Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > থিমফরেস্ট সাইটের জন্য টেম্পলেট তৈরি
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: মো: জাকারিয়া চৌধুরী
মোট লেখা:৩৫
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১০ - জানুয়ারী
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
ফ্রিল্যান্স
তথ্যসূত্র:
ঘরে বসে ‍আয়
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
থিমফরেস্ট সাইটের জন্য টেম্পলেট তৈরি



কয়েক মাস আগে থিমফরেস্ট (www. themeforest.net) ওয়েবসাইট নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছিল। এরপর অনেক পাঠক ই-মেইলের মাধ্যমে জানতে চেয়েছেন, কিভাবে থিমফরেস্টে একটি ওয়েবসাইটের টেম্পলেট জমা দিতে হয়। একজন পাঠক জানিয়েছেন, তিনি সাইটটিতে একটি টেম্পলেট জমা দিয়েছিলেন, কিন্তু থিমফরেস্ট কর্তৃপক্ষ তা প্রত্যাখ্যান করে। তার টিমের দুইজন ডিজাইনার দিয়ে একটি টেম্পলেট তৈরি করেছিলেন, কিন্তু থিমফরেস্ট কর্তৃপক্ষ টেম্পলেটটি তাদের সাইটের উপযুক্ত নয় বলে ফিরিয়ে দেয়। ডিজাইনটিকে তারা আরেকটু উন্নত করে জমা দেবার পর সেটিও প্রত্যাখ্যান করে এবং ডিজাইনটিতে কী কী সমস্যা রয়েছে, তা জানায়। এইভাবে অন্তত ৪ বার ফিরিয়ে দেবার পর ৫ম বারের সময় ডিজাইনটি তারা গ্রহণ করে। ডিজাইনটি দেখতে www.tinyurl.com/business-place লিঙ্কে ভিজিট করতে পারেন। এ অভিজ্ঞতার আলোকেই এবারের লেখাটি সাজানো হয়েছে।

প্রথমে একটু জেনে নিই, ইন্টারনেটে এত ওয়েবসাইট থাকতে কেনো তিনি থিমফরেস্টে ওয়েবসাইটের টেম্পলেট বা ডিজাইন বিক্রি করবেন?

প্রথমত, থিমফরেস্ট খুব জনপ্রিয় একটি মার্কেটপ্লেস। এ সাইটে প্রায় দুই হাজার উন্নতমানের টেম্পলেট এবং প্রায় তিন লাখ ব্যবহারকারী রয়েছে। টেম্পলেটগুলোর দামও খুবই কম। মাত্র ৫ থেকে ১৫ ডলারে মধ্যে আকর্ষণীয় টেম্পলেট কিনতে পাওয়া যায়, যা একজন ক্রেতাকে সহজেই আকৃষ্ট করে। অন্যদিকে টেম্পলেট কেনার জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ‘টেম্পলেট মনস্টার্স’ (www. templatemonsters.com) এ টেম্পলেটগুলোর গড় দাম হচ্ছে ৬০ ডলার।

দ্বিতীয়ত, এখানে একজন ডিজাইনারকে তার টেম্পলেটের দামের ৪০% থেকে ৭০% অর্থ দেয়া হয়। প্রথম অবস্থায় ৪০% দেয়া হয় এবং বিক্রি বেড়ে যাওয়ার সাথে সাথে সর্বোচ্চ ৭০% দেয়া হয়, যা অন্যান্য টেম্পলেট বিক্রির সাইট থেকে অনেক বেশি।

তৃতীয়ত, এই সাইটে একটি টেম্পলেট অসংখ্যবার বিক্রি হয়। উদাহরণস্বরূপ, সাইটটিতে একটি টেম্পলেট রয়েছে, যা গত ছয় মাসে মোট ১১৩০ বার বিক্রি হয়েছে এবং তা প্রতিদিনই বিক্রি হচ্ছে। টেম্পলেটটির দাম ১৫ ডলার, যার অন্তত ৫০% যদি ডিজাইনার পেয়ে থাকেন, তাহলে এই একটি টেম্পলেট বিক্রি করে তিনি ৮৪৭৫ ডলারেরও বেশি আয় করেছেন। তবে ৫০০ বারের বেশি বিক্রি হয়েছে হাতেগোনা কয়েকটি টেম্পলেট। কিন্তু মানসম্মত যেকোনো টেম্পলেটের বিক্রি কয়েক মাসের মধ্যে সহজেই ১০০ ছাড়িয়ে যায়। অন্যদিকে ‘টেম্পলেট মনস্টার্স’-এ ১১ বারের বেশি কোনো টেম্পলেট বিক্রি হয়নি। এ থেকে থিমফরেস্ট সাইট থেকে আয়ের সম্ভাবনা কতটুকু, তা সহজেই নির্ধারণ করা যায়।

* সর্বশেষে, অন্যান্য আউটসোর্সিং মার্কেটপ্লেস থেকে থিমফরেস্টের পার্থক্য হচ্ছে, এখানে কাজ করার জন্য কোনো বিড করতে হয় না। অর্থাৎ ক্লায়েন্টের কাছ থেকে কাজ পাবার জন্য বসে থাকতে হবে না। ভালো ডিজাইন তৈরি করতে পারলে ক্রেতারাই আপনার টেম্পলেটটিকে খোঁজে বের করবে।

টেম্পলেট তৈরি করার পদ্ধতি

থিমফরেস্টে ৬ ধরনের বিভাগ রয়েছে : সাইট টেম্পলেট, ওয়ার্ডপ্রেস, জুমলা, পিএসডি টেম্পলেট, ই-মেইল টেম্পলেট এবং অন্যান্য। ডিজাইন তৈরি করার আগে যেসব বিষয়ের ওপর পরিপূর্ণ দক্ষ হতে হবে সেগুলো হলো- ফটোশপ. এক্সএইচটিএমএল, সিএসএস ও জাভাস্ক্রিপ্ট। এই চারটি বিষয়ে দক্ষ না হয়ে থিমফরেস্টের জন্য কোনো ডিজাইন বিক্রি করা সম্ভব নয়। তাই এগুলো যদি পরিপূর্ণভাবে না জানেন, তাহলে থিমফরেস্ট সাইটে অযথা সময় নষ্ট করার প্রয়োজন নেই। তবে যারা শুধু ফটোশপে দক্ষ তারা পিএসডি টেম্পলেট বিভাগের জন্য ডিজাইন তৈরি করতে পারেন। আমার পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী ‘সাইট টেম্পলেট’ বিভাগের জন্য টেম্পলেট তৈরি করাটা সবচেয়ে লাভজনক। কারণ, পিএসডি বিভাগের টেম্পলেটগুলো তুলনামূলকভাবে কম বিক্রি হয়। এই প্রতিবেদনে শুধু ‘সাইট টেম্পলেট’ বিভাগের ওপর আলোকপাত করা হয়েছে।

একটি সম্পূর্ণ টেম্পলেট তৈরি করতে তিনটি ধাপ অতিক্রম করতে হবে :

০১. ফটোশপে ডিজাইন তৈরি করা :

ফটোশপে দক্ষ হলে এই ধাপটি তুলনামূলকভাবে সহজ। প্রথমে ডিজাইনের জন্য একটি যুগোপযোগী নতুন আইডিয়া বের করতে হবে। থিমফরেস্ট বেশিরভাগ ক্ষেত্রে যে কারণ দেখিয়ে একটি ডিজাইন প্রত্যাখ্যান করে তা হলো- ‘This File Did Not Meet Our Criteria’। এক্ষেত্রে পরামর্শ হলো ডিজাইন তৈরির আগে অন্যদের তৈরি করা ডিজাইন বেশি বেশি পর্যবেক্ষণ করতে থাকুন। সম্ভব হলে কয়েকটি জনপ্রিয় ডিজাইনকে দেখে দেখে হুবহু তৈরি করার চেষ্টা করুন। এতে আপনার ডিজাইন সম্পর্কে ভালো ধারণা তৈরি হবে। ‘সাইট টেম্পলেট’ বিভাগের মধ্যে আরো অনেক উপবিভাগ রয়েছে- Creative, Corporate, Retail, Technology, Nonprofit, Entertainment, Personal, Speciality Pages, Admin Skins। এগুলোর মধ্যে Corporate বিভাগের ডিজাইনগুলো তুলনামূলকভাবে সহজ হয়ে থাকে। তাই প্রথমে এ বিভাগের জন্য ডিজাইন তৈরি করে দেখতে পারেন। ডিজাইন তৈরি করার সময় নিচে উল্লিখিত বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে :

* ফটোশপে টেম্পলেট তৈরি করার সময় লেয়ারগুলোকে বিভিন্ন গ্রুপে ভাগ করে রাখুন। লেয়ার এবং গ্রুপের অর্থপূর্ণ নাম দিন।

* একই ডিজাইনকে ভিন্ন ভিন্ন কয়েকটি রংয়ে তৈরি করুন। ফলে বেশিসংখ্যক গ্রাহককে আপনি আকৃষ্ট করতে পারবেন। আলাদা রংয়ের ডিজাইনকে আলাদা গ্রুপে ভাগ করে রাখতে পারেন অথবা আলাদা পিএসডি ফাইল তৈরি করতে পারেন।

* টেম্পলেটে যেসব ছবি, আইকন ও ফন্ট ব্যবহার করবেন, সেগুলো অন্য কোনো উৎস থেকে সংগ্রহ করে ব্যবহার করতে পারবেন। তবে সেগুলো বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহারের অনুমতি দেয়া আছে কি না, তা খেয়াল রাখবেন।

* টেম্পলেটের সাথে ছবি ব্যবহার করার জন্য থিমফরেস্টের Asset Library নামের নিজস্ব সংগ্রহ রয়েছে, যা টেম্পলেটের সাথে ব্যবহার করতে পারবেন।

* বাণিজ্যিকভাবে বিনামূল্যে ছবি সংগ্রহ করা যায় এরকম দুটি সাইট হচ্ছে- www. morgefile.com এবং www.sxc.hu।

* বিনামূল্যে ফন্ট সংগ্রহের জন্য www.dafont.com একটি দারুণ সাইট।

* বিভিন্ন ফন্টের মাত্রাধিক্য ব্যবহার যাতে না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে এবং ফন্টের আকারের ভারসাম্য রক্ষা করতে হবে। উদাহরণস্বরূপ, কোনো একটি প্যারাগ্রাফের শিরোনামে বড় ফন্ট ব্যবহার হবে, কিন্তু সাইডবারের শিরোনামে তুলনামূলকভাবে ছোট ফন্ট ব্যবহার হবে।

০২. এক্সএইচটিএমএল/সিএসএসে রূপান্তর করা :

এই ধাপটি নতুনদের জন্য তুলনামূলকভাবে একটু কঠিন। এই ধাপে ফটোশপে তৈরি করা পিএসডি ফাইলকে এইচটিএমএলে রূপান্তর করে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে। পদ্ধতিটিকে আয়ত্তে আনতে অনেক অনুশীলনের প্রয়োজন। এ নিয়ে ইন্টারনেটের বিভিন্ন ওয়েবসাইটে অসংখ্য টিউটরিয়াল পাওয়া যায়। এক্সএইচটিএমএলে রূপান্তর করার সময় যেসব বিষয় খেয়াল রাখতে হবে সেগুলো হলো :

* এইচটিএমএলের উন্নত সংস্করণ হচ্ছে এক্সএইচটিএমএল। ডিজাইনটিতে সঠিকভাবে এক্সএইচটিএমএল প্রয়োগ করা হয়েছে কি না, খেয়াল রাখবেন। এজন্য কাজ শেষে http://vaidator.w3.org সাইটে আপনার তৈরি করা এইচটিএমএল ফাইলকে আপলোড করে কোনো ভুল আছে কি না, তা পরীক্ষা করে দেখুন।

* আগেকার টেম্পলেটে এইচটিএমএলের Table ট্যাগ ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরি করা হতো। কিন্তু বর্তমানে DIV ট্যাগের সাথে CSS এর যথাযথ সংমিশ্রণ ঘটিয়ে ডিজাইন তৈরি করা হয়। এই পদ্ধতির মূল সুবিধা হচ্ছে শুধু CSS -ফাইলকে পরিবর্তন করে একটি ওয়েবসাইটের চেহারা বদলে ফেলা যায়। আপনিও এরকম টেবিলবিহীন ওয়েবসাইট তৈরি করুন।

* পাশাপাশি অবস্থিত এলিমেন্টকে আলাদা DIV-এ না রেখে List ট্যাগ (ul, li) ব্যবহার করে তৈরি করুন। এরকম এলিমেন্টের উদাহরণ হলো নেভিগেশন মেনু।

* প্যারাগ্রাফের লেখার লাইনগুলোর মধ্যে সমান উচ্চতা আছে কি না, তা খেয়াল করুন।

* ওয়েবসাইটে Whitespace বা ফাঁকা জায়গা ঠিকভাবে আছে কি না, তা খেয়াল রাখুন। উদাহরণস্বরূপ একটি প্যারাগ্রাফের চারদিকে সমান পরিমাণ খালি জায়গা থাকতে হবে। তা হতে পারে ১০ পিক্সেল বা ২০ পিক্সেল।

* CSS-এর ফাইল পুরোপুরি নিজে তৈরি না করে একটি ফ্রেমওয়ার্কের মাধ্যমে তৈরি করা ভালো। জনপ্রিয় দুটি ফ্রেমওয়ার্ক হচ্ছে ৯৬০ গ্রিড সিস্টেম (www.960.gs) এবং ব্লুপ্রিন্ট (www.blueprintcss.org)। এর যেকোনো একটি ব্যবহার করলে কাজ অনেক সহজ ও গোছানো হবে।

* জাভাস্ক্রিপ্টের বিভিন্ন অ্যানিমেশন, স্লাইডার, ইমেজ ভিউয়ার ব্যবহার করে ওয়েবসাইটকে আকর্ষণীয় করা যায়। এ জন্য jQuery নামের ফ্রেমওয়ার্ক ব্যবহার করতে পারেন। www.jQuery.com সাইট থেকে এর অসংখ্য Plugins বিনামূল্যে সংগ্রহ করতে পারবেন।

* কাজ শেষ করার পর ওয়েবসাইটটিকে সবগুলো ব্রাউজারে বিশেষ করে ফায়ারফক্স ২, ৩, ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ৬, ৭, ৮ এবং সাফারিতে পরীক্ষা করে দেখুন। চেষ্টা করুন যাতে সব ব্রাউজারে ডিজাইনটি একই রকম দেখায়। যত বেশি ব্রাউজারের জন্য ডিজাইনটি তৈরি করবেন বিক্রির পরিমাণ তত বেশি হবে।

০৩. টেম্পলেট আপলোড করা :

সম্পূর্ণ কাজ শেষে সাইটে লগইন করুন, Account পৃষ্ঠায় Upload-এর অপশনটি পাবেন। আপলোড করার আগে সাইটে দেয়া নির্দেশাবলী ভালো করে পড়ে নিন। সাইটে চার ধরনের ফাইল আপলোড করতে হবে :

* Final Download File : আপনার টেম্পলেটটি কেনার পর এই Zip ফাইলটিকেই একজন ক্রেতা ডাউনলোড করবে। তাই এর সাথে প্রয়োজনীয় সব ধরনের ফাইল মূল PSD, HTML দিয়ে তৈরি করা ওয়েবসাইট, সাহায্যকারী ডকুমেন্টেশন ফাইল, অতিরিক্ত ছবি ইত্যাদি যুক্ত করুন। ডকুমেন্টেশন ফাইলটি এমনভাবে তৈরি করুন, যাতে এটি পড়ে একজন ক্রেতা টেম্পলেটটিকে কিভাবে পরিবর্তন করতে হবে, কিভাবে ইনস্টল করতে হবে ইত্যাদি বিষয়ে ভালো ধারণা পায়।

* Screenshots Zip : টেম্পলেটটির সবগুলো পৃষ্ঠার স্ক্রিনশট এই Zip ফাইলের সাথে যুক্ত করুন। স্ক্রিনশটগুলো JPEG ফরমেটে হতে হবে। এটি ১২০০ পিক্সেলের বেশি চওড়া হতে পারবে না। ছবিগুলোর ফাইলের নাম-সংখ্যা দিয়ে শুরু হতে হবে, যেমন-01_homepage.jpg, 02_aboutus.jpg ইত্যাদি।

* Live Preview Template : এইচটিএমএলে তৈরি করা টেম্পলেটটি এই Zip ফাইলে দিতে হবে, যা লাইভ প্রিভিউ হিসেবে ব্যবহার হবে।

* JPEG Thumbnail : এই অংশে ৮০ x ৮০ পিক্সেল মাপের একটি JPEG ছবি দিতে হবে। এতে টেম্পলেটের একটি ছোট আকারের ছবি অথবা অন্য কোনো গ্রাফিক্স দিতে পারেন।

এই ফাইলগুলো আপলোডের পাশাপাশি আরও যেসব তথ্য দিতে হবে :

* Name : টেম্পলেটের জন্য একটি নাম নির্ধারণ করুন।

* Description : টেম্পলেটটির বর্ণনা, যাতে টেম্পলেটটি কেনার আগে ক্রেতা একটি ভালো ধারণা পাবে।

* Category : টেম্পলেটটির বিভাগ, ডিজাইনের স্টাইল, টেম্পলেটের সাথে কোন কোন ধরনের ফাইল যুক্ত করা হয়েছে, কোন কোন ব্রাউজারে এটি সমর্থন করবে ইত্যাদি তথ্য এই অংশে দিতে হবে।

* Message for Reviewer : এই অংশটি গুরুত্বপূর্ণ। টেম্পলেটটি জমা দেবার পর সাইটের কর্তৃপক্ষ বা একজন Reviewer আপনার কাজটিকে যাচাইবাছাই করবে। এই অংশের মাধ্যমে তাকে আপনার কোনো মন্তব্য জানাতে পারবেন। পাশাপাশি সাইটে কোনো ছবি, ফন্ট বা আইকন ব্যবহার করে থাকলে সেগুলো কোন উৎস থেকে সংগ্রহ করেছেন, তা এখানে জানাতে হবে। এমনকি নিজের তোলা কোনো ছবি ব্যবহার করলেও তাকে জানাতে হবে।

সর্বশেষে Upload বাটনে ক্লিক করে কাজটি জমা দিন। এটি গ্রহণ করা হয়েছে কি না, তা এক থেকে দুই দিনের মধ্যে ই-মেইল করে আপনাকে জানিয়ে দেয়া হবে। গ্রহণ করা হলে সেই Reviewer আপনার ডিজাইনটির একটি মূল্য নির্ধারণ করে দেবে। আর গ্রহণ না করলে তার কারণগুলো এবং কোন কোন ভুল সংশোধন করতে হবে তা জানিয়ে দেবে।

থিমফরেস্টে প্রথমবার একটি টেম্পলেটকে গ্রহণযোগ্য করে তুলতে অনেক অনুশীলন এবং ধৈর্যর প্রয়োজন রয়েছে। সম্ভব হলে থিমফরেস্ট থেকে জনপ্রিয় একটি টেম্পলেট কিনে তা ভালো করে পর্যবেক্ষণ করুন। এভাবে ভালোভাবে উপলব্ধি করতে পারবেন একটি উঁচুমানের টেম্পলেট কিভাবে তৈরি করতে হয়, কিভাবে ডকুমেন্টেশন সাজাতে হয়, টেম্পলেটটির মূল ফাইলের সাথে কী কী দিতে হয় ইত্যাদি আরো অনেক কিছু। মানিবুকার্সের অ্যাকাউন্টে টাকা থাকলে অনায়াসে থিমফরেস্ট সাইট থেকে একটি ডিজাইন কিনতে পারবেন। শুধু ডিজাইন কেনার জন্যও থিমফরেস্ট আদর্শ একটি সাইট।

আপনি যদি সব নিয়মকানুন মেনে একটি টেম্পলেট সফলভাবে জমা দিতে পারেন, এরপর দেখবেন পরবর্তী টেম্পলেটগুলো এরচেয়ে সহজে এবং কম সময়ে তৈরি করতে পারবেন। আপনার ডিজাইনটি যদি কর্তৃপক্ষ গ্রহণ না করে, তাহলে কখনও হতাশ হবেন না। তাদের মন্তব্যগুলো ভালোভাবে বুঝতে চেষ্টা করুন এবং সেই অনুযায়ী ডিজাইনটিকে উন্নত করতে থাকুন। আপনার কাজের মধ্যে যদি দক্ষতা থাকে, তাহলে এক সময় এটি অবশ্যই গ্রহণযোগ্য হবে।

কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : zakaria.cse@gmail.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
পাঠকের মন্তব্য
২৭ জানুয়ারী ২০১০, ৭:০১ AM
২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১০, ১২:০২ PM
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস