Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > থ্রি ডিএক্স ম্যাক্স টিউটরিয়েল : বাস্কেট বল মডেলিংয়ের কৌশল
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: টংকু আহমেদ
মোট লেখা:৫৩
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৯ - জুন
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
থ্রীডি ম্যাক্স
তথ্যসূত্র:
মাল্টিমিডিয়া
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
থ্রি ডিএক্স ম্যাক্স টিউটরিয়েল : বাস্কেট বল মডেলিংয়ের কৌশল



প্রজেক্ট : বাস্কেটবল মডেলিং (১ম অংশ)

গত সংখ্যায় গোলাকার খেলার সামগ্রী মডেলিংয়ের দ্বিতীয় পর্যায়ে দু’ধরনের গল্ফ বল মডেলিংয়ের কৌশল দেখানো হয়েছিল। চলতি সংখ্যায় তৃতীয় পর্যায়ে কিভাবে একটি বাস্কেটবল তৈরি করা যায়, তার প্রথম অংশ বর্ণনা করা হয়েছে। মডেলটি তৈরির কৌশলের ১ম অংশ কয়েকটি ধাপে তুলে ধরা হলো-

১ম ধাপ

বাস্কেটবল তৈরির জন্য বেসিক অবজেক্ট হিসেবে আমরা ১টি গোলক ব্যবহার করব। প্রথমে টপ ভিউতে কমান্ড প্যানেলক্রিয়েটজিয়োমেট্রি-এর অবজেক্টসমূহ থেকে গোলক বা স্ফেয়ার সিলেক্ট করে একটি গোলক তৈরি করুন এবং একে মূলবিন্দু অর্থাৎ ম্যাক্সের (০,০,০) বিন্দুতে স্থাপন করুন। কমান্ড প্যানেলের মডিফাই ট্যাবে ক্লিক করে প্যারামিটারস্ রোল-আউট হতে রেডিয়াস=১০০, সেগমেন্ট=১৬ টাইপ করুন এবং বেজ টু পিভোট অপশনটি চেক করে দিন; চিত্র-০১। এর ফলে স্ফেয়ারটির তলায় পিভোটটি সেট হবে এবং স্ফেয়ারটি উপরে উঠে এসে ভূমি বরাবর স্থাপিত হবে। স্ফেয়ারটি সিলেক্ট অবস্থায় রাইট মাউস ক্লিক করে কোয়াড মেনু থেকে কনভার্ট টু কনভার্ট টু এডিটেবল পলি লেখাটি সিলেক্ট করে এটাকে এডিটেবল পলিতে পরিণত করুন; চিত্র-০২।







২য় ধাপ

টপ ভিউপোর্টকে ম্যাক্সিমাইজ করে ৩নং চিত্রের মতো চারটি কাট তৈরি করুন। পরে ৪নং চিত্রে যে ২৪টি ‘এজ’ সিলেক্টেড দেখানো হয়েছে সেগুলো সিলেক্ট করার জন্য কমান্ড প্যানেলের এডিট স্ট্যাকের এজ মোডে গিয়ে কীবোর্ডের Ctrl চেপে একে একে সিলেক্ট করুন। সিলেক্টের ক্ষেত্রে লক্ষ করুন কাট করার ফলে তৈরি হওয়া আড়াআড়ি নতুন ৪টি এজ গ্রুপ এবং মূল X অক্ষ ও Y অক্ষ বরাবর দুটি এজ গ্রুপ যেন সিলেক্ট না হয়। ২৪টি এজ সিলেকশনের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে কীবোর্ডের Ctrl চেপে Backspace কী প্রেস করুন। এর ফলে সিলেক্টেড এজ এবং এর সাথে যুক্ত ভারটেক্সগুলো একত্রে রিমুভ হয়ে যাবে; চিত্র-০৩, ০৪। ভারটেক্স মোডে গিয়ে চিত্র-০৫-এ দেখানো ভারটেক্সগুলো একত্রে সিলেক্ট করুন এবং Y এক্সিসে ৫০% স্কেল ডাউন করুন; চিত্র-০৫। নির্দিষ্ট স্ন্যাপে স্কেল করার বাড়তি সুবিধা পেতে মেইন টুলবারের ‘পারসেন্ট স্ন্যাপ টগল’-কে অন করে নিতে পারেন। এসব এডিটের কারণে স্ফেয়ারটির নিচের অংশের অনাকাঙ্ক্ষিত পরিবর্তন হতে পারে। এর জন্য দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই। আমরা পরবর্তীতে নিচের অংশ বাদ দিয়ে ওপরের অংশের সিমেট্রি করে নেব। যাহোক, স্কেল ডাউনের কাজ শেষ হলে সামনের ও পেছনের দুটি ভারটেক্স বাদে অন্য ৩টি ভারটেক্সকে ডি-সিলেক্ট করুন অর্থাৎ দুটি ভারটেক্স সিলেক্ট থাকবে। এখন ভারটেক্স দুটিকে একই অক্ষ অর্থাৎ Y অক্ষ বরাবর ১৫০% স্কেলআপ করে নিন; চিত্র-০৬। একই লাইনের মধ্যেরটি বাদে বাকি আরও দুটিসহ মোট চারটি ভারটেক্স সিলেক্ট করে লেফ্ট ভিউতে গিয়ে মেইন টুলবারের সিলেক্ট অ্যান্ড মুভ টুলে রাইট মাউস ক্লিক করে ‘মুভ ট্রান্সফর্ম টাইপ-ইন’ এডিটর ওপেন করুন এবং এর অফসেট স্ক্রিনের Y-এর ঘরে ৩.০ টাইপ করে এন্টার দিন; চিত্র-০৭। আবার মাঝের ভারটেক্সটি সিলেক্ট করে একই স্থানে অর্থাৎ Y-এর ঘরে ১.২৫ মান টাইপ করে এন্টার দিন।











৩য় ধাপ

লেফ্ট ভিউ থেকে ওপরের দিকের প্রথম সারি পর্যন্ত ভারটেক্সগুলো (২১টি) সিলেক্ট করে Y এক্সিসে ১৩০% পরিমাণ স্কেলআপ করুন। এই সিলেকশনে মোট ২১টি ভারটেক্স সিলেক্ট হবে; চিত্র-০৮। মডেলটিতে মডিফায়ার লিস্ট হতে ‘মেসস্মুথ’ মডিফায়ার অ্যাপ্লাই করুন এবং লেফ্ট ভিউপোর্টে একই সাইজের আরেকটি স্ফেয়ার তৈরি করে এর সাথে এলাইন করে মিলিয়ে দেখুন মডেলটি গোলাকার হয়েছে কি-না। এক্ষেত্রে নতুন স্ফেয়ারটির সেগমেন্ট হবে ৩২টি। মোটকথা আপনার মডেলটি গোলাকার হতে হবে, ডিম্বাকার যেন না হয়। সেক্ষেত্রে আমাদের মডেলটিতে আরও কিছু ফাইন টিউনিংয়ের কাজ করতে হবে। লেফ্ট ভিউতে থেকেই মডেলটির ওপর দিক হতে উইন্ডো করে তিন সারি ভারটেক্স সিলেক্ট করুন এবং Y এক্সিসে ১.০ পরিমাণ নিচে নামিয়ে নিয়ে আসুন। এই সিলেকশনে মোট ৩৭টি ভারটেক্স সিলেক্ট হবে; চিত্র-০৯। যেহেতু আমি পরিমাপগুলো নির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করে দিয়েছি সে কারণে দ্বিতীয় স্ফেয়ারটি ব্যবহারের চিত্র বা বিস্তারিত বর্ণনা দেইনি। ফলে আপনি নতুন রেফারেন্স স্ফেয়ারটি ব্যবহার না করলেও কোনো সমস্যা হয়ত হবে না। আগের সিলেকশনের নিচের সারির ভারটেক্সগুলো ছেড়ে দিয়ে ওপরের দুই সারি সিলেক্ট রাখুন অথবা নতুন করে ওপরে দুই সারি ভারটেক্স সিলেক্ট করুন। এতে মোট ২১টি ভারটেক্স সিলেক্ট হবে। ‘পারসেন্ট স্ন্যাপ টগল’ অন করে Y এক্সিসে ৮০% স্কেল ডাউন করুন। লক্ষ করুন, মডেলটির ওপরের অর্ধেক অংশ মোটামুটি গোলাকার হয়ে গেছে। আপনি যদি রেফারেন্স স্ফেয়ার নিয়ে থাকেন তাহলে এখন সেটা ডিলিট করে দিন।






৪র্থ ধাপ

‘মেসস্মুথ’-এর সাবডিভিশন অ্যামাউন্টের ইটারেশন্স-এর মান ১ আছে কি-না নিশ্চিত হোন। এরপর এডিট-স্ট্যাকের ‘মেসস্মুথ’ লেখাটির ওপর রাইট মাউস ক্লিক করুন। ওপেন হওয়া মেনুটি হতে ‘ক্লপস অল’ লেখাটিতে ক্লিক করলে একটি ওয়ার্নিং মেসেজ আসবে। এর ‘হোল্ড/ইয়েস’ অথবা ‘ইয়েস’ বাটনে ক্লিক করুন এবং লক্ষ করুন মডেলটি এডিটেবল পলিতে পরিণত হয়েছে এবং মেসস্মুথ মডিফায়ারটি আর নেই, কিন্তু স্মুথনেস ঠিকই আছে। মূলত স্মুথনেস মডেলটিতে স্থায়ীভাবে অ্যাপ্লাই হয়ে গেছে, যার ফলে পলিগন সংখ্যাও বেড়ে গেছে; চিত্র-১০, ১১।



(বাকি অংশ পরবর্তী সংখ্যায়)

কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : aktarhossain@yahoo.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস