Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > লিনআক্সে ইন্টারনেট কানেক্টিভিটি ও নেটওয়ার্ক কনফিগারেশন
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: প্রকৌশলী মর্তুজা আশীষ আহমেদ
মোট লেখা:২২
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১১ - জুন
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
লিনআক্স
তথ্যসূত্র:
লিনআক্স
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
লিনআক্সে ইন্টারনেট কানেক্টিভিটি ও নেটওয়ার্ক কনফিগারেশন

লিনআক্স ধারাবাহিকে নানা সময়ে বিভিন্ন ডিস্ট্রিবিউশনের ইনস্টলেশন প্রক্রিয়া দেখানো হয়েছে। আশা করা যায় ইনস্টলেশনজনিত কোনো সমস্যা কারও নেই। অনেকেই এখন লিনআক্স ইনস্টল কওে দৈনন্দিন কমপিউটিংয়ের চাহিদা পূরণ করছেন। শুধু তাই নয়, এখন অনেকেই লিনআক্স নেটওয়ার্কিংয়ে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। তাই লিনআক্স ধারাবাহিকের এই সংখ্যায় লিনআক্সে নেটওয়ার্কিং কীভাবে করা যায় সেই ব্যাপারে আলোচনা করা হয়েছে।



বর্তমান সময় ক্লাউড কমপিউটিংয়ের যুগ। আর ক্লাউড কমপিউটিং কমপিউটার নেটওয়ার্ক ছাড়া সম্ভব নয়। তাই লিনআক্সে কীভাবে নেটওয়ার্কিং করতে হয় তা জানা জরুরি। প্রথমেই শুরু করা যাক এমন একটি নেটওয়ার্কিং সিস্টেম দিয়ে, যেখানে একটি রাউটার, একটি সুইচ ও কয়েকটি ক্লায়েন্ট পিসি থাকবে এবং এদের মধ্যে ইন্টারনেট কানেকশন শেয়ার হবে। অনেক সময়ই এ ধরনের নেটওয়ার্কিং সিস্টেম আমাদের দরকার হয়ে থাকে। শুধুই অফিস নয়, অনেক বাসাবাড়িতেও এ ধরনের নেটওয়ার্কিংয়ের চাহিদা আছে।

প্রথমে দরকারি পোর্টগুলো সম্পর্কে একটু জেনে নেয়া যাক :

HTTP (web browsers) (port 6588)
HTTPS (secure web browsers) (port 6588)
SOCKS4 (TCP proxying) (port 1080)
SOCKS4a (TCP proxying w/ DNS lookups) (port 1080)
SOCKS5 (only partial support, no UDP) (port 1080)
NNTP (usenet newsgroups) (port 119)
POP3 (receiving email) (port 110)
SMTP (sending email) (port 25)
FTP (file transfers) (port 21)

ধরা যাক freebsd ভিত্তিক একটি রাউটার ব্যবহার করা হবে এবং নেটওয়ার্ক ম্যাপ হবে উল্লিখিত চিত্রের মতো। রাউটারের নেটওয়ার্কের কনফিগারেশন নিচে দেয়া হলো।

এই ডায়াগ্রাম অনুসারে ক্যাবলিং করার জন্য কয়েকটি বিষয় জানা দরকার। ক্যাট৫ বা ক্যাট৬ যেকোনো ধরনের ক্যাবল ব্যবহার করা হোক না কেন সব ক্যাবল একই ধরনের হবে না। পিসি থেকে পিসি এক ধরনের, পিসি থেকে সুইচ এক ধরনের বা রাউটার থেকে পিসিতে আলাদা আলাদা ক্যাবলের দরকার।

দেখা যাক ক্যাবলিং কীভাবে করা হয়।
পিসি থেকে পিসি ক্রশওভার
হাব থেকে হাব ক্রশওভার
সুইচ থেকে সুইচ ক্রশওভার
হাব থেকে সুইচ ক্রশওভার
হাব থেকে পিসি সরাসরি

যদিও ক্যাবলের ৮টি তার থাকে, তবে কাজে লাগে মাত্র ৪টি তার। স্ট্রেইট বা সরাসরি ক্যাবলের জন্য আরজে৪৫ কানেক্টরের দুই প্রান্ত একই ধরনের হবে। ক্রস ক্যাবলের জন্য তারের দুই প্রান্তের কনফিগারেশন হবে 1>8, 2>6 এবং 3>5।

WAN Network Card (WAN NIC)
IP: 80.x.y.z
Netmask: 255.255.255.248
Gateway: 80.x.y.w
DNS1: 80.a.b.c
DNS2: 80.a.b.d
LAN Network Card (LAN NIC)
IP: 192.168.0.1
Netmask: 255.255.255.0

এখানে ওয়াইড এরিয়া নেটওয়ার্কের কনফিগারেশন হবে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারের দেয়া কনফিগারেশনের ভিত্তিতে। ইচ্ছে করলে এখানে সাবনেটিংও করা যাবে।

নেটওয়ার্ক ম্যাপ অনুসারে আগেই ধরা হয়েছে, ল্যানের মধ্যে ৩টি ডেস্কটপ পিসি এবং ১টি ল্যাপটপ কনফিগার করা থাকবে। এদের কনফিগারেশন হবে :

IP: 192.168.0.2
Netmask: 255.255.255.0
Gateway: 192.168.0.1
DNS1: 80.a.b.c
DNS2: 80.a.b.d
IP: 192.168.0.3
Netmask: 255.255.255.0
Gateway: 192.168.0.1
DNS1: 80.a.b.c
DNS2: 80.a.b.d
IP: 192.168.0.4
Netmask: 255.255.255.0
Gateway: 192.168.0.1
DNS1: 80.a.b.c
DNS2: 80.a.b.d

এখানে ডিএনএসগুলো প্রয়োজনমতো বসিয়ে নিতে হবে। ঠিকভাবে কনফিগার করলে নেটওয়ার্ক থেকে ইন্টারনেট অ্যাকসেস পেতে সমস্যা হওয়ার কথা নয়। তবে ল্যানের ভেতরে কোনো সিস্টেম থেকে যদি ইন্টারনেট অ্যাকসেস পাওয়া না গেলে পিং করে বুঝতে হবে সমস্যা কোথায়। ডায়াগ্রাম অনুসারে নেটওয়ার্ক কনফিগার করা হলে ল্যানের যেই সিস্টেম থেকে সমস্যা তাতে লিনআক্সের কমান্ড লাইন থেকে লিখতে হবে ping 192.168.0.1

যদি রিপ্লাই পাওয়া গেলে বুঝতে হবে রাউটার থেকে ল্যানের লাইনে কোনো সমস্যা নেই। আর যদি রিপ্লাই না পাওয়া যায় তাহলে রাউটার থেকে ল্যানে সমস্যা আছে। রিপ্লাই না পাওয়া গেলে প্রথমে দেখতে হবে ঠিকমতো অ্যাড্রেস কনফিগার করা হয়েছে কি না। সেখানে সমস্যা না পাওয়া গেলে দেখতে হবে সুইচ থেকে রাউটারে ও ল্যান থেকে সুইচের ক্যাবলে কোনো সমস্যা আছে কি না। এখান থেকে সমস্যার সমাধান করতে হবে।

আর যদি রাউটার থেকে পিং করে রিপ্লাই আসে, Gebn ইন্টারনেট অ্যাকসেস পাওয়া না যায় তাহলে দেখতে হবে সরাসরি কোনো ওয়েবসাইটে পিং করে। যেমন- ping www.google.com।

অনেক সমস্যার কারণে এমন হতে পারে। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ডিএনএস সমস্যা। মনে রাখতে হবে, রাউটারের ডিএনএস ও ল্যানের ডিএনএস একই হতে হবে।

ডিএনএস কনফিগারেশনে সমস্যা না থাকলে ল্যানের ক্যাবল খুলে কমান্ড দিতে হবে ifconfig

কমান্ড দেওয়ার পর দেখা যাবে শুধুই wan নেটওয়ার্ক চালু থাকবে। যদি চালু না থাকে তাহলে বুঝতে হবে ভুল পোর্টে ইন্টারনেটের কানেকশন দেয়া হয়েছে। কানেকশন ঠিক করে লাগিয়ে দেওয়ার পর ল্যানের কানেকশন লাগাতে হবে।

এরপরও যদি ল্যান থেকে ইন্টারনেট পাওয়া না যায় তাহলে লিনআক্সের কমান্ড লাইনে গিয়ে কমান্ড দিতে হবে netstat–nr
কমান্ড দেয়ার পর # netstat–nr

Routing tables
Internet:
Destination Gateway Flags Refs Use Net
if Expire
default 80.x.y.w UGS 0 20386343 em0

এমন একটি মেসেজ পাওয়া যাবে।

যদি ডিফল্ট রাউটার হিসেবে রাউটার সেটআপ করা না থাকে তাহলে আগের মেসেজ থেকে আইপি অ্যাড্রেস নিয়ে কমান্ড দিতে হবে route add default 80.x.y.w

এই সেটিং স্থায়ী করার জন্য কমান্ড দিতে হবে

edit /etc/rc.conf
এখানে লিখতে হবে defaultrouter=”80.x.y.w”

তাহলে আশা করা যায় কনফিগারজনিত কোনো সমস্যা নেই।


কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : sajib@ournal.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস