Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > ইনক্রিডিবল হাল্ক
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: সৈয়দ হাসান মাহমুদ
মোট লেখা:১৪৩
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১১ - মে
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
গেম
তথ্যসূত্র:
গেমের জগৎ
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
ইনক্রিডিবল হাল্ক

কমিকসের সুপার হিরোদের তালিকায় শীর্ষের দিকে স্থান দখল করে থাকা হিরোদের মাঝে বিরাটাকার মহাপরাক্রমশালী হাল্ক সবার পরিচিত একটি চরিত্র। হাল্কের স্রষ্টা হচ্ছে স্টান লি ও জ্যাক কিরবি। মারভেল কমিকসের জনপ্রিয় এই চরিত্রের উপরে বানানো হয়েছে অনেক টিভি সিরিজ, কার্টুন, মুভি এবং রয়েছে অনেক গল্পের বই ও কমিকস। হাল্কের টিভি সিরিজ ও ফিল্মের মধ্যে রয়েছে- The Incredible Hulk, The Incredible Hulk Returns, The Trial of the Incredible Hulk, The Death of the Incredible Hulk। অ্যানিমেটেড টিভি সিরিজের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- The Marvel Super Heroes, The Incredible Hulk, The Incredible Hulk।

দি ইনক্রেডিবল হাল্ক গেমটি হাল্কের দ্বিতীয় মুভির আদলে তৈরি করা হলেও কিছুটা পরিবর্তন রাখা হয়েছে গেমপ্লের কথা মাথায় রেখে। এর আগে হাল্ককে নিয়ে বানানো মুভিটি মুক্তি পেয়েছিলো ২০০৩ সালে। সেই সাথে গেমও রিলিজ পেয়েছিলো সেই বছরেই। গেমের নাম ছিলো শুধু হাল্ক। এরপর ২০০৫ সালে বের হয়েছিলো দি ইনক্রিডিবল হাল্ক- আল্টিমেট ডিস্ট্রাকশন। এই গেম দুটোই মুক্তি পেয়েছিলো Vivendi Universal Games-এর ব্যানারে। কিন্তু নতুন এই গেমটি পাবলিশ করেছে সেগা এবং গেম ডেভেলপ করছে Radical Entertainment। হাল্কের উপরে বানানো হয়েছে আরো কিছু গেমস, তার মধ্যে কয়েকটি হলো- Questprobe Featuring The Hulk, The Incredible Hulk, The Incredible Hulk: The Pantheon Saga।



২০০৩ সালে নির্মিত মুভি হাল্কের উপরে ভিত্তি করে বানানো হাল্ক গেমটির প্রধান চরিত্র ব্রুস ব্যানারকে বানানো হয়েছিলো এরিক বানার আদলে। কিন্তু আল্টিমেট ডিস্ট্রাকশন গেমটিতে মুভির কোনো নায়কের চরিত্র না নিয়ে কাল্পনিক চরিত্র দিয়ে বানানো হয়েছিলো। এ গেমটির চরিত্র বানানো হয়েছে হাল্কের মুভির নতুন নায়ক এডওয়ার্ড নরটনের চেহারার সাথে মিল রেখে।

গেমের প্রথমেই দক্ষিণ আমেরিকার এক স্থানে জেনারেল থান্ডারবোল্ট রস তার সাঙ্গোপাঙ্গদের পাঠাবে ব্রুস ব্যানারকে মেরে ফেলার জন্য। তার পাঠানো সেনাবাহিনী মিসাইল দিয়ে ব্রুসের উপরে পুরো ফ্যাক্টরি ধসিয়ে দেয়, কিন্তু হাল্কে পরিণত হয়ে যাওয়ার কারণে ব্রুস বেঁচে যায়। তারপর সেখান থেকে পালিয়ে হাল্ক নিউইয়র্ক সিটিতে এসে রিক জোনস নামের এক কিশোরকে সেনাবাহিনীর হাত থেকে উদ্ধার করে। এরপর হাল্ককে দেয়া হয় পুরো শহরে মুক্ত বিচরণের সুবিধা ও ইচ্ছেমতো মিশন বাছাইয়ের সুযোগ।

খালি হাতেই হাল্ক অপ্রতিরোধ্য হলেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে শক্তিশালী শত্রুদের বিরুদ্ধে এবং দ্রুত শত্রুদের মারতে চাইলে অস্ত্র ব্যবহার করতে হবে। মজার ব্যাপার হলো গেমে হাল্ক তার হাতের কাছের সবকিছুকেই অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করতে পারবে। লাইট পোস্ট, ম্যানহোলের ঢাকনা, টেলিফোন বুথ, রাস্তার গাড়ি, কংক্রিটের টুকরো, হাতের নাগালের শত্রুদের তুলে নিয়েও অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।

গেমে হাল্ককে নিয়ে মোকাবেলা করতে হবে অত্যাধুনিক অস্ত্রে সজিত সেনাবাহিনী, ট্যাঙ্ক, ইউ-ফোস, ইনক্লেভ, হাল্কের মতো শক্তিশালী অ্যাবোমিনেশন ও বাই-বিস্টের সাথে। সবুজ হাল্কের পাশাপাশি লাল হাল্ক (শুধু এক্সবক্স-এর ক্ষেত্রে), ওয়ার হাল্ক (প্লে স্টেশন ৩), অ্যাবোমিনেশন, বাই-বিস্ট, ক্লাসিক হাল্ক, ধূসর হাল্ক, আয়রনক্লাড, প্রফেসর হাল্ক, মিস্টো ও আয়রনম্যানের পোশাক পরিহিত হাল্ক (কনসোলে) নিয়ে খেলা যাবে। এগুলো বোনাস হিসেবে আনলক হবে। গেমের গ্রাফিক্স মোটামুটি মানসম্মত। গেমটি খেলার জন্য লাগবে ২ গিগাহার্টজের পেন্টিয়াম ৪, ৫১২ মেগাবাইট র্যাুম, ১২৮ ভিডিও মেমরি ও ৪ গিগাবাইট হার্ডডিস্ক স্পেস।


কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : shmt_21@yahoo.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস