Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > ফাইল অ্যাটাচমেন্টের বিভিন্ন দিক
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: তাসনীম মাহ্‌মুদ
মোট লেখা:১২১
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১০ - মার্চ
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
ফাইল ম্যানেজমেন্ট
তথ্যসূত্র:
ব্যবহারকারীর পাতা
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
ফাইল অ্যাটাচমেন্টের বিভিন্ন দিক

বাড়ছে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা। বাড়ছে ই-মেইল ক্লায়েন্ট, মেইল চালাচালি। মেইল চালাচালির বড় সমস্যা ফাইল অ্যাটাচমেন্ট। এ সত্য উপলব্ধিতে এবারের ব্যবহারকারীর পাতায় উপস্থাপন করা হয়েছে ফাইল অ্যাটাচমেন্টসংশ্লিষ্ট বিষয়।

ফাইল, ফটো ইত্যাদি বন্ধু-বান্ধব ও অন্যদের সাথে শেয়ার করার অন্যতম সহজ ও জনপ্রিয় মাধ্যম হলো ই-মেইল, তবে কখনো কখনো ফাইল অ্যাটাচের ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীকে কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়। ই-মেইল অ্যাটাচমেন্টের সাথে নিরাপত্তাসংশ্লিষ্ট ঝুঁকি রয়েছে- এই বিষয়টি যেমন তুলে ধরা হয়েছে তেমনি উপস্থাপন করা হয়েছে উইন্ডোজ ফটো উইজার্ড ব্যবহার করে সহজে ফটো সেন্ড করার পদ্ধতি।

ফাইল সাইজসংশ্লিষ্ট সমস্যা

ই-মেইল অ্যাটাচমেন্টের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ও প্রধান সমস্যা হলো অ্যাটাচমেন্ট সাইজ। দীর্ঘ অ্যাটাচমেন্টসহ মেসেজ গ্রহণ ও প্রেরণ ধীর গতিতে হয়। বেশিরভাগ ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার (আইএসপি) ও মেইল প্রোভাইডার অ্যাটাচমেন্টের ক্ষেত্রে সাইজ সীমিত তথা লিমিট করে দেয়। যদি কোনো ই-মেইলের সাইজ এই সীমা অতিক্রম করে, তাহলে তা মেইল সার্ভারের মাধ্যমে যাবে না বাউন্স ব্যাক করবে অর্থাৎ আপনার কাছে ফিরে আসবে। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, হটমেইল (www.hotmail.com) একটি ই-মেইলের সাইজ ১০ মে.বা.-এর মধ্যে সীমিত করেছে।

লক্ষণীয়, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অ্যাটাচমেন্টের এ বাধ্যবাধকতা মানা হয় না। ডিজিটাল ক্যামেরা ও ক্যামেরাসম্বলিত মোবাইল ফোনের ব্যাপক উন্নয়নের ফলে পিসির চেয়ে বেশি ব্যবহার হচ্ছে ফটোসংশ্লিষ্ট কাজে। কোনো কোনো ব্যবহারকারী তাদের ফাইলকে ইমেজ এডিটিং টুল দিয়ে সঙ্কুচিত করেন, যাতে সেগুলো সহজে মেইল করা যায়।


টুল মেনুর ফোল্ডার অপশন

অ্যাটাচমেন্টসহ মেইল করার সহজতর দুটি বিকল্প পদ্ধতি রয়েছে। যদি আপনি চান, মেইল গ্রহীতা শুধু তাদের স্ক্রিনে ইমেজ ভিউ করতে পারবেন। উইন্ডোজ ফটো উইজার্ডের মাধ্যমে কম্প্রেশন টুল ব্যবহার করে পরে কোনো একসময় প্রিন্ট করে নিতে পারবেন অথবা একগুচ্ছ ছবিও সেন্ড করতে পারবেন।

ফাইল কম্প্রেশনের জন্য অনেক টুল থাকলেও উইন্ডোজের বিল্ট-ইন টুল বেশ সহায়ক ও সহজ। এই টুল ব্যবহার করে কাঙ্ক্ষিত ফাইল বা ফোল্ডারে ডান ক্লিক করে আবির্ভূত মেনু থেকে ‘Send to’-এ ক্লিক করুন। এরপর সিলেক্ট করতে হবে Compressed (Zipped) folder’ অপশন। এর ফলে উইন্ডোজ ফোল্ডারের একটি কম্প্রেস করা ভার্সন সেভ করবে। মূল ফোল্ডার বা ফাইলকে তার আসল জায়গায় আনটাচ অবস্থায় রাখা উচিত। লক্ষণীয়, ফাইল সঙ্কোচন নির্ভর করছে ডকুমেন্টের ধরনের ওপর। ইমেজ সেভ হয় JPEG ফরমেট হিসেবে, যা কম্প্রেস অবস্থায় থাকে। সুতরাং এই ফরমেটের ফাইল তেমনভাবে সঙ্কুচিত হয় না। এ নতুন ফাইলকে ই-মেইল মেসেজে অ্যাটাচ করা যেতে পারে স্বাভাবিক নিয়মে।

আউটলুক এক্সপ্রেসে নতুন ই-মেইল মেসেজ তৈরি করে টুলবারে Attach লেবেল করা বাটনে ক্লিক করে ইমেজ ফাইল কোথায় স্টোর হয়ে আছে, তা ব্রাউজ করে জেনে নিন। বিভিন্ন ধরনের ফাইল অ্যাটাচমেন্ট হিসেবে পাঠানোর নিয়ম একই। ওয়ার্ড ডকুমেন্ট বা পিডিএফ ফাইল যাই হোক না কেন, নতুন ই-মেইল মেসেজ ওপেন করে Attach-এ ক্লিক করুন। শর্টকাট হিসেবে ইমেজ ফাইলকে ই-মেইল মেসেজের বডিতে ড্র্যাগ অ্যান্ড ড্রপ করুন। ফলে এর নাম সাবজেক্ট লাইনের নিচে আবির্ভূত হবে, যাতে আপনি নিশ্চিত হতে পারেন যে ফাইলটি যথাযথভাবে অ্যাটাচ হয়েছে।

কিন্তু, অনেক সময় মেইল তথা অ্যাটাচমেন্ট গ্রহীতার পক্ষ থেকে অভিযোগ আসে যে, ফাইলটি করাপ্ট করেছে বা ফাইল পাঠযোগ্য নয়। এমন অবস্থার কারণ হলো- ফাইল ওপেন করার জন্য যথাযথ ভার্সনের অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করা হয়নি। এ ধরনের ঘটনা প্রায় ঘটে থাকে ওয়ার্ড প্রসেসিং ডকুমেন্ট বা অন্যান্য অফিস অ্যাপ্লিকেশনের ক্ষেত্রে। এমন সমস্যার সমাধান হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে ভিউয়িং টুল, যা ইন্টারনেট থেকে ফ্রি ডাউনলোড করা যাবে। এর ফলে সবাই আপনার মেইলের কনটেন্ট ভিউ করতে পারবে, তবে এডিট করতে পারবে না। উদাহরণস্বরূপ, এক্সেলের জন্য ভিউয়ার ডাউনলোড করা যাবে www.snipurl. com/4z885 সাইট থেকে এবং আর পাওয়ার পয়েন্টের জন্য www.snipurl. com/4z8as সাইট থেকে। ইচ্ছে করলে পিডিএফ হিসেবে ফাইল সেভ করতে পারেন, যা ফ্রি টুল অ্যাডোবি রিডার দিয়ে ওপেন করা যাবে।

ফাইল গ্রহণ করা

ভাইরাস প্রকৃত ই-মেইল অ্যাটাচমেন্ট হিসেবে ছদ্মবেশ ধারণ করে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের জন্য সমস্যা সৃষ্টি করে। সুগঠিত অপরাধীরা খুবই চতুরতার সাথে তাদের কৌশল অবলম্বন করে স্বতন্ত্র ই-মেইল মেসেজ ওপেন করার চেষ্টা চালায় এবং অ্যাটাচমেন্ট ফাইলের দিকে লক্ষ রাখে। আর এসব কিছুই সম্ভব হয় সুচতুরভাবে সাবজেক্ট লাইন এবং বডিতে ই-মেইল মেসেজ লেখে প্রলুব্ধ করার মাধ্যমে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে সাধারণ উদাহরণ হলো ‘এক্সক্লুসিভ’ সেলিব্রেটি নিউজ, ফটোগ্রাফ, পর্ণোগ্রাফি উপাদান, ফ্রি সফটওয়্যার আকর্ষণীয় স্ক্রিনসেভার অথবা পর্ণোগ্রাফিক উপাদানের লিঙ্ক ইত্যাদি। যদি অ্যাটাচমেন্টকে ওপেন করা হয়, তাহলে আপনি মারাত্মক ধরনের ঝুঁকির মধ্যে পড়বেন, যদি যথাযথ অ্যান্টিভাইরাস ইনস্টল করা না থাকেন।

অ্যাটাচমেন্ট ফাইলটি হতে পারে একটি এক্সিকিউটেবল ফাইল, যা আপনার কমপিউটারকে সফটওয়্যার দিয়ে আক্রান্ত করতে পারে যা আপনার ই-মেইল সংযোগ ব্যবহার করে স্প্যাম পাঠাতে পারে, বা আপনার কমপিউটারে রক্ষিত ব্যক্তিগত তথ্য আত্মসাত করতে পারে। শুধু তাই নয়, আপনার বিশ্বস্ত সাইট থেকেই ই-মেইল আসতে পারে, কিন্তু সেগুলো ভাইরাসমুক্ত নাও হতে পারে।

অ্যাটাচমেন্ট হিসেবে পাঠানো কয়েক ধরনের ফাইল রয়েছে যেগুলো সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। যদি এগুলো শনাক্ত করতে পারেন, তাহলে সিস্টেম অধিকতর নিরাপদ হবে। এজন্য প্রতিটি অ্যাটাচমেন্ট ফাইল নেমের শেষ কয়েকটি লেটার খেয়াল করুন। এর মাধ্যমে বুঝতে পারবেন এটি কোন ধরনের ফাইল। উইন্ডোজে ফাইল টাইপ ভিউ করার জন্য আপনাকে উইন্ডোজকে এমনভাবে সেট করতে হবে, যাতে ফাইলের পুরো নাম ভিউ করা যায় যা উইন্ডোজ বাইডিফল্ট লুকিয়ে রাখে। এটি পরিবর্তন করার জন্য যেকোনো ফোল্ডার ওপেন করুন এবং Tools মেনু থেকে Folder Option সিলেক্ট করুন। এরপর View-তে ক্লিক করে স্ক্রলডাউন করুন এবং ‘Hide extension for known file types’ চেকবক্সে আনটিক করুন অর্থাৎ টিক মার্ক অপসারণ করুন। উইন্ডোজ ভিসতায় এই অপশনটি পাবেন Organize মেনুতে, এরপর Folder and search সিলেক্ট করুন।

ঝুঁকিপূর্ণ অ্যাটাচমেন্ট শনাক্ত করা

ফাইল নেমশেষে .jpg থাকলে বুঝতে হবে ফটোসংশ্লিষ্ট ফাইল। .mp3 ফাইল হলো মিউজিক ট্র্যাকের ফাইল। পক্ষান্তরে .doc ও xls হলো অফিস ডকুমেন্ট ফাইল। এসব ফাইল যথাযথভাবে নিরাপদ। যদি এসব ফাইল টাইপের সাথে বাড়তি অক্ষর থাকে তাহলে সতর্কমূলক বেল বাজবে।

ফাইল এক্সটেশন হিসেবে যদি .bat, .exe, .pif বা .msi থাকে, তাহলে সেসব ফাইল ওপেন করা উচিত হবে না। এগুলো সবই প্রোগ্রাম ফাইল এবং এগুলোর সম্ভাব্য ক্ষমতা রয়েছে সিস্টেমের উল্লেখযোগ্য কিছু পরিবর্তন করার। যদি গৃহীত কোনো অ্যাটাচমেন্ট সম্পর্কে নিশ্চিত হতে না পারেন, তাহলে কোনো অবস্থাতেই এতে ডবল ক্লিক না করে ডেস্কটপে সেভ করুন এবং অ্যান্টিভাইরাস টুল দিয়ে এই ফাইলটি স্ক্যান করুন।

আমরা যেভাবে পরস্পরের সাথে ফাইল শেয়ার করি, তা প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছে। যেহেতু ই-মেইল একটি সর্বজন গৃহীত পদ্ধতি, যা দীর্ঘদিন ধরে জনপ্রিয় হয়ে আসছে। এর বিকল্প একটি পদ্ধতি জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করেছে। বর্তমানে ফাইল শেয়ারিং সাইট ও অনলাইন ফটো গ্যালারি কিছু কিছু ক্ষেত্রে ফাইল অ্যাটাচমেন্টের বিকল্প হিসেবে জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করেছে। কখনো কখনো ই-মেইলের মাধ্যমে ফাইল সেন্ডিংয়ের চেয়ে ফাইল আপলোডিং বেশি হয়।


কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : mahmood_sw@yahoo.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস