Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > ইন্টারনেটে শিক্ষা উপকরণের তথ্যভান্ডার
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: মো: লাকিতুল্লাহ প্রিন্স
মোট লেখা:৩২
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৯ - সেপ্টেম্বর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
ইনটারনেট
তথ্যসূত্র:
ইন্টারনেট
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
ইন্টারনেটে শিক্ষা উপকরণের তথ্যভান্ডার

আধুনিক যুগে তথ্যপ্রযুক্তিসংশ্লিষ্ট পেশা নিঃসন্দেহে আকর্ষণীয়। জীবনের প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রে প্রযুক্তি তার পরশ বুলিয়ে গেছে। তাই তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক চাকরির বাজার দিনে দিনে প্রসারিত হচ্ছে। বাড়ছে দক্ষ লোকের চাহিদা। তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়টি এমনই যেকেউ ইচ্ছে করলে বাসায় বসেও নিজের কর্মসংস্থান করতে পারেন। প্রয়োজন শুধু দক্ষতা আর নিরলস পরিশ্রম করার মানসিকতা। তথ্যপ্রযুক্তিসংশ্লিষ্ট পেশাগুলোকে কোনো নির্দিষ্ট সংজ্ঞায় সীমাবদ্ধ করা কঠিন। পেশাগুলোর বৈচিত্রতার কারণে কেউ হতে পারেন প্রোগ্রামার, সফটওয়্যার ডেভেলপার, ওয়েব ডিজাইনার, ওয়েব ডেভেলপার, ডাটাবেজ অ্যাডমিন নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার ইত্যাদি।

সবচেয়ে বড় সুবিধে হলো, এ পেশাসংশ্লিষ্ট শিক্ষার উপরকরণ ইন্টারনেটে প্রচুর। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তা বিনামূল্যে পাওয়া যায়। অনলাইনে ছড়িয়ে থাকা তথ্যভান্ডার থেকে প্রয়োজনীয় বিষয়গুলো কোথায় পাওয়া যেতে পারে সে সম্পর্কে কিছু ধারণা দেয়ার জন্যই এ লেখার অবতারণা।

ই-বুকের যত উৎস

যেকোনো শিক্ষার প্রধান উপরকরণ হলো বই। ই-বুক বা ইলেকট্রনিক বই হলো প্রচলিত বইগুলোর কমপিউটারভিত্তিক সংস্করণ। এ বইগুলো সাধারণত পিডিএফ বা সিএইচএম ফরমেটের হয়ে থাকে। বই প্রকাশনার অনেক প্রতিষ্ঠান তাদের বইগুলো ই-বুক ফরমেটে বিক্রি কিংবা বিনামূল্যে বিতরণ করে থাকে। আইটিসংশ্লিষ্ট ই-বুকের বিশাল ভান্ডার www.knowfree.net। সাইটটির মূলকথা জ্ঞানার্জন করুন বিনামূল্যে। এ সাইটে ঢুকে হোম পেজে পাবেন সম্প্রতি আসা কিছু বইয়ের ছবি। কোনো একটি বইয়ের ছবিতে ক্লিক করলে সে সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ পাওয়া যাবে। সংশ্লিষ্ট ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে বইটি ডাউনলোড করা যায়। এছাড়া হোম পেজের ডান পাশের কলামে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে যত ই-বুক ও ভিডিও টিউটরিয়াল আছে তার তালিকা দেখা যাবে। প্রত্যেক ক্যাটাগরির অধীনে থাকা বইয়ের সংখ্যাও এখানে উল্লেখ করা থাকে। নির্দিষ্ট কোনো বই খুঁজে পেতে সার্চ অপশনটি ব্যবহার করা যেতে পারে।

এধরনের আরো কিছু সাইট নিচে উল্লেখ করা হয়েছে, যেখান থেকে ফ্রি বই ডাউনলোড করা যায় www.netbks.com, www.ebooks-space. com, www.allfreedownloadlinks.com, www.getfreeebooks.com, www.free-ebooks.net, www.gutenberg.org, www.onlinecomputerbooks.com, www.knownmore.com, ebooklinks.rediffblogs.com ইত্যাদি। ইন্টারনেটে সার্চ করে এধরনের আরো উৎসের সন্ধান পাওয়া যেতে পারে।

প্রোগ্রামিং কিংবা ওয়েব ডেভেলপমেন্টে যারা নতুন তাদের জন্য বিশ্বখ্যাত প্রকাশক ও’রেইলির একটি বুক-সিরিজ চালু রয়েছে। প্রযুক্তিসংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে এ তালিকা প্রতিনিয়ত বড় হচ্ছে। এটি হলো ‘হেড ফার্স্ট সিরিজ’। বইগুলোর বিষয়বস্ত্ত ব্যতিক্রম পদ্ধতিতে উপস্থাপিত। চিত্রসহকারে বর্ণনা, প্রশ্নোত্তর, ধাঁধা, ক্যুইজ ইত্যাদি অবতারণা করে নতুনদের কাছে আকর্ষণীয় ও সহজ করে তোলা হয়েছে। জোর দেয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে মৌল জ্ঞানের ওপর। বইগুলোর তালিকা দেখতে http://oreilly.com/store/series/ headfirst.csp সাইটটি ব্রাউজ করুন। উল্লেখ্য, এই সাইট থেকে বইগুলো ফ্রি ডাউনলোড করা যাবে না। তবে কিভাবে বইগুলো পাওয়া যেতে পারে সে পদ্ধতি এ লেখার শেষাংশে আলোকপাত করা হয়েছে।

ভিডিও টিউটরিয়াল

একথা অনস্বীকার্য, কোনো কিছু শেখার সবচেয়ে কার্যকর উপায় হলো অডিও-ভিজ্যুয়াল লার্নিং বা দেখে-শুনে শেখা। ঠিক এ ব্যাপারটির প্রতি লক্ষ রেখে তথ্যপ্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ভিডিও টিউটরিয়াল প্রস্ত্ততকারক প্রতিষ্ঠান তাদের কোর্স কনটেন্ট প্রস্ত্তত করেছে। বিভিন্ন বিষয়ের ওপর তাদের প্রস্ত্তত করা কোর্সগুলোর ব্যাপ্তি ২ ঘণ্টা থেকে ৩০ ঘণ্টা পর্যন্ত। এ কোর্সগুলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ফ্রি নয়। নির্দিষ্ট গ্রাহক ফির বিনিময়ে ভিডিওগুলো অনলাইনে দেখা যায় কিংবা ডাউনলোড করা যায়। তবে দুশ্চিন্তার কিছু নেই, সেগুলো পাওয়ার উপায় নিয়ে একটু পরেই আলোচনা করা হয়েছে।

ভিডিও টিউটয়ালের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও বিখ্যাত দু’টি প্রতিষ্ঠান হলো লিন্ডা ডট কম ও ভিটিসি বা ভার্চুয়াল ট্রেনিং কোম্পানি। ওয়েবসাইট যথাক্রমে www.lynda.com এবং www.vtc.com। সাইটগুলো ভিজিট করে বিভিন্ন কোর্স সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে কোর্সগুলো বিন্যস্ত করা হয়েছে। এ দু’টিতে সফটওয়্যার, অ্যাপ্লিকেশন, প্রোগ্রামিং, ওয়েব ডিজাইন, ডেভেলপমেন্ট, ডাটাবেজ, ফটোশপ, প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট, অপারেটিং সিস্টেম, ব্লগিং, গুগল অ্যাপস, টুইটার, নেটওয়ার্কিংসহ বিভিন্ন সার্টিফিকেশন কোর্সের ট্রেনিং কনটেন্ট পাওয়া যায়, যা নিঃসন্দেহে কারো শেখার অভিজ্ঞতাকে আনন্দময় ও গতিকে ত্বরান্বিত করবে। এধরনের আরো কিছু সাইট হলো : www.kelbytraining.com, www.pixologic.com, www.testout.com, www.cbtplanet.com, www keepthemfree.net, www.tactools.us ইত্যাদি। প্রয়োজনীয় কোর্সটির লিঙ্কে ক্লিক করে কোর্স কনটেন্ট সম্পর্কে বিশদ ধারণা পাওয়া যায়।

ডাউনলোড করার উপায়

উপরে উল্লিখিত ই-বুক বা ভিডিও কনটেন্ট সবগুলো ফ্রি নয়। তবে সেগুলো পাওয়ার অনেক উপায় খোলা রয়েছে। প্রথমে পছন্দ করুন কোন্ ই-বুকটি ডাউনলোড করতে চান। ধরা যাক, কেউ চিন্তা করলেন তার ও’রেইলি পাবলিকেশনের ‘হেড ফার্স্ট জাভা’ বইটি প্রয়োজন। এজন্য গুগলে "head first java" +free download লিখে সার্চ করতে হবে। সার্চ রেজাল্টের অনেক ওয়েবসাইটে পাওয়া যেতে পারে বইটির ডাউনলোড লিঙ্ক। এছাড়াও www.filespump.com, www.rapidlibrary.com, www.phazedd.com, www.rapidzearch.com, www.filewatcher.com, www.filesnatcher.com, www..globalfilesearch.com সাইটগুলোতে গিয়ে বইটির নাম লিখে সার্চ করা যেতে পারে।

এছাড়াও টরেন্ট দিয়েও কোনো বই ডাউনলোড করা যেতে পারে। এজন্য প্রথমে www.utorrent.com/downloads সাইটে গিয়ে মিউটরেন্ট সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে ইনস্টল করুন। এরপর গুগলে গিয়ে ‘হেড ফার্স্ট জাভা’ বইটির জন্য "head first java" + torrent লিখে সার্চ দিন। সার্চ রেজাল্ট থেকে বইটির জন্য টরেন্ট ফাইলটি পেলে লক্ষ করুন কোন টরেন্ট ফাইলটির সিড্ ও লিচ্ বেশি। বেশি সিড্ ও লিচ্ হলে বইটি তুলনামূলক দ্রুত ডাউনলোড করা যাবে। টরেন্ট ফাইলটি ডাউনলোড করে মিউটরেন্ট সফটওয়্যার দিয়ে ওপেন করে ওকে করুন। ফাইল ডাউনলোড হতে থাকবে। এছাড়াও টরেন্ট সার্চ ইঞ্জিনে গিয়ে বইটির টাইটেল দেখে সার্চ দিয়ে প্রয়োজনীয় টরেন্ট খুঁজে পাওয়া যেতে পারে। নিচে জনপ্রিয় কিছু টরেন্ট সার্চ ইঞ্জিনের তালিকা দেয়া হলে :

mininova.org, ThePirateBay.org, isohunt.com, Torrentz.com, TorrentPortal.com, sumotorrent.com, onlytorrents.com, seedpeer.com, TorrentBox.com, TorrentReactor.to।

পিডিএফ রিডার ও ভিডিও প্লেয়ার

বেশিরভাগ ই-বুক পিডিএফ ফরমেটের। সুতরাং ওই ফাইলগুলো পড়ার জন্য পিডিএফ রিডার প্রয়োজন। ছোট সাইজের, ফ্রি, জনপ্রিয় একটি পিডিএফ রিডার হলো ফক্সইট রিডার। ওয়েবসাইট http://www.foxitsoftware.com/downloads/ থেকে ডাউনলোড করা যাবে। আর ভিডিও টিউটোরিয়ালগুলো বেশিরভাগই হলো এমওভি ফরমেটের। অন্যান্য প্লেয়ার দিয়ে ফাইলগুলো চালানো গেলেও সাবলীলভাবে চালানোর জন্য অ্যাপলের ক্যুইক টাইম প্লেয়ার ডাউনলোড করে নিন http://www.apple.com/quicktime/download/ থেকে। আর যেকোনো ফরমেট সাপোর্টের জন্য ব্যবহার করতে পারেন কেএম প্লেয়ার, যা পাওয়া যাবে http://kmplayer.en.softonic.com/ download ঠিকানায়।

শেষ কথা

প্রযুক্তি শিক্ষাকে সুদৃঢ় করতে নিবিড় জ্ঞানচর্চার বিকল্প নেই। একমাত্র ইন্টারনেটই পারে প্রয়োজনীয় জ্ঞানের চাহিদা মেটাতে। আর তাই শিক্ষাকে পোক্ত করার জন্য ইন্টারনেটের সাথে সম্পর্কের দৃঢ়তা বাড়াতে হবে, সংশ্লিষ্ট ব্লগ, ফোরামে বিচরণ করতে হবে। জ্ঞান বিনিময়, সমস্যা সমাধানসহ বহুবিধ যোগাযোগের জন্য এগুলোর বিকল্প নেই।

কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : hexprince@gmil.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস