Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > লিম্ব
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: কজ
মোট লেখা:১০৪১
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১১ - সেপ্টেম্বর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
গেম
তথ্যসূত্র:
গেমের জগৎ
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
লিম্ব

‘লিম্বো’ গেমের জগতের একটি মাস্টারপিস, এটি আমার কথা নয় দুনিয়ার সেরা সব গেম রিভিউয়ারদের কথা। অনেক ধরণের গেমই খেলেছেন কিন্তু এ গেমটি সবার থেকে আলাদা। সাদাকালো পটভূমিতে এতো চমৎকার একটি গেম ফূটিয়ে তোলা হয়েছে যার সামনে অন্য গেমের চোখ ধাঁধানো গ্রাফিক্সও ফিকে হয়ে যাবে। গেমটি ডেভেলপ করেছে ডেনমাকের্র প্লেডেড নামের প্রতিষ্ঠান। প্লেস্টেশন নেটওয়ার্ক ও উইন্ডোজ প্লাটফমের্র জন্য তা পাবলিশ করেছে প্লেডেড এবং এক্সবক্স লাইভ আর্কেডের জন্য পাবলিশ করেছে মাইক্রোসফট গেমস স্টুডিওস। গেমটি বেশিরভাগ গেম রিভিউ সাইট ও সমালোচকদের দৃষ্টিতে শতভাগ পয়েন্ট অর্জন করার গৌরব অর্জন করেছে। শুধু তাই নয় গেমটি গেম ইনফরমারের বেস্ট ডাউনলোডেবল, গেমস্পটের বেস্ট পাজল গেম, কোটাকুর বেস্ট ইন্ডি গেম, গেম-রিএ্যাক্টরের ডিজিটাল গেম অব দ্য ইয়ার, স্পাইক টিভির বেস্ট ইন্ডিপেন্ডেন্ট গেম, এক্স-প্লের বেস্ট ডাউনলোডেবল গেম, আইজিএনের বেস্ট হরর গেম হিসেবে পুরষ্কার পাওয়া ছাড়াও মোট ৯০টি পুরষ্কার লাভ করেছে। গেমটি একটি গা ছমছমে হরর গেমের পাশাপাশি বেশ ভালোমানের একটি পাজল গেমও বটে। ভিডিও গেমও যে একটা আর্ট হতে পারে তা এ গেমের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে। এটি এক্সবক্স লাইভ আর্কেডের তৃতীয় শীর্ষ স্থানীয় বেশি বিক্রয়কৃত গেমের তালিকায় রয়েছে, যা প্রায় ৭.৫ মিলিয়ন ডলার আয় করেছে।



গেমের প্রথমের দেখা যাবে আলো আধারিতে ঢাকা এক জঙ্গল। সেখানে হঠাৎ করে অন্ধকারের মাঝে জ্বলে উঠবে দুটো ছোটো বাতি। আসলে সেই বাতি দুটি একটি ছেলের চোখ। নাম না জানা সেই ছেলে ঘুম থেকে জেগে শুরু করবে হেটে চলা। রাস্তায় নানা রকমের ফাঁদ ও বিপদ এড়িয়ে তাকে এগিয়ে যেতে হবে এবং খুঁজে বের করতে হবে তার হারিয়ে যাওয়া বোনকে। গেমের ফাঁদ ও শত্রুপক্ষকে বেশ কঠিনভাবে তুলে ধরা হয়েছে। একটু অসাবধান হলেই খেল খতম। গেমের গ্রাফিক্স করা হয়েছে মনোক্রোমাটিক তাই এতে শুধু সাদা ও কালো রঙের টোন, লাইটিং, ফিল্ম গ্রেইন ইফেক্ট এবং খুব অল্প কিন্তু পিলে চমকে দেয়ার মতো সাউন্ড যোগ করা হয়েছে। এতে কোনো মিউজিক ট্র্যাক নেই। তাই নিশব্দতারমাঝে হঠাৎ করে কোনো ভয়ানক শব্দ বেজে উঠলে ঘাবড়ে যাবেন না যেনো। গেমে কিছু শত্রুকেও দেখা যাবে তারা হঠাত করেই উদয় হবে এবং ছোট ছেলেটিকে বিপদের মুখে ঠেকে দিবে এবং তাকে মারার চেষ্টা করবে। কৌশলে তাদের পরাস্ত করতে হবে এবং নিজের অভিযান চালিয়ে যেতে হবে। গেমের পাজলগুলো অন্যান্য পাজল গেমগুলোর চেয়ে বেশ উন্নত মানের এবং ব্যাতিক্রমধর্মী। আলো-আধারি ছায়ার মতো ক্যারেক্টারকে নিয়ে গেমটি খেলার যে স্বাদ তা একবার না খেলে দেখলে কখনোই বোঝা সম্ভব নয়। গেমে আস্তে আস্তে জঙ্গলের সীমা পেরিয়ে এসে পড়বে হবে শরুরে এলাকায়। গেমের কন্ট্রোলিং বেশ সহজ। অ্যারো কি দিয়ে সামনে পিছনে যাওয়া, আপ বাটন দিয়ে লাফ দেয়া ও কন্ট্রোল বাটন দিয়ে কোনো কিছু ধরার কাজ ছাড়া আর কিছুই নেই।

গেমটি টুডি ও থ্রিডি উভয় ভার্সনেই খেলা যায়। টুডি ভার্সনে খেলার সময় শিফট+৩+ডি চাপলে থ্রিডি মোডে গেম চালু হয়। গেমটি সাদাকালো হলেও গেমটি বেশ ভয়ানকভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। গেমটি নামকরা হরর গেমের চেয়ে কোনো অংশে কম নয়। তাই গেমটি প্রাপ্তবয়স্কদের খেলার জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। গেমটি আকারে মাত্র ১০০ মেগাবাইট এবং খেলার জন্য তেমন একটা হাই কনফিগারেশনের পিসির প্রয়োজন পড়ে না।
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস