Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > ভার্চুয়া টেনিস ৪
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: সৈয়দ হাসান মাহমুদ
মোট লেখা:১৪৪
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১১ - আগস্ট
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
গেম
তথ্যসূত্র:
গেমের জগৎ
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
ভার্চুয়া টেনিস ৪

যারা টেনিস খেলা দেখতে পছন্দ করেন তাদের একটু খেলে দেখার শখ জাগতে পারে, কিন্তু টেনিস কোর্ট ও টেনিস র্যা কেট জোগাড় করার ঝক্কি-ঝামেলা তো কম নয়। পিসির সামনে বসে যদি একই উত্তেজনায় ও মজা নিয়ে টেনিস খেলতে পারেন, তবে কেমন হবে ব্যাপারটা বলুন তো? স্পোর্টস গেম বানানোর রাজা সেগা সে সুবিধাই দিয়ে আসছে অনেক দিন ধরে। তাদের রিলিজ করা টেনিস সিরিজের চতুর্থ পর্ব ভার্চুয়া টেনিস ৪ এনে দেবে ঘরে বসে কোর্টে টেনিস খেলার সমপর্যায়ের স্বাদ। গেমটি জাপানে সেগা প্রফেশনাল টেনিস- পাওয়ার স্ম্যাশ ৪ নামে পরিচিত। গেমটি প্লেস্টেশন ৩ ও নতুন প্রজন্মের হোম গেমিং কনসোল প্লেস্টেশন ভাইটার জন্য ডেভেলপ করেছে সেগা-এএমথ্রি এবং পিসি, এক্সবক্স৩৬০ ও উইইয়ের জন্য ডেভেলপ করেছে সুমো ডিজিটাল। গেমের ডিজাইনার মাই কুমাগাই। নতুন এ গেমটি এ সিরিজের প্রথম গেম যা আর্কেড গেম হিসেবে মুক্ত করা হয়নি। গেমটি প্লেস্টেশন ৩-এর প্লেস্টেশন মুভ কন্ট্রোলার, এক্সবক্স ৩৬০ কনসোলের কাইনেট এবং উইই কনসোলের উইই মোশন প্লাস গেমিং ডিভাইস সাপোর্ট করে। যার ফলে অবিকল টেনিস প্লেয়ারের মতো র্যামকেট অর্থাৎ গেমিং কন্ট্রোলার নেড়ে পূর্ণ্যোদমে টেনিস খেলতে পারবেন। গেমটির স্টেরিওস্কোপিক থ্রিডি সাপোর্ট গেমের প্রাণবন্ততা ও স্বাদ আরো কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে।



গেমে বিখ্যাত টেনিস প্লেয়ারদের রাখা হয়েছে তাদের চেহারার অবিকল গ্রাফিক্স ক্যারেক্টার বানিয়ে। পুরুষ টেনিস তালিকার মধ্যে রয়েছেন- রাফায়েল নাদাল, রজার ফেদেরার, নোভাক জোকোভিচ, অ্যান্ডি মারে, জুয়ান মার্টিন দেল পোত্রো, অ্যান্ডি রডিক, ফার্নান্দো গনজালেজ, টমি হাস, ফিলিপ কোহস্ক্রেইবার, গিল মনফিলস ও আন্দেয়াস সেপ্পি। মহিলা তারকাদের মধ্যে রয়েছেন- ভেনাস উইলিয়ামস, আনা ইভানোভিচ, ক্যারোলিন ওজনিয়াকি, সভেতলানা কুজনেতসোভা, মারিয়া শারাপোভা, আন্না চাকভেতাদজে ও লরা রবসন। লিজেন্ডারি টেনিস তারকাদের মধ্যে রয়েছেন বরিস বেকার, স্টেফান এডবার্গ, প্যাট্রিক রাফটার ও জিম কুরিয়ার। বস হিসেবে রাখা হয়েছে দুটি চরিত্র। এগুলো হচ্ছে- কিং ও ডিউক। গেমে প্লেয়ার ৮টি চরিত্র বানাতে পারবে এবং তাদেরকে টেনিস ওয়ার্ল্ড র্যাডঙ্কিংয়ে শীর্ষের দিকে নিয়ে যেতে পারবে। কয়েকটি ধাপ পেরিয়ে ধীরে ধীরে নিজের বানানো প্লেয়ারদের ম্যাচ জিতিয়ে এবং অন্যান্য কাজ সম্পন্ন করে স্টার পয়েন্ট সংগ্রহ করে উচ্চ র্যােঙ্কে নিয়ে যেতে হবে। গেমে অনেক কোর্ট রাখা হয়েছে, যা বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে রয়েছে। কাদামাটির কোর্ট, ঘাসে ছাওয়া কোর্ট, শক্ত মাটির কোর্ট, ইনডোর- বেশ কয়েক ধরনের কোর্টের দেখা মিলবে এ গেমে। ওয়ার্ল্ড ট্যুর টুর্নামেন্ট ও প্রাকটিস ম্যাচের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি মিনি গেম রয়েছে, যা বেশ ভালো লাগবে সবার। ম্যাচ জিতে পাওয়া অর্থ দিয়ে কেনা যাবে পোশাক-আশাক, র্যালকট, জুয়েলারি, কেডস, ব্যান্ড ইত্যাদি।

গেমটি চালাতে পেন্টিয়াম ডি ২.৬৬ গিগাহার্টজের প্রসেসর, পিক্সেল শেডার ২.০ সাপোর্টেড ২৫৬ মেগাবাইট মেমরির গ্রাফিক্স কার্ড, ১ গিগাবাইট র্যােম ও ৩ গিগাবাইট হার্ডডিস্ক স্পেস লাগবে। গেমের গ্রাফিক্স বাড়িয়ে খেলার জন্য আরো ভালো মানের পিসি ব্যবহার করতে হবে। গেমের গ্রাফিক্স বেশ উন্নতমানের, যা সচরাচর স্পোর্টস গেমগুলোর মাঝে দেখা যায় না। প্লেয়ারে খেলার ধরন ও জেতা বা হারার পরের অঙ্গভঙ্গি বেশ প্রাণবন্ত। মোটকথা, গেমটি খেলে বেশ ভালোই লাগবে সবার ।

কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : shmt_21@yahoo.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস