সংখ্যা হচ্ছে ১৯টি।
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
২০০৯ - মে সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস