Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > পাওয়ারপয়েন্টে টেক্সট ইফেক্ট ও অ্যানিমেশন
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: সৈয়দ হাসান মাহমুদ
মোট লেখা:১৪৪
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১০ - আগস্ট
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
পাওয়ারপয়েন্ট
তথ্যসূত্র:
পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশন
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
পাওয়ারপয়েন্টে টেক্সট ইফেক্ট ও অ্যানিমেশন
গত সংখ্যায় কিভাবে ফ্রাইপ্যানে ডিম ভাজার দৃশ্য আঁকা যায় তার বর্ণনা দেয়া হয়েছিল। এ সংখ্যায় থাকছে দুটি আলাদা ধরনের পাওয়ারপয়েন্ট টিউটরিয়াল। যার একটিতে থাকছে টেক্সটে ব্লাস্টিং ইফেক্ট দেয়ার কৌশল এবং অপরটিতে পাওয়ারপয়েন্টে পাতা ঝরে পড়ার দৃশ্য বানানোর কৌশল।

টেক্সটে ব্লাস্টিং ইফেক্ট

এ কাজটি করার জন্য পাওয়ারপয়েন্টের ওয়ার্ডআর্ট অপশন ব্যবহার করে প্রথমে কিছু লিখতে হবে। এটি করার জন্য পাওয়ারপয়েন্ট ২০০৭ ওপেন করে insert ট্যাবে গিয়ে ওয়ার্ডআর্ট লেখাসহ ছবিতে ক্লিক করতে হবে। তারপর পছন্দমতো একটি ডিজাইন বাছাই করে কিছু লিখতে হবে। যেমন- টিউটরিয়ালে লেখা হয়েছে ‘Computer Jagat’ চিত্র-০১। লেখার টেক্সটের ফন্ট সাইজ ও কোন ফন্ট ব্যবহার করা হবে তা সিলেক্ট করার জন্য মেনুবারের Home ট্যাবে গিয়ে পছন্দমতো ফন্ট ও তার সাইজ বা আকার নির্ধারণ করতে হবে। এখানে ফন্ট হিসেবে Britannica Bold এবং ফন্টের আকার দেয়া হয়েছে ৬০। এখন লেখাটি সিলেক্ট করে রাইট বাটন ক্লিক করতে হবে এবং কপি করতে হবে। তবে মাউস দিয়ে কপি না করে কীবোর্ডের Ctrl কী চেপে ধরে C কী চেপেও অনুলিপি বা কপি করার কাজটি করা যায়। এখন কপি করা লেখাটি প্রথম লেখার নিচে পেস্ট বা প্রতিস্থাপন করুন। এটি করার জন্য একইভাবে মাউসের রাইট বাটন ক্লিক করে পেস্ট সিলেক্ট করতে হবে বা কীবোর্ডে করতে চাইলে Ctrl কী চেপে ধরে রেখে V কী চেপেও কাজটি করা যাবে।



এখন প্রথম লেখাটি সিলেক্ট করে মেনুবার থেকে Animation ট্যাবে গিয়ে Custom Animation অপশনে ক্লিক করলে মূল স্লাইডের ডান পাশে একটি উইন্ডো আসবে সেখান থেকে Add Effect>Emphasis>Grow/Shrink সিলেক্ট করতে হবে। এতে ইফেক্টটি লেখাটির সাথে সংযুক্ত হবে এবং ডানপাশের উইন্ডোতে প্রদর্শিত হবে। এখান থেকে ইচ্ছে করলে ইফেক্টটি এডিট করা যাবে। এডিট করার আগে ডিফল্ট সেটিংস চেক করলে দেখা যাবে Start: On Click, Size: 150%, Speed: Medium দেয়া আছে। এখানে শুধু স্পিড পরিবর্তন করে Medium থেকে Very Fast করে দিলে ভালো হয়। এখন ডান পাশের উইন্ডো থেকে ইফেক্টটির ওপর রাইট ক্লিক করে Effect Options-এ ক্লিক করতে হবে। তারপরে Auto-reverse বক্সে টিকচিহ্ন দিতে হবে।

এখন দ্বিতীয় লেখাটিতে ইফেক্ট দেয়ার পালা। এটি করার জন্য প্রথমেই লেখাটি সিলেক্ট করে আগের মতোই মেনুবার থেকে Animation ট্যাবে গিয়ে Custom Animation অপশনে ক্লিক করতে হবে। তারপর Add Effect>Emphasis>Grow/Shrink সিলেক্ট করতে হবে। তারপর Start: On Click-এর পরিবর্তে With Previous সিলেক্ট করতে হবে। Size: 200% এবং Speed: Fast সিলেক্ট করতে হবে। এখন আবার দ্বিতীয় লেখাটি সিলেক্ট করে Add Effect>Exit>Fade ইফেক্টটি সংযোগ করতে হবে। তারপর সামান্য এডিট করে Start: With Previous এবং Speed: Fast সিলেক্ট করে দিলেই কাজ হয়ে যাবে। এখন ডানদিকে নিচে Slide Show বাটনে ক্লিক করে বানানো এনিমেশনটি কেমন হয়েছে তা দেখা যাবে।



পাতা ঝরে পড়ার অ্যানিমেশন

এ কাজটি করার জন্য প্রথমে সাদা ব্যাকগ্রাউন্ড বা ট্রান্সপারেন্ট ব্যাকগ্রাউন্ডযুক্ত একটি পাতার ছবি জোগাড় করতে হবে। এটি করার জন্য গুগল ইমেজ সার্চের সহায়তা নেয়া যেতে পারে। এছাড়া মাইক্রোসফট ক্লিপআর্ট গ্যালারি থেকে খুঁজে পাতার ক্লিপআর্ট জোগাড় করেও কাজটি করা যাবে।

এখন পাতার ছবিটি যেখান থেকেই জোগাড় করা হোক না কেন, সেটিকে পাওয়ারপয়েন্ট স্লাইডের ওপরের দিকে বাম কোণায় এমনভাবে রাখতে হবে, যাতে করে পাতার ছবিটি স্লাইডের মূল আউটলাইনের বাইরে থাকে। তারপরে ছবি সিলেক্ট করে মেনুবারের Animations ট্যাবে ক্লিক করে Custom Animation অপশনটি সিলেক্ট করতে হবে। এরপর ডানপাশে আসা উইন্ডো থেকে Add Effect>Motion Paths>Draw Custom Path>Scribble সিলেক্ট করে চিত্র ০২-এর মতো করে পাতাটি কোন পথে নিচে পড়বে তা বানাতে হবে। তারপরে পাথটি সিলেক্ট করে ডান পাশের উইন্ডো থেকে Modify: Custom Path-এর নিচের অপশনগুলো পরিবর্তন করতে হবে। ডিফল্ট সেটিংসে যা দেয়া থাকবে, তা দিয়ে ইফেক্ট সুন্দর হবে না, তাই Start: After Previous, Path: Unlocked এবং Speed: Slow সিলেক্ট করতে হবে। এছাড়া ডানদিকে Modify: Custom Path বক্সের নিচে ইফেক্টের নামের ওপর মাউসের ডান বাটন ক্লিক করে Effect Options থেকে Smooth End বক্সে টিকচিহ্ন দিতে হবে। এখন আবার পাতাটি সিলেক্ট করে এতে স্পিন ইফেক্ট যোগ করতে হবে। তা করার জন্য Add Effect>Emphasis>Spin সিলেক্ট করলেই ইফেক্টটি সংযোজিত হবে। এখন Modify: Spin প্যানেল থেকে Start: With Previous, Amount 3600 Clockwise এবং Speed: 2.5 Seconds সিলেক্ট করতে হবে। এরপরে Ave<< পাতাটি সিলেক্ট করে এটিতে সুইভাল ইফেক্ট যোগ করলে পাতাটি পড়ার সময় ঘোরার সাথে সাথে একবার উল্টো হবে আবার সোজা হবে। এই ইফেক্ট যোগ করার জন্য আগের মতোই Add Effect>Entrance>Swivel সিলেক্ট করতে হবে। তারপরে ইফেক্টটি সিলেক্ট করে Modify: Swivel বক্সে Start: With Previous, Direction: Horizontal এবং Speed: 2.5 Seconds সিলেক্ট করে Slide Show বাটনে ক্লিক করে ইফেক্টটি কেমন হলো তা দেখা যাবে।

পাওয়ারপয়েন্ট সমস্যা ও সমাধান

সমস্যা-০১ :
আমি পাওয়ারপয়েন্ট ২০০৭ ব্যবহার করি। আমার কিছু গুরুত্বপূর্ণ স্লাইড রয়েছে, যা পাসওয়ার্ড দিয়ে রাখতে চাই যাতে অন্য কেউ তা দেখতে না পারে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে পাসওয়ার্ড দেয়ার অপশনটি কোথায় তা খুঁজে পাচ্ছি না। কিভাবে পাসওয়ার্ড দিতে হবে তা জানালে বেশ উপকৃত হবো? -তানজিনা রহমান, মোহাম্মদপুর, ঢাকা

সমাধান :
যারা পাওয়ারপয়েন্টের পুরনো ভার্সন ব্যবহার করার পর হঠাৎ করে পাওয়ারপয়েন্ট ২০০৭-এ প্রবেশ করেছেন, তাদের কিছু অপশন খুঁজে না পাওয়ার সমস্যাটি সাধারণ একটি ব্যাপার। পাওয়ারপয়েন্ট ২০০৭-এ কাজ করার সুবিধা বেশি তবে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ অপশন চোখের সামনে থাকে, যেমন- স্লাইডকে পাসওয়ার্ড প্রটেক্টেড করার ব্যাপারটি। পাসওয়ার্ড দেয়ার জন্য বামপাশে ওপরের দিকে থাকা অফিস বাটনের মেনু থেকে Save As নির্বাচন করতে হবে। Save As উইন্ডো আসলে Save বাটনের বামপাশে থাকা Tools থেকে General Options-এ যেতে হবে। এতে করে নতুন আরেকটি উইন্ডোতে স্লাইডটিকে পাসওয়ার্ড দিয়ে সংরক্ষণ করার জন্য দুটি অপশন পাবেন। প্রথমটি হচ্ছে Password to Open, এর সাহায্যে পাসওয়ার্ড দিয়ে সংরক্ষণ করা ফাইল কেউ খুলতে গেলে প্রথমেই পাসওয়ার্ড চাইবে। কিন্তু পরের অপশনটিতে অর্থাৎ Password to Modify-এ পাসওয়ার্ড দিয়ে তা সেভ করলে যেকেউ তা ওপেন করতে পারবে। তবে স্লাইডের কনটেন্টের কোনো পরিবর্তন করতে পারবে না। পাসওয়ার্ড দেয়ার সময় তা দুইবার ইনপুট করতে হবে। পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে আপনার পক্ষেই ফাইল খোলা অসম্ভব হয়ে দাঁড়াবে। তাই কী পাসওয়ার্ড দিলেন তা ভুলে যাবেন না যেনো।

সমস্যা-০২ :
পাওয়ারপয়েন্ট ৯৭ ফাইলকে কিভাবে পাওয়ারপয়েন্ট ২০০৭ ফাইলে কনভার্ট করবো? এতে কি ফাইলের কোনো পরিবর্তন বা সমস্যা দেখা দেবে? -শহীদুল ইসলাম, মহাখালী, ঢাকা

সমাধান :
পাওয়ারপয়েন্টের পুরনো যেকোনো ভার্সনের ফাইলকে খুব সহজেই পাওয়ারপয়েন্ট ২০০৭ ফাইলে পরিণত করা যায়। এ কাজ করার জন্য প্রথমে পুরনো ফাইলটি পাওয়ারপয়েন্ট ২০০৭-এর সাহায্যে ওপেন করুন। ওপেন করার সময় ফাইল আপডেট করার জন্য অনুমতি চাইলে তা Ok করতে হবে। ফাইল খোলার পর তা Save As অপশনের সাহায্যে সেভ করার সময় PowerPoint Presentation (.pptx) ফরমেট নির্বাচন করুন। এ কনভার্সনের ফলে ফাইলের তেমন কোনো পরিবর্তন হবে না, তবে কমপ্রেস হয়ে ফাইলের আকার কিছুটা কমে যাবে।

সমস্যা-০৩ :
পাওয়ারপয়েন্ট স্লাইডগুলো সরাসরি প্রিন্ট না করে তা ওয়ার্ডে নিতে চাই। প্রত্যেকটি স্লাইডের লেখা কপি করে ওয়ার্ডে পেস্ট করা বেশ কষ্টকর। সহজ কোনো উপায় আছে কি, যাতে একবারে সব স্লাইডের লেখা ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া যায়? এ কাজ করার জন্য কি আলাদা কোনো কনভার্টার সফটওয়্যার লাগবে? যদি লাগে তবে তার নামটা জানাবেন। -আবির, বনানী, ঢাকা

সমাধান :
পাওয়ারপয়েন্ট স্লাইডের লেখাগুলো ওয়ার্ডে নিয়ে যাবার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি হচ্ছে পাওয়ারপয়েন্ট ফাইলটি আরটিএফ (RTF) ফরমেটে সেভ করা। এ ফরমেটটির অর্থ হচ্ছে রিচ টেক্সট ফাইল। আরটিএফ ফাইলে সেভ করা ডকুমেন্ট ওয়ার্ডে ওপেন করার জন্য ওয়ার্ড চালু করে File>Open থেকে ফাইলটি নির্বাচন করুন বা আরটিএফ ফাইলটিতে রাইট বাটন ক্লিক করে Open With কমান্ড দিয়ে তা ওয়ার্ডে চালু করুন। আরটিএফ ফাইলটি ওয়ার্ডে ওপেন হবার পর তা .doc বা .docx ফরমেটে সেভ করে নিন।

পাওয়ারপয়েন্ট থেকে সরাসরি ওয়ার্ডে লেখা ট্রান্সফার করার পদ্ধতিও রয়েছে। এ কাজ করার জন্য পাওয়ারপয়েন্টের অফিস বাটন চাপার পর Publish সিলেক্ট করে Create Handouts in Microsoft Office Word-এ ক্লিক করতে হবে। এতে Send to Microsoft Office Word নামের একটি উইন্ডো আসবে। এখান থেকে পছন্দমতো পেজ লেআউট নির্বাচন করতে হবে। লেআউট অপশনগুলো হচ্ছে Notes Next to Slides, Blank Lines Next to Slides, Notes Below Slides, Bland Lines Below Slides and Outline Only। এর মধ্যে শেষেরটি বেশি কার্যকর টেক্সটভিত্তিক স্লাইড ট্রান্সফার করার ক্ষেত্রে। যারা পাওয়ারপয়েন্ট ২০১০ ব্যবহার করেন, তাদের অফিস বাটনে Publish-এর বদলে Share অপশন ব্যবহার করতে হবে। ছবিসহ স্লাইড ওয়ার্ডে ট্রান্সফার করার জন্য এ পদ্ধতির চেয়ে থার্ড পার্টি সফটওয়্যারের সাহায্য নিতে হবে। এজন্য গুগলে PowerPoint to Word Converter লিখে সার্চ দিলেই অনেক সফটওয়্যারের লিঙ্ক পেয়ে যাবেন।

কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : shmt_21@yahoo.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস