Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > ‘বাগেরহাট ২০০ ডিজিটাল’ স্লোগান নিয়ে শেষ হলো জ্ঞান উৎসব ২০০৯
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: মো: আবদুল ওয়াহেদ তমাল
মোট লেখা:৪১
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০০৯ - অক্টোবর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
মেলা
তথ্যসূত্র:
রির্পোট
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
‘বাগেরহাট ২০০ ডিজিটাল’ স্লোগান নিয়ে শেষ হলো জ্ঞান উৎসব ২০০৯


বেসরকারি সংগঠন আমাদের গ্রাম আয়োজনে এবং বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের সহযোগিতায় বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলীয় জেলা বাগেরহাট পালন করল তৃণমূল পর্যায়ের এ উৎসব। ‘বাগেরহাট হবে ডিজিটাল’ এই স্লোগানকে ভিত্তি করে গত ২-৩ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হলো জ্ঞান উৎসব ২০০৯। দুই দিনব্যাপী এ জ্ঞান উৎসবের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের পাশাপাশি অনুষ্ঠিত হয় সেমিনার, সমাবেশ, শোভাযাত্রা, আলোচনা অনুষ্ঠান ও স্থানীয় সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী পরিচালিত ঐতিবাহী সাংস্কৃতিক পট। এছাড়াও শিক্ষকদের নিয়ে গণিত কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন মুহাম্মদ জাফর ইকবাল।

২ তারিখ সকালে স্বাধীনতা চত্বরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান এবং তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক, বাগেরহাটের সংসদ সদস্য মীর শওকত আলী, হাবিবুন নাহার তালুকদার ও মোজাম্মেল হোসেন, অধ্যাপক মুহাম্মদ জাফর ইকবাল, অধ্যাপক লুৎফুজ্জামান, পৌরসভা ও উপজেলার চেয়ারম্যান, কাউন্সিলর, বাংলাদেশ কমপিউটার সমিতির সভাপতি মোস্তাফা জববার, টিআইএম নূরুল কবীর, আহমেদ হাসান জুয়েল, অনন্য রায়হানসহ বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষক ও স্থানীয় জনগণ।



অনুষ্ঠানের প্রথম সেমিনার অনুষ্ঠিত হয় মূল উৎসব মঞ্চে, যার মূল প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ‘স্বপ্নের বাগেরহাট ও ডিজিটাল প্রযুক্তি’। প্রতিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান। তার বক্তব্যে যে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো উঠে আসে তা হলো দক্ষিণাঞ্চলের এ জেলাগুলোতে উচ্চগতিসম্পন্ন ফাইবার অপটিকস সংযোগের মাধ্যমে বিশ্ব হাইওয়ের সাথে এ অঞ্চলকে সংযুক্ত করা।

আমাদের গ্রাম প্রকল্পের পরিচালক রেজা সেলিম জ্ঞান উৎসব ২০০৯-কে স্বার্থক করে তোলার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান এবং আশাবাদ করেন সামনের দিনগুলোতেও বাগেরহাটে এ ধরনের কর্মকান্ড অব্যাহত থাকবে। তিনি এবারের উৎসবে বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণকে ইতিবাচক দিক হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, এর মাধ্যমে বাগেরহাটে এমন এক নতুন প্রজন্ম গড়ে উঠছে যারা অল্প বয়স থেকেই তথ্যপ্রযুক্তির সংস্পর্শে বেড়ে উঠছে।

‘স্বপ্নের বাগেরহাট ও ডিজিটাল প্রযুক্তি’ সেমিনারের সঞ্চালক জাফর ইকবাল বলেন, আমাদের দেশে তথ্যপ্রযুক্তির বিকাশ সাধন করতে হলে বিদ্যুৎ ব্যবস্থাকে স্বাভাবিক করতে হবে।

বাংলাদেশ কমপিউটার সমিতির সভাপতি মোস্তাফা জববার এ অঞ্চলে উচ্চগতির ফাইবার অপটিক্সের পরিবর্তে বিকল্প সাবমেরিন ক্যাবল স্টেশন স্থাপনার প্রতি জোর দেয়ার আহবান জানান। দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল মংলা বন্দর দিয়ে যাতে প্রবেশ করে তার জন্য প্রতিমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেন।

দ্বিতীয় দিন ৩ অক্টোবর প্রেসক্লাব মিলানায়তনে অনুষ্ঠিত হয় ‘উইকিপিডিয়াতে বাগেরহাট’। উক্ত বিষয়ের ওপর বিস্তারিত আলোচনার পাশাপাশি কিভাবে উইকিপিডিয়াতে বিভিন্ন তথ্য সংযোজন করা যায় সে বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : aw_tomal@yahoo.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস