Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > নতুন বছরে টেলিযোগাযোগ শিল্পে আশাবাদ
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: সম্পাদক
মোট লেখা:৩১৭
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১৬ - জানুয়ারী
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
সম্পাদনা
তথ্যসূত্র:
সম্পাদকীয়
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
নতুন বছরে টেলিযোগাযোগ শিল্পে আশাবাদ
নতুন বছরটিতে টেলিযোগাযোগ শিল্পে সেই সূত্রে আইসিটি খাতে লক্ষণীয় পরিবর্তন আসবে বলে আশাবাদের ক্ষেত্র সৃটি হয়েছে। এ আশাবাদ যথাযথভাবে বাস্তবতা পেলে আশা করা যায় দেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে আরও গতিশীলতা আসবে। বিশেষ করে আমরা এ ব্যাপারে খুবই আশাবাদী আগের যেকোনো সময়ের তুলনায়। কারণ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, ‘এ বছর হবে টেলিকম সেবা সহজলভ্য করার এবং গ্রাহক সন্তুষ্টি অর্জনের বছর।’
খবরে প্রকাশ- ব্যাপক পরিবর্তন হতে যাচ্ছে টেলিযোগাযোগ শিল্প। এ বছরেই মোবাইল ফোন অপারেটর রবি আজিয়াটার সাথে এয়ারটেল বাংলাদেশ একীভূত হতে যাচ্ছে। রাষ্ট্রীয় কোম্পানি টেলিটকের সেবা উন্নত করতে নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। সিডিএমএ(কোড ডিভিশন মাল্টিপল অ্যাক্সেস) প্রযুক্তির একমাত্র অপারেটর সিটিসেলের মালিকানা বদলের বিষয়েও চূড়ান্ত কিছু ঘটতে পারে এ বছরেই। সিডিএমএ’র বদলে জিএসএম (গেস্নাবাল সিস্টেম ফর মোবাইল কমিউনিকেশন্স) এবং থ্রিজি প্রযুক্তি ব্যবহারের সুযোগ পাবে এই অপারেটরের গ্রাহকেরা। এসবের ফলে মুঠোফোনের মার্কেট শেয়ারে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন ঘটতে পারে।
এ বছরেই ফোরজি তরঙ্গ নিলাম ও সারাদেশে থ্রিজি নেটওয়ার্কে নেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সামাজিক দায়বদ্ধতা তহবিলে (এসওএফ) জমা প্রায় ৮০০ কোটি টাকা কোন কাজে লাগানো হবে, তা শিগগিরই নির্ধারণ করা হবে। পরিকল্পনা রয়েছে মোবাইল অপারেটরদের প্রায় সাড়ে ২৬ হাজার টাওয়ারের ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব দেয়া হবে তৃতীয় পক্ষকে। আগামী ২১ ফেব্রম্নয়ারি চালু হতে যাচ্ছে বাংলা ডোমেইন (আইডিএন) ডট বাংলা (. বাংলা)। মার্চ-এপ্রিলে নম্বর না বদলে অপারেটর বদলের সুবিধা চালুর পরিকল্পনাও রয়েছে। বাংলাদেশে অ্যাডমিন প্যানেল চালুর বিষয়ে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সাথে সমঝোতা হতেপারে এ বছর। এপ্রিলের মধ্যে আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে সিম নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ হতে পারে। সরকারি সিদ্ধান্তের বাইরেও বৈশি^ক প্রযুক্তিগত উন্নয়নের সাথে সঙ্গতি রেখে পাল্টে যাচ্ছে অনেক কিছু। ভয়েস কলের পরিমাণ কমছে। বাড়ছে ডাটার পরিমাণ। উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো টুজি হ্যান্ডসেট উৎপাদন বন্ধ করে দিচ্ছে। এসব দিকের প্রতিনজর রেখেই ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম হয়তো বলেছেন- ‘এ বছর টেলিকম সেবা সহজলভ্য ও নিরাপদ করতে চান ও এর মাধ্যমে গ্রাহকসন্তুষ্টি অর্জনের ব্যাপারে অগ্রাধিকার দিতে চায় তার সরকার।’
এখানে একটি বিষয় সবিশেষে উল্লেখ করা প্রয়োজন, ইন্টারনেট ব্যবহারে গ্রাহকসন্তুষ্টি অর্জনের ব্যাপারে বিশেষ জোর দেয়া প্রয়োজন। কেননা, মোবাইল ফোনের কল্যাণে শুধু উন্নয়নশীল বিশে^র নয়, তৃতীয় বিশে^র তরুণ-তরুণীরা বেশি থেকে বেশি হারে আজ যুক্ত হচ্ছে ইন্টারনেটের সাথে। বিশেস্নষকেরা বলেছেন, মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেটে প্রবেশ সহজ হওয়ায় এবং এটি কেনাকাটা ও লেনদেনের অন্যতম মাধ্যম হওয়ায় বাংলাদেশের মতো জনবহুল দেশগুলোতে এর ব্যবহার বাড়ছে। ইন্টারনেট সহজলভ্য হলে এই ব্যবহারের গতি আরও বাড়বে। উল্লেখ্য, আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে ইন্টারনেটের ব্যবহার বাড়বে ২৫ শতাংশ।
টেলিযোগাযোগ বিষয়ক আন্তর্জাতিক গবেষণা সংস্থা ‘লার্ন এশিয়া’র সিনিয়র ফেলো আবু সাঈদ খান বলেছেন, ‘পরিবর্তনের সাথে সঙ্গতি রেখে সুষ্ঠু নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা গড়ে তোলা জরুরি। দুর্বল নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার কারণে অপারেটরদের কাছ থেকে এখনও উন্নত সেবা নিশ্চিত করা যাচ্ছেনা। আবার অনেক প্রত্যাশিত সেবা চালু করা যায়নি।’
ওদিকে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় গত বছরের ফেব্রম্নয়ারিতে এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, ‘সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে ২০১৬ সালে ফোরজি ও এলটিইর জন্য তরঙ্গ নিলামের ব্যবস্থা করা এবং সরকারের চলতি মেয়াদে তা চালু করা।’
এ প্রসঙ্গে তারানা হালিম বলেছেন, আমাদের সিদ্ধান্ত এ বছরই ফোরজি চালু করা। এর আগে সারাদেশে ২.৫জি ও থ্রিজি নেটওয়ার্ক চালু করা হবে। গ্রাহক পর্যায়ে ইন্টারনেট সংযোগ খরচও কমিয়ে আনা হবে। তার আশাবাদ, আগামী মার্চ-এপ্রিলে মোবাইল নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু করা হবে।
সবকিছু মিলিয়ে আমরা আশাবাদী- ২০১৬ সালটি হবে দেশের টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা ও আইসিটি খাতকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে পৌঁছানোর বছর। সেই সূত্র আমাদের দেশে যে আইসিটি খাতে আসবে নতুন গতিশীলতা।

পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
২০১৬ - জানুয়ারী সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস