Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > কমপিউটার জগতের খবর
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: কজ রিপোর্টার
মোট লেখা:৩৭৮
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১৩ - মার্চ
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
নিউজ
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগতের খবর
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
কমপিউটার জগতের খবর

কমপিউটার জগৎ রিপোর্ট \ প্রযুক্তি ক্ষেত্রে বহির্বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের ব্যবসায়ের প্রসারে বাংলাদেশকে বিশেষভাবে বিবেচনা করছে। বাংলাদেশে বিনিয়োগকারী এই প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে শীর্ষস্থানীয় অবস্থানে রয়েছে স্যামসাং। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশে পণ্য সংযোজন কারখানা স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে বিশ্বের ইলেকট্রনিক পণ্যের বাজারে প্রভাবশালী কোম্পানি স্যামসাং। সম্প্রতি ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের হায়দরাবাদ কনভেশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত ‘স্যামসাং ফোরাম ২০১৩’-তে এ তথ্য জানান প্রতিষ্ঠানটির বাংলাদেশ প্রধান চুন সু মুন। সরকারের সহায়তা পাওয়া গেলে অদূর ভবিষ্যতে স্থায়ীভাবে স্যামসাং পণ্য বাংলাদেশে উৎপাদনের জন্য কারখানা স্থাপনের বিষয়টিও সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করছে স্যামসাং।
গত ২৭ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া দুই দিনব্যাপী স্যামসাং ফোরামের সম্মেলনে মুন বলেন, নতুন মডেলের রঙিন টেলিভিশন সংযোজনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে তাদের সংযোজন শিল্পের যাত্রা শুরু হচ্ছে আগামী মে মাসেই। তিনি বলেন, সব কিছু ঠিক থাকলে যেকোনো সময় বাংলাদেশে স্যামসাং পণ্য উৎপাদনের কারখানা স্থাপনের উদ্দেশ্যে আমরা সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ শুরু করব। এ ক্ষেত্রে সরকারের সহযোগিতা প্রয়োজন।
সম্মেলনে এস-৯ নামে ৮৫ ইঞ্চি স্মার্ট রঙিন টেলিভিশনসহ উচ্চপ্রযুক্তির টাচ টেলিভিশন, স্মার্টফোন, টাচ কমপিউটারসহ অত্যাধুনিক ফ্রিজ ও ওয়াশিং মেশিন আনার তথ্য ঘোষণা দেন স্যামসাং দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী বিডি পার্ক। সম্মেলনের শেষ দিনে সার্কভুক্ত দেশগুলোর সাংবাদিকদের সামনে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, এ বছরের বিভিন্ন সময় এসব পণ্য বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যাবে। এর মধ্যে ৮৫ ইঞ্চি টেলিভিশনটি বাংলাদেশসহ এ অঞ্চলের দেশগুলোতে আগামী মে মাসের শেষের দিকে পাওয়া যাবে।
টেলিভিশন ছাড়াও বাংলাদেশের বাজারে স্যামসাং পণ্যের ব্যাপক চাহিদা থাকবে বলে প্রত্যাশা করছেন স্যামসাং বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা। স্যামসাং বাংলাদেশের ম্যানেজার জিয়াউদ্দিন চৌধুরী জানান, গ্রাহকদের চাহিদা ও গুণগত মানের জন্য বিশ্বের অন্যতম প্রধান ব্র্যান্ড স্যামসাং বাংলাদেশেও শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকদের চাহিদা বিবেচনা করে গবেষণা ও উন্নয়নে বিপুল অর্থ ব্যয় করছে। আমত্মর্জাতিক শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বাংলাদেশে আরএন্ডডি সেন্টার চালু করার প্রথম কাজটি করেছিল স্যামসাং। গ্রাহকদের তুলনামূলকভাবে আরও ভালো সেবা দিতে ও অত্যাধুনিক প্রযুক্তিপণ্য ব্যবহারের সুযোগ দিতে পণ্য সংযোজন কারখানা স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সহযোগিতা পেলে আরও ভালো উদ্যোগ নেবে স্যামসাং।
কমপিউটার জগৎ ডেস্ক \ বাণিজ্যবিষয়ক সাময়িকী ফরচুনের তৈরি বিশ্বের সবচেয়ে প্রশংসিত ৫০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় বরাবরের মতো শীর্ষে রয়েছে মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপল। এ নিয়ে টানা ষষ্ঠবারের মতো অ্যাপলের দখলে থাকল বিশ্বের সবচেয়ে প্রশংসিত প্রতিষ্ঠানের তালিকার শীর্ষস্থানটি। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে গুগল। এর পরের অবস্থানটি অনলাইনে কেনাবেচার প্রতিষ্ঠান অ্যামাজানের দখলে রয়েছে। মাইক্রোসফট ও সিসকো যথাক্রমে পঞ্চম ও দশম স্থান দখল করেছে। তালিকার প্রথম দশের সব প্রতিষ্ঠানই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। এর মধ্যে রয়েছে কোকা-কোলা, স্টারবাকস এবং ওয়ার্ল্ড ডিজনি।

প্রতিবছর বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠানের মধ্যে প্রশংসিত প্রতিষ্ঠানের জরিপ করে ফরচুন। ১০ বিলিয়ন ডলারের ওপর সম্পদ থাকা প্রায় ১৮০০ প্রতিষ্ঠানে এ জরিপ চালানো হয়। জরিপে ৩৮০০ প্রতিষ্ঠানের পরিচালক এবং ব্যবস্থাপকদের ভোট নেয়া হয়। তাদের ভোটে বিশ্বের সবচেয়ে প্রশংসিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচিত হয় অ্যাপল। কেনো অ্যাপল বরাবরই এই তালিকার শীর্ষে থাকে- এমন প্রশ্নের জবাবও দিয়েছে ফরচুন। তাদের মতে, আইফোন ফাইভের ম্যাপিং অ্যাপ্লিকেশনের ব্যর্থতা এবং সাম্প্রতিক সময়ে মার্কিন শেয়ারবাজারে অ্যাপলের শেয়ারের দাম কমতে থাকলেও ২০১২ সালের চতুর্থ প্রান্তিকেও সবচেয়ে বেশি আয় করেছে অ্যাপলই। ওই সময় প্রতিষ্ঠানটির আয় ছিল ১ হাজার ৩০০ কোটি ডলার। শত বাধা-বিপত্তিতেও অ্যাপল তাদের পণ্যের গুণাগুণ ঠিক রেখেছে। তারা কোনোভাবেই পণ্যের দাম কমাতে রাজি নয়। প্রতিযোগিতামূলক বাজারে তারা দাম কমানোর প্রতিযোগিতায় নামতে চায় না। ফলে আয়ের পরিমাণ না কমে বরং বাড়ছেই।

স্মার্টফোন আর ট্যাবলেট কমপিউটারের বাজারে গুগলের অ্যান্ড্রয়িড অপারেটিং সিস্টেমের সাফল্যের কারণেই তালিকার দ্বিতীয় স্থানটি দখল করে নিতে পেরেছে সার্চ জায়ান্ট গুগল। স্মার্টফোন আর ট্যাবলেটের জন্য তৈরি মোট অ্যাপ্লিকেশনের দৌড়েও অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরের চেয়ে এগিয়ে আছে গুগলের অ্যাপ স্টোর গুগল প্লে।
এ কথা বলাবাহুল্য যে, কমপিউটারের অপারেটিং সিস্টেমের ক্ষেত্রে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে জনপ্রিয় অপারেটিং সিস্টেম হচ্ছে উইন্ডোজ। আর মানুষের অপারেটিং সিস্টেমের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে দেখা দিয়েছে কমপিউটার। লেখক বাপ্পি আশরাফ লিখেছেন কমপিউটার অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজের ওপর একটি বই। বইটি উইন্ডোজের ভার্সন উইন্ডোজ ৭ ও উইন্ডোজ ৮ নিয়ে লেখা।

বাপ্পি আশরাফের অন্যান্য বইয়ের মতো এটিও সম্পূর্ণ প্রজেক্টভিত্তিক ও ব্যবহারিক। বইটি প্রজেক্টনির্ভর করে লেখা হয়েছে। মেনু এবং টুলবারের ওপর গতানুগতিক আলোচনা বর্জন করে। অনেকটা প্রজেক্ট করতে করতেই সব মেনু এবং টুলবার শিখে ফেলার মতো ব্যাপার। উইন্ডোজের পাশাপাশি ইন্টারনেট ও নেটওয়ার্কিংয়ের ব্যবহার, মডেম, স্ক্যানারের ব্যবহার, সিডি/ডিভিডি বার্ন করা। কমপিউটার রক্ষণাবেক্ষণ ও সমস্যা সমাধান ইত্যাদি বিষয় সংযুক্ত হয়েছে। স্কাইড্রাইভ ও ক্লাউড কমপিউটিংয়ের ওপর রয়েছে ব্যাপক আলোচনা। এতে কমপিউটারে এমএস অফিস ইনস্টল করা না থাকলেও কাজ করতে পারবেন। খুলতে পারবেন পৃথিবীর যেকোনো প্রামেত্মর যেকোনো কমপিউটার। আশা করি নবীন-প্রবীণ সব ধরনের ব্যবহারকারীর বইটি কাজে লাগবে।
বইটিতে মোট ৩৪টি অধ্যায় রয়েছে। বাংলাদেশ ও ভারতের সব বইয়ের দোকানে বইটি পাওয়া যাচ্ছে। ৪৫৬ পৃষ্ঠার বইটির দাম ৩৫০ টাকা। প্রকাশক : জ্ঞানকোষ প্রকাশনী, ৩৮/২-ক, বাংলাবাজার, ঢাকা। যোগাযোগ : bappibd001@yahoo.com
নতুন নতুন সিদ্ধান্তে এগিয়ে যাচ্ছে শীর্ষস্থানীয় ইন্টারনেটভিত্তিক সেবা প্রতিষ্ঠান ইয়াহু। ব্যর্থতা থেকে সরে আসতে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মারিসা মায়ার নিয়মিত বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছেন। তারই ধারাবাহিকতায় যথেষ্ট সফল না হওয়ায় ব্ল্যাকবেরির জন্য চালু রাখা স্মার্টফোন অ্যাপসহ সাতটি পণ্য এবং সেবা বন্ধ করে দিচ্ছে ইয়াহু। সম্প্রতি মারিসা মায়ার স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়, পণ্য তালিকার নিয়মিত হালনাগাদের অংশ হিসেবে বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে এগুলো।

দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই এ নিয়ে দ্বিতীয়বার একগুচ্ছ পণ্য বাতিল করলেন প্রধান নির্বাহী মারিসা মায়ার। গত বছরের জুলাইয়ে দায়িত্ব নেয়ার পরপরই গুগলের সাবেক এ নির্বাহী ইয়াহুর বেশ কয়েকটি প্রচলিত সেবা অলাভজনক বিবেচনায় বন্ধ করে দেন। ইয়াহুর এ পণ্য বন্ধ করে দেয়ার রীতিকে বলা হচ্ছে স্প্রিং ক্লিনিং। বিশ্বের শীর্ষ ইন্টারনেটভিত্তিক সেবা প্রতিষ্ঠান গুগলের এ ধরনের পণ্য বন্ধ করে দেয়ার রীতি প্রচলিত আছে।
গত মাসে অনুষ্ঠিত বিনিয়োগকারীদের সম্মেলনে পণ্য বন্ধ করে দেয়ার ব্যাপারে ইঙ্গিত দেন মারিসা। জানানো হয়, অলাভজনক ৬০ থেকে ৭৫টি মোবাইল অ্যাপ স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেয়া হতে পারে। তার বদলে রাখা হবে ১২ থেকে ১৫টি অ্যাপ। ইয়াহুর পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাদের বস্ন্যাকবেরি অ্যাপটি এখন থেকে আর ডাউনলোড করা যাবে না। ১ এপ্রিল থেকে এর সাথে সংযুক্ত সব সেবাও বন্ধ করে দেয়া হবে।

একই সময় বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে ইয়াহুর অ্যাভাটার। এ অ্যাপটির মাধ্যমে ইয়াহুর গ্রাহকরা ইনস্ট্যান্ট ম্যাসেঞ্জার এবং ফেসবুকে নিজেদের পছন্দসই কার্টুন বন্ধুবান্ধবের সামনে প্রকাশ করতে পারতেন। তবে যারা সেবাটি উপভোগ করতে চান, তাদের অ্যাভাটার ডাউনলোড করে নিয়ে পুনরায় আপলোড করতে হবে। বন্ধ করে দেয়া অন্যান্য অ্যাপের মধ্যে রয়েছে- ইয়াহু অ্যাপ সার্চ, ইয়াহু স্পোর্টস আইকিউ, ইয়াহু ক্লুজ, ইয়াহু মেসেজ বোর্ডস এবং ইয়াহু আপডেটস এপিআই। ইয়াহুর প্লাটফর্ম শাখার নির্বাহী সহসভাপতি জে রোসিটার বলেন, আমাদের বিবেচনার মূল বিষয় হচ্ছে, এগুলো কি দৈনন্দিন প্রয়োজন নাকি নিতান্তই বোঝা সব দিক বিবেচনা করে এসব সেবা বন্ধ করা হচ্ছে। বিপরীতে গ্রাহকদের আরও ভালো সেবা দেয়ার প্রত্যয় নিয়ে কাজ করছে ইয়াহু
অ্যাপলের শিক্ষামূলক অ্যাপ্লিকেশন ‘আইটিউনস ইউ’ ডাইনলোডে রেকর্ড গড়েছে। অ্যাপল জানিয়েছে, এ পর্যন্ত ১০০ কোটিরও বেশিবার ডাউনলোড হয়েছে অ্যাপ্লিকেশনটি। এর মধ্যে শুধু যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে থেকেই ৬০ শতাংশেরও বেশি ডাউনলোড হয়েছে। গত আড়াই বছরে অ্যাপ্লিকেশনটির ডাউনলোড তিনগুণ বেড়েছে। ২০১০ সালে এই ডাউনলোডের পরিমাণ ছিল ৩ লাখ বার। ২০০৭ সালে অ্যাপসস্টোরে ছাড়া হয় আইটিউনস ইউ।
অ্যাপলের ইন্টারনেট সফটওয়্যার অ্যান্ড সার্ভিসেসের ঊর্ধ্বতন ভাইস প্রেসিডেন্ট এডি কিউ জানান, আইটিউনস ইউ অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফায়েড শিক্ষকদের শিক্ষামূলক বিভিন্ন কনটেন্ট আপলোড ও তা ছড়িয়ে দেয়ার সুযোগ দেয়। এসব কনটেন্টের মধ্যে রয়েছে ভিডিও, অডিও এবং পিডিএফ ফাইল। কনটেন্টগুলো নির্দিষ্ট শিক্ষার্থী কিংবা যে কারো কাছে বিনামূল্যে সরবরাহ করা যায়। শিক্ষকরা তাদের ডেস্কটপ বা আইপ্যাডের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষণ কোর্স চালু করতে পারেন। অ্যাপসটি ডাউনলোড ও সাবস্কাইবের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা কনটেন্টগুলো ডাউনলোড করতে পারেন। এছাড়া কোনো কনটেন্ট আপলোড হলে নোটিফিকেশন পান ব্যবহারকারীরা। সব মিলিয়ে প্রায় ১ হাজার ২০০ ইউনিভার্সিটি এই অ্যাপ্লিকেশটির সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত রয়েছেন। আইটিউনস ইউর ২ হাজার ৫০০-এর বেশি কোর্সের সাথে এখন প্রায় ২ লাখ ৫০ হাজার শিক্ষার্থী যুক্ত আছেন। এর মধ্যে ডিউক, ইয়েল, ক্যামব্রিজ, এমআইটি এবং অক্সফোর্ডের মতো শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখেরও বেশি। এ পর্যন্ত শুধু স্টানফোর্ড ও ওপেন ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরাই প্রায় ৬ কোটির বেশি তথ্য ডাউনলোড করেছেন বলে জানায় অ্যাপল কর্তৃপক্ষ। বিশ্বের খ্যাতনামা গ্রন্থাগার, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও জাদুঘরের শিক্ষামূলক বিভিন্ন তথ্য বিনামূল্যে সরবরাহ করে থাকে আইটিউনস ইউ। বর্তমানে অ্যাপিস্নকেশনটি ৩০টি দেশে ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে
বাংলা ভাষায় ইন্টারনেটকে বাংলাদেশের সবার কাছে আরও উপযোগী করার উদ্দেশ্য নিয়ে চালু হয়েছে নতুন সামাজিক যোগাযোগ সাইট বেশতো (www.beshto.com) । ২৮ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস তথা বেসিস কার্যালয়ে আনুষ্ঠানকিভাবে ওয়েবসাইটটির উদ্বোধন করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ইন্টারনেটভিত্তিক কোম্পানি বেশতোতে বাংলাদেশিদের কথা মাথায় রেখে মাইক্রো বস্নগিং এবং বেশতো প্রশ্ন সেবা রাখা হয়েছে। প্রথম সেবা ‘বেশতো লাইভ’ দিচ্ছে মাইক্রো বস্নগিংয়ের সুবিধা, যার মাধ্যমে বাংলাদেশিরা একে অপরের সাথে তাদের মতামত এবং বিভিন্ন তথ্য বিনিময় করেন। ফেসবুকে যেখানে শুধু বন্ধুদের মধ্যে কথা ও ছবি বিনিময় করা যায়, সেখানে বেশতোতে তা করা যাবে সবার সাথে। দ্বিতীয়ত, ‘বেশতো প্রশ্ন’ এমন একটি প্রয়োজনীয় সেবা, যেখানে ব্যবহারকারী দরকারি প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে পারেন অথবা নতুন প্রশ্ন জিজ্ঞেস করতে পারেন। প্রশ্নগুলো সাজানো আছে বিভিন্ন বিষয় অনুসারে; যেমন- ক্যারিয়ার, শিক্ষা, রাজনীতি, ভ্রমণ, মিউজিক, খাওয়া-দাওয়া ইত্যাদি। যেকোনো বেশতো ব্যবহারকারী এসব প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেন। ভালো প্রশ্ন বা উত্তরকে সবাই ভোট দিতে পারেন। সেই সাথে রয়েছে পয়েন্টের ব্যবস্থা, যা দিয়ে ব্যবহারকারী ‘গুরু’ বা ‘জ্ঞানী’ টাইটেল পেতে পারেন।

বেশতো সম্পর্কে বিডিজবস প্রতিষ্ঠাতা এবং বেশতোর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ফাহিম মাশরুর বলেন, আমরা বেশতো শুরু করেছিলাম একটি বিশ্বাস নিয়ে। আমরা জানতাম বেশতো তখনই মানুষের কাছে পৌঁছবে, যখন বেশতোতে থাকবে আমাদের কাছের মানুষ। চীন, ভিয়েতনাম, কোরিয়া এবং রাশিয়া- সবারই নিজেদের শক্তিশালী ইন্টারনেট সার্ভিস আছে, যা তাদের দেশের মানুষের চাহিদা, তাদের নিজস্ব ভাষায় সফলতার সাথেই পূরণ করে আসছে। বাংলাদেশে বেশতোর উদ্দেশ্য ঠিক তাই।

বেশতোর একজন টিম লিডার আবুল হাসানাত মুস্তফা বলেন, আমাদের বিশ্বাস বাংলাদেশের সবাইকে একত্র করতে বেশতো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। একজন বেশতো ব্যবহারকারী যদি কোনো প্রশ্নের উত্তর জানতে চান অথবা পছন্দের কোনো উত্তর সবাইকে দেখাতে চান, তাহলে তিনি মাইক্রো ব্লগ ব্যবহার করতে পারেন বলে জানান আরেক টিম লিডার মেহেদি হাসান। বর্তমান সেবাগুলো আরও ভালো করার সাথে সাথে ভবিষ্যতে আরও মজার ও প্রয়োজনীয় সেবা নিয়ে আসা হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। উল্লেখ্য, ২০১২ সালে একদল উদ্যোক্তা এবং কিছু তরুণের উদ্যোগে তৈরি হয় ‘বেশতো’।

বাজারে ফুজিৎসু ব্র্যান্ডের নতুন লাইফবুক

জাপানের তৈরি ফুজিৎসু ব্র্যান্ডের সবচেয়ে পাতলা এবং হালকা ওজনের ইন্টেল কোরআই সেভেন প্রসেসর সংবলিত নতুন লাইফবুক বাজারে এনেছে কমপিউটার সোর্স। সাড়ে আট ঘণ্টা ব্যাটারি ব্যাকআপ সুবিধার ফুজিৎসু এসএইচ৭৭১ মডেলের লাইফবুকটিতে রয়েছে ২.৮ গিগাহার্টজ ইন্টেল টার্বোবুস্ট ও হাইপার থ্রেট প্রযুক্তির প্রসেসর, ৮ গিগাবাইট ডিডিআরথ্রি র্যােম, ৬৪০ গিগাবাইট হার্ডড্রাইভ, ইন্টেল এইচডি ৩০০০ গ্রাফিক্স, ৩.০ভি ব্লু-টুথ, ২ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা ও গিগাবিট ল্যানকার্ড। অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে জেনুইন উইন্ডোজ ৭ প্রফেশনাল। ১৩.৩ ইঞ্চি পর্দার এই লাইফবুকটিতে ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সর, বায়োস লক, অ্যান্টি থেফট লক সুবিধা রয়েছে। এক বছরের বিক্রয়োত্তর সেবাসহ লাইফবুকটির দাম ২ লাখ ৫ হাজার টাকা
হ্যাকারদের জন্য গুগলের প্রতিযোগিতা
বিশ্বের সবচেয়ে বড় অনলাইন সার্চ সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানটি গুগল তাদের ক্রোম ব্রাউজার, অপারেটিং সিস্টেমের নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য হ্যাকারদের প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। কানাডার ভ্যাঙ্কুভারে আগামী ৭ মার্চ ক্যানসেকওয়েস্টে সিকিউরিটি সম্মেলনে তৃতীয়বারের মতো পনিয়াম হ্যাকিং প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। নিরাপত্তা ব্যবস্থার ত্রুটি বের করা ছাড়াও ওয়েবসাইট বা ওয়েবপেজকে দ্রুতগতির করার প্রোগ্রাম উন্নয়ন করেও পুরস্কার জেতার ব্যবস্থা করেছে গুগল। গুগলের ক্রোম অপারেটিং সিস্টেমের ত্রুটি বের করতে মোট ৩১ লাখ ৪১ হাজার ৫৯০ ডলার অর্থ পুরস্কার ঘোষণা করেছে গুগল। গণিতের পাই সংখ্যার আদলে এ পুরস্কার মূল্য ঘোষণা করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

এ প্রতিযোগিতা সম্পর্কে গুগল জানিয়েছে, এইচপি ও স্যামসাং এবং এইচপির ক্রোমবুকে ক্রোম অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে। এর ব্রাউজার অথবা সিস্টেমের প্রতিটি ত্রুটি খুঁজে বের করার জন্যই রয়েছে ১ লাখ ৫০ হাজার ডলার পুরস্কার। গুগলের দাবি, ক্রোম অপারেটিং সিস্টেম সবচেয়ে নিরাপদ। কিন্তু নিরাপত্তার বিষয়টি একটি চলমান বিষয়। তাই প্রতিনিয়তই আপডেটের প্রয়োজন রয়েছে। তাই এর নিরাপত্তা ত্রুটি ধরার জন্যই সবচেয়ে বেশি পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। একই সাথে ক্রোম সফটওয়্যার ব্যবহারকারীদের কার্যক্রম দ্রুত এবং গতিশীল করতে উন্নয়নকারীদের জন্যও পুরস্কার দেয়া হবে। এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানা যাবে নিচের লিঙ্ক থেকে : http://blog.chromium.org/2012/02/pwnium-rewards-for-exploits.html

গেস্নাবাল ব্র্যান্ড এখন রাজশাহীতে

দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রাজশাহী জেলায় যাত্রা শুরু করেছে তথ্যপ্রযুক্তিপণ্য আমদানিকারক ও সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান গ্লবাল ব্র্যান্ড। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে স্থানীয় বোয়ালিয়া থানার গৌরাঙ্গা গ্রেটার সড়কের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের ১৭ নম্বর বাড়ির দ্বিতীয় তলায় নতুন এ প্রদর্শনী কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল আনোয়ার, পরিচালক জসিম উদ্দিন খন্দকার, চ্যানেল বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার সমীর কুমার দাশ, রাজশাহী কমপিউটার সমিতির কর্মকর্তা ও স্থানীয় তথ্যপ্রযুক্তি সংশ্লিষ্টরা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এখন থেকে রাজশাহীর এই প্রদর্শনী কেন্দ্রে গেস্নাবাল ব্র্যান্ডের আমদানি করা আধুনিক প্রযুক্তির সব পণ্যই পাওয়া যাবে। যোগাযোগ : ০৭২১-৭৭১২২৮, ০১৯৭৭৪৭৬৪৫৫

গিগাবাইট ব্র্যান্ডের নতুন গ্রাফিক্স কার্ড বাজারে

স্মার্ট টেকনোলজিস (বিডি) লিমিটেড বাজারে এনেছে গিগাবাইট জিফোর্স জিভি-এন৬৮০ওসি মডেলের জিটিএক্স ৬৮০ চিপসেটের ৪ গিগাবাইট গ্রাফিক্স কার্ড। এর মেমরি ক্লক ৬০০৮ মেগাহার্টজ, মেমরি বাস ২৫৬ বিট, ডিজিটাল রেজ্যুলেশন ২৫৬০ বাই ১৬০০, এনালগ রেজ্যুলেশন ২০৪৮ বাই ১৫৩৬। জিডিডিআর ৫ প্লাটফর্মের উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন গ্রাফিক্স কার্ডটি ব্যবহার করতে ৫৫০ ওয়াট বিদ্যুৎ প্রয়োজন হয়। যোগাযোগ : ০১৭৩০৩১৭৭৬৮

বাজারে এলজির ২২ ইঞ্চি নতুন এলইডি মনিটর

গেস্নাবাল ব্র্যান্ড (প্রা:) লিমিটেড বাজারে এনেছে এলজি ব্র্যান্ডের ই২২৪২টি মডেলের নতুন এলইডি মনিটর। ২২ ইঞ্চি এলইডি প্যানেলের এই মনিটরটি হ্যালোজেন ও মার্কারিমুক্ত, তাই পরিবেশবান্ধব এবং অধিক বিদ্যুৎসাশ্রয়ী। এফ-ইঞ্জিন প্রযুক্তির এই মনিটরটি সম্পূর্ণ এইচডি এবং এইচডিসিপি সমর্থিত, যার রেজ্যুলেশন ১৯২০ বাই ১০৮০ পিক্সেল, ডিজিটাল ফাইন কন্ট্রাস্ট রেশিও ৫,০০০,০০০:১, রেসপন্স টাইম ৫ মিলি সেকেন্ড, ভিউয়িং অ্যাঙ্গেল ১৭০ ডিগ্রি/১৬০ ডিগ্রি। এছাড়া পিসি ইনপুট/আউটপুট হিসেবে রয়েছে ডি-সাব, ডিভিআই-ডি পোর্ট প্রভৃতি। দাম ১৩ হাজার ৫০০ টাকা। যোগাযোগ : ০১৭১৩২৫৭৯২২
বাজারে স্যামসাং ব্র্যান্ডের নতুন আল্ট্রাবুক
স্মার্ট টেকনোলজিস (বিডি) লিমিটেড বাজারে এনেছে স্যামসাং ব্র্যান্ডের এনপি৯০০এক্স৩সি-এ০১বিডি মডেলের আকর্ষণীয় আল্ট্রাবুক। এতে রয়েছে উইন্ডোজ ৮ প্রো, ইন্টেল কোরআই ৭ প্রসেসর, ৪ গিগাবাইট ডিডিআর৩ র্যা ম, ১৩.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লে এবং ১২৮ গিগাবাইট সলিড স্টেট ড্রাইভ। আল্ট্রাবুকটির ওজন মাত্র ১.১৬ কিলোগ্রাম। যোগাযোগ : ০১৭৩০৩১৭৭৭৫

আসুসের এএমডি প্রসেসরের এক্স৫৫ইউ ল্যাপটপ

আসুসের পরিবেশক গেস্নাবাল ব্র্যান্ড (প্রা:) লিমিটেড বাজারে নিয়ে এসেছে এক্স৫৫ইউ মডেলের নতুন ল্যাপটপ। এতে রয়েছে আর্গনমিক কিবোর্ড এবং আইসকুল প্রযুক্তি, তাই দীর্ঘক্ষণ টাইপ করলেও ল্যাপটপ ঠা-া থাকে ও হাত ব্যথা হবে না। ১.৭ গিগাহার্টজ গতির এএমডি ফিউশন প্রসেসরের এই ল্যাপটপটিতে রয়েছে ২ গিগাবাইট ডিডিআর ৩ র্যা ম, ৫০০ গিগাবাইট হার্ডড্রাইভ, ১৫.৬ ইঞ্চির ডিসপ্লে, ডিভিডি রাইটার, বিল্টইন গ্রাফিক্স, এইচডি অডিও, ওয়েবক্যাম, মেমরি কার্ড রিডার, বিল্টইন স্পিকার ও মাইক্রোফোন। ইন্টারনেট সংযোগ এবং ডাটা দেয়া-নেয়ার জন্য রয়েছে গিগাবিট ল্যান, ওয়্যারলেস ল্যান, ব্লু-টুথ, ইউএসবি ২.০ ও ৩.০ পোর্ট, এইচডিএমআই এবং ভিজিএ পোর্ট। দাম ৩০ হাজার ৯০০ টাকা। যোগাযোগ : ০১৭১৩২৫৭৯৪২
এইচপি সিস্নকবুক সিরিজের নতুন ল্যাপটপ

স্মার্ট টেকনোলজিস (বিডি) লিমিটেড বাজারে এনেছে এইচপি সিস্নকবুক সিরিজের জি১৪-বি০০৯টিইউ মডেলের নতুন ল্যাপটপ। তৃতীয় প্রজন্মের ইন্টেল কোরআই থ্রি প্রসেসরসমৃদ্ধ এই ল্যাপটপে রয়েছে ২ গিগাবাইট র্যাজম, ৫০০ গিগাবাইট হার্ডডিস্ক, ডিভিডি রাইটার, ওয়াইফাই ল্যান এবং বস্নুটুথ সুবিধা। ল্যাপটপটি ৮ ঘণ্টা পাওয়ার ব্যাকআপ দিতে সক্ষম। এক বছরের বিক্রয়োত্তর সেবাসহ ল্যাপটপটির দাম ৪৮ হাজার টাকা। যোগাযোগ : ০১৭৩০৭০১৯১০
কমপিউটার ব্যবহারকারীদের ডিজিটাল জীবনযাত্রার সুরক্ষায় গেস্নাবাল ব্র্যান্ড (প্রা:) লিমিটেড বাজারে এনেছে পা-া ব্র্যান্ডের ইন্টারনেট সিকিউরিটি ২০১৩। গত ১৩ ফেব্রম্নয়ারি গেস্নাবাল ব্র্যান্ড (প্রা:) লিমিটেডের প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পণ্যটি অবমুক্ত করা হয়।

নতুন পণ্যের মোড়ক উন্মোচন করেন গেস্নাবাল ব্র্যান্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল আনোয়ার, পরিচালক জসিম উদ্দিন খন্দকার, পান্ডা সিকিউরিটির রিজিওনাল ম্যানেজার (এশিয়া-প্যাসিফিক) রেমন ফার্নান্দেজ, টেকনিক্যাল প্রি-সেলস ম্যানেজার মিগুয়েল মরিনো জাপাটেরো ও গ্লোবাল ব্র্যান্ডের শাখা ব্যবস্থাপক কামরুজ্জামান। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন পান্ডা সিকিউরিটির বাংলাদেশ উপ-পণ্য ব্যবস্থাপক গোলাম মর্তুজা আজিম। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পণ্যটিতে রয়েছে ‘সেফ ব্রাউজার’ মডিউল, যা বিভিন্ন ইন্টারনেট পরিসেবা এবং সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইট ব্যবহারের সময় ব্যবহারকারীদের পরিচয় নিরাপত্তা ও সুরক্ষায় কাজ করবে। ব্যক্তিগত, ব্যাংকিং এবং আর্থিক তথ্য বা মূল্যবান মাল্টিমিডিয়া বিষয়বস্ত্ত চুরি প্রতিরোধে ফাইল এবং ফোল্ডার এনক্রিপ্টসহ পাসওয়ার্ড দিয়ে নিয়ন্ত্রণের সুযোগ রয়েছে। এছাড়া অননুমোদিত কলচার্জের বিরুদ্ধে সাইবার সুরক্ষা, তথ্য ফাঁস প্রতিরোধ এবং অ্যান্টি-ডায়ালার সুরক্ষা প্রদান করে। ক্লাউডভিত্তিক কালেক্টিভ ইন্টেলিজেন্স ফিচারের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর দেয়া তথ্য তাৎক্ষণিক সুরক্ষা প্রদান করে। অনাকাঙ্ক্ষিত ওয়েবসাইটগুলো বন্ধ রাখতে সফটওয়্যারটিতে রয়েছে ওয়েবসাইট ফিল্টার এবং প্যারেন্টাল কন্ট্রোল। এছাড়া ৩ জিবি পর্যমত্ম অনলাইন ব্যাকআপ সার্ভিস রয়েছে। ফলে একজন ব্যবহারকারী তার যেকোনো গুরুত্বপূর্ণ ডাটা পান্ডা অ্যান্টিভাইরাসের নিজস্ব সার্ভারে সংরক্ষণ করতে পারবেন। ব্যবহারবান্ধব এ নিরাপত্তা সফটওয়্যারটি মাইক্রোসফটের নতুন অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ ৮ সমর্থন করে। দাম ১ হাজার ১০০ টাকা। যোগাযোগ : ০১৯৭৭৪৭৬৪০৫
এক্সিকিউটিভ টেকনোলজিস লিমিটেড বাজারে এনেছে উইন্ডোজ ৮ সমৃদ্ধ এসার ব্র্যান্ডের প্রিমিয়াম আল্ট্রাবুক অ্যাস্পায়ার এস সেভেন। ১.৯ গিগাহার্টজ ও টার্বোবুস্ট ৩.০ গিগাহার্টজ ইন্টেল কোর আই সেভেন ইউ প্রসেসরসমৃদ্ধ এ আল্ট্রাবুকে রয়েছে ৪ গিগাবাইট ডিডিআরথ্রি র্যা ম, ২৫৬ গিগাবাইট হার্ডড্রাইভ, ১৩.৩ ইঞ্চির মাল্টিটাচ এইচডি এলসিডি ডিসপেস্ন, ওয়াইফাই, ব্লু-টুথ, কার্ড রিডার, ইউএসবি ৩.০, এসডিএমআই, ওয়েবক্যাম এবং ব্যাকলিট কিবোর্ড। সাথে রয়েছে আকর্ষণীয় ব্যাকপ্যাক। এক বছরের বিক্রয়োত্তর সেবাসহ সিলভার রংয়ের এ আল্ট্রাবুক পাওয়া যাচ্ছে ১ লাখ ৬২ হাজার ৮০০ টাকায়। যোগাযোগ : ০১৯১৯২২২২২২

অ্যাভিরা-টেকজুম২৪ ক্যুইজ প্রতিযোগিতা চলছে

অ্যান্টিভাইরাস ব্র্যান্ড অ্যাভিরা ও অনলাইন পত্রিকা টেকজুম২৪-এর উদ্যোগে আয়োজিত ক্যুইজ প্রতিযোগিতার প্রথম দ্বিতীয় সপ্তাহের র্যাডফল ড্র সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম পর্বের র্যা৪ফল ড্র অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ফুটবল দলের সাবেক কোচ ও একসময়ের কিংবদমিত্ম ফুটবলার গোলাম সারোয়ার টিপু। উপস্থিত ছিলেন কমপিউটার জগৎ-এর সহকারী সম্পাদক এম. এ. হক অনু এবং স্মার্ট টেকনোলজিসের মিডিয়া নির্বাহী মাহফুজুর রহমান মুকুল। এছাড়া দ্বিতীয় পর্বের ড্র অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিআইজেএফের সাবেক সভাপতি মো: কাওছার উদ্দীন, বেসিসের মিডিয়া কমিটির কো-চেয়ারম্যান আরিফুল হাসান অপু, টেকজুম২৪-এর প্রধান নির্বাহী ওয়াশিকুর রহমান শাহীন প্রমুখ। প্রতি সপ্তাহে র্যাহফল ড্রর মাধ্যমে তিনজন করে বিজয়ী নির্ধারণ করা হয় এবং প্রত্যেক বিজয়ীকে একটি করে অ্যাভিরা ইন্টারনেট সিকিউরিটি ২০১৩ দেয়া হয়। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে quiz.techzoom24.com ঠিকানায় লগইন করতে হবে
ভাষার মাস ফেব্রম্নয়ারিতে ঢাকায় অনুষ্ঠিত অমর একুশে গ্রন্থমেলায় উন্মুক্ত হলো জনপ্রিয় লেখক আনিসুল হকের প্রথম ই-বুক। আর ই-বুকটি প্রকাশ করেছে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান স্টার হোস্ট আইটি লিমিটেড। সম্প্রতি অ্যাপস স্টোরের মাধ্যমে আইফোন ও আইপ্যাডে পড়ার জন্য ডিজিটাল বই বিক্রি শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি।
অ্যাপস স্টোরের উদ্বোধন উপলক্ষ প্রথমে মুহম্মদ জাফর ইকবাল তার ই-বুক প্রকাশ করেন। এরই ধারাবাহিকতায় এবার বইমেলায় পাঁচটি ই-বুক উন্মুক্ত করলেন আনিসুল হক। বইগুলো হলো- ৫১বর্তী, একাকী একটি মেয়ে, তিনি এবং একটি মেয়ে, ফাজিল ও ভালবাসা ডটকম। ই-বুক সম্পর্কে আনিসুল হক বলেন, বিশ্বের ১৯০টি দেশ থেকে নিয়মিত প্রথম আলো ওয়েবসাইট পড়া হয়, যা থেকে বোঝা যায় যে এতগুলো দেশে বাংলা ভাষাভাষী রয়েছে। যেহেতু শুধু ছাপানো বই দিয়ে এত বাঙালির সাহিত্যপিপাসা মেটানো যাবে না, তাই ই-বুক এ ক্ষেত্রে অনন্য ভূমিকা পালন করতে পারবে। নতুন প্রযুক্তির সাথে থাকতে পেরে আমিও আনন্দিত। স্টার হোস্টকে অভিনন্দন যে তারা প্রয়োজনের সময় ই-বুক নিয়ে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে।

স্টার হোস্ট আইটি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কাজী জাহিদ বলেন, পাইরেসি প্রতিরোধ করা এবং মান বজায় রেখে গ্রাহকের কাছে ই-বুক পৌঁছে দেয়ার জন্য স্টার হোস্ট সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করেছে। বিশ্বব্যাপী স্মাটফোনের ব্যবহারকারীর সংখ্যা গাণিতিক আকারে বাড়ছে এবং এদের মাঝে তরম্নণ প্রজন্মের সংখ্যাই বেশি। ফলে তরম্নণ প্রজন্ম বিশেষ করে প্রবাসীরা খুব সহজেই ই-বুক সেবা গ্রহণ করতে পারবে। বর্তমানে আইফোন, আইপ্যাড এবং আইপড টাচ থেকে বইগুলো কেনা যাবে। খুব শিগগিরই অ্যান্ড্রয়িড মোবাইলের জন্য ই-বুক প্রকাশ করা হবে। সাইটটির ঠিকানা : http://ebook.starhostbd.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস