Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > বিহ্যান্সে প্রোফাইল কমপ্লিট ও রিজিউম তৈরি
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: নাজমুল হক
মোট লেখা:১১
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১৬ - মে
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
ফ্রিল্যান্স
তথ্যসূত্র:
আউটসোর্সিং
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
বিহ্যান্সে প্রোফাইল কমপ্লিট ও রিজিউম তৈরি
বিহ্যান্স (www.behance.net) মূলত গ্রাফিক্স ডিজাইনারদের কাজ বা পোর্টফলিও প্রদর্শন করার একটি ওয়েবসাইট। সাধারণত এখানে ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক্স ডিজাইনারেরা তাদের বিভিন্ন গ্রাফিক্স ডিজাইন প্রজেক্ট (যেমন- লোগো, ভিজিটিং কার্ড, ফ্লায়ার বা ব্রশিউর, ওয়েবসাইট পিএসডি টেমপ্লেট) রাখে এবং তাদের ক্লায়েন্টদের দেখায়, তখন ক্লায়েন্টরা তাদের কাজ দিতে আগ্রহী হয়। অনেক ক্লায়েন্ট বিহ্যান্স থেকে সরাসরি গ্রাফিক্স ডিজাইনারদের হায়ার করে। এজন্যই বিহ্যান্স গ্রাফিক্স ডিজাইনারদের কাছে অনেক জনপ্রিয়।
গত পর্বে দেখানো হয়েছিল দেখেছিলাম বিহান্স পরিচিতি, অ্যাকাউন্ট তৈরি করা, প্রজেক্ট আপলোড করাসহ কিছু বিষয়। এই পর্বে দেখানো হয়েছে একটি বিহান্স প্রোফাইল কমপ্লিট করে কীভাবে একটি ভালো রিজিউম তৈরি করতে হয়।
বিহ্যান্সে প্রোফাইল কমপ্লিশন প্রক্রিয়ার এক পর্যায়ে কর্ম-অভিজ্ঞতার যোগ করার সময় ব্যবহারকারীকে একটি পরিপূর্ণ রিজিউম তৈরি করতে হয়। তাই দুটি প্রক্রিয়াকে আলাদা আলাদা যথাসম্ভব সাবলীলভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করা হয়েছে।
প্রোফাইল কমপ্লিট করা
বিহ্যান্সে অ্যাকাউন্ট তৈরির পর প্রোফাইল শতভাগ সম্পূর্ণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ অসম্পূর্ণ প্রোফাইল ডিজাইনার হিসেবে আপনার সীমাবদ্ধতার ইম্প্রেশন দেয়। যাই হোক, প্রোফাইল কমপ্লিট করার প্রক্রিয়াটি একেবারেই সহজ এবং সম্পূর্ণ করার পরও তথ্যগুলো পরে যেকোনো সময় হালনাগাদ করতে পারবেন। বিহ্যান্সে লগইন থাকা অবস্থায় আপনার অ্যাকাউন্ট ড্রপডাউন মেন্যু থেকে My Profile অপশনে ক্লিক করলে আপনার প্রোফাইল পেজ আসবে। এখান থেকে Edit Profile বাটনে ক্লিক করে নতু পেজে আসবে, সেখানে নিচের তথ্যগুলো দিন :
০১. বেসিক ইনফরমেশন : এখানে সাধারণত নিজের সম্পর্কে কিছু মৌলিক তথ্য ইনপুট করতে হবে।
প্রথমত, প্রোফাইল পিকচার এরিয়ার নিচে অবস্থিত Upload লিঙ্ক থেকে বিহ্যান্স অ্যাকাউন্টের জন্য একটি যুতসই প্রোফাইল পিকচার নির্ধারণ করতে পারেন। তারপর নিচের ফিল্ডগুলো ক্রমান্বয়ে পূরণ করুন।
ক) প্রথম/দ্বিতীয় নাম : এখানে অ্যাকাউন্ট তৈরির সময় যে নাম দিয়েছিলেন তা চাইলে এডিট করতে পারেন।
খ) পেশা : আপনার বর্তমান পেশা এখানে উল্লেখ করুন। পেশা হতে পারে গ্রাফিক্স ডিজাইনার, আর্কিটেক্ট, আর্ট ডিরেক্টর কিংবা কোনো বিশেষায়িত ক্ষেত্র যেমন- ব্র্যান্ড ডিজাইনার, UI/UX ডিজাইনার ইত্যাদি অথবা সিম্পলি স্টুডেন্ট, টিচার, ইনস্ট্রাক্টর ইত্যাদি অর্থাৎ আপনি যে কর্মে নিয়োজিত আছেন তা-ই এখানে উল্লেখ করুন। তবে আপনার পেশা এবং দক্ষতার ক্ষেত্র দুটি আলাদা জিনিস।
গ) কোম্পানি : আপনি যদি কোনো প্রতিষ্ঠানে কর্মরত থাকেন, তবে তার নাম এখানে উল্লেখ করুন।
ঘ) লোকেশন : অ্যাকাউন্ট তৈরির সময় যে নাম উল্লেখ করেছিলেন তা চাইলে এখানে এডিট করতে পারেন।
ঙ) ওয়েবসাইট ইউআরএল : ব্যক্তিগত কোনো ওয়েবসাইট কিংবা ব্লগ থাকলে তার লিঙ্ক এখানে পেস্ট করুন। অথবা কোনো সাইটে আপনার কাজ ফিচারড হলে সেই সাইটের লিঙ্ক দিতে পারেন।
০২. টিমস : যারা যৌথভাবে ডিজাইনিং বা অন্যান্য কাজ করেন তারা সাধারণত এক বা একাধিক টিমের সাথে যুক্ত থাকেন। বিহ্যান্সে কোনো নির্দিষ্ট টিমের সাথে যুক্ত থেকে ব্যক্তিগত বা সম্মিলিত প্রজেক্টে কাজ করার বিশেষ কার্যকারিতা ও সম্ভাবনা রয়েছে, যা আলোচনা সাপেক্ষ।
০৩. জয়েন অ্যা টিম : আপনার টিমটি ইতোমধ্যে বিহ্যান্সে নিবন্ধিত থাকলে তার নাম এই ফিল্ডে টাইপ করার সময় সাজেশনে আসবে এবং তাতে যুক্ত হতে পারেন। আর নিবন্ধিত না থাকলে টিমের নাম টাইপ করার পর ঈৎবধঃব রঃ হড়ক্লিক করলে আরেকটি লোড হওয়া পেজ থেকে নতুন টিম গঠন করতে পারেন। তবে তা ভিন্ন প্রসেস যেটি আপাতত স্কিপ করতে পারেন এবং পরবর্তী সময়ে বিহ্যান্সে নিবন্ধিত অন্যান্য কো-ওয়ার্কারদের সাথে মিলে টিম ক্রিয়েট করতে পারেন। পাশাপাশি এই অপশন থেকেই কোনো টিম থেকে বের হতে পারেন। অর্থাৎ যেকোনো টিম ত্যাগ করতে পারেন।
০৪. অন দ্য ওয়েব : ইন্টারনেটে যেসব যোগাযোগ মাধ্যমে আপনার অবস্থান রয়েছে, তাতে আপনার প্রোফাইলগুলোর লিঙ্ক বিহ্যান্স প্রোফাইলের সাথে যুক্ত করতে পারেন। যেসব মাধ্যমের অ্যাকাউন্ট যোগ করতে পারেন সেগুলো হলো- Twitter, Facebook, Dribbble, LinkedIn, Vimeo, Flickr, YouTube, Pinterest, Google+, Tumblr, Etsy Ges Instagram।
এসব যোগাযোগ মাধ্যমে আপনার অ্যাকাউন্ট থাকলে তাতে ইউজারনেমগুলো নিজ নিজ ফিল্ডে পেস্ট করে সাবমিটে ক্লিক করুন।
০৫. অ্যাবাউট মি : এই সেকশনে নিজের ক্যারিয়ার, দক্ষতা, অভিজ্ঞতা, পেশন, এম্বিশন ইত্যাদি বিষয়ে সংক্ষিপ্ত ও গোছালো বক্তব্য উপস্থাপন করুন। সেজন্য Section Title-এ নিজের পেশা সম্পর্কিত একটি আকর্ষণীয় টাইটেল (Sentence কিংবা Phrase আকারে) এবং বক্তব্যের মূল অংশটি Description ফিল্ডে লিখুন। এ ক্ষেত্রে আইডিয়া নিতে আপনার সমধর্মী কাজ করেন এমন অন্যান্য প্রতিষ্ঠিত বিহ্যান্স অ্যাকাউন্টধারীদের About Me সেকশন পর্যবেক্ষণ করতে পারেন।
০৬. ওয়ার্ক এক্সপেরিয়েন্স : বিহ্যান্সে ওয়ার্ক এক্সপেরিয়েন্স যোগ করার জন্য Add Work Experience লিঙ্কে ক্লিক করুন। ফলে নতুন যে পেজ আসবে সেখানে প্রকৃতপক্ষে আপনাকে রিজিউম তৈরি করতে বলা হবে। এখানে রিজিউম তৈরি করতে হলে নিচের তথ্যগুলো ইনপুট করতে হবে (যদিও কিছু তথ্য আপনার বিহ্যান্স অ্যাকাউন্ট থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডিরাইভড করা থাকে)।
বিহ্যান্সে রিজিউম তৈরি
ক. বেসিক ইনফো
০১. পূর্ণ নাম : এখানে আপনার পুরো নাম লিখতে হবে। যদিও আগে থেকেই অ্যাকাউন্ট ইনফো থেকে আপনার নাম এখানে চলে আসে, তবু চাইলে এখান থেকে রিজিউমের জন্য তা এডিট করতে পারেন অর্থাৎ আগে-পিছে বা মধ্যে আরও কিছু যোগ করতে পারেন বা বাদ দিতে পারেন।
০২. পেশা/জব টাইটেল : এই ফিল্ডে আপনার পেশা বা জব টাইটেল যোগ করুন।
০৩. লোকেশন : আপনার কান্ট্রি ও সিটি সিলেক্ট করুন।
খ. কন্টাক্ট ইনফো
০১. ই-মেইল অ্যাড্রেস : আপনার প্রফেশনাল ই-মেইল অ্যাড্রেসটি এখানে যোগ করুন।
০২. ফোন নাম্বার : এখানে আপনার সাথে যোগাযোগের জন্য নির্দিষ্ট ফোন নাম্বারটি যোগ করুন।
০৩. ওয়েবসাইট ইউআরএল : এখানে ওয়েবসাইট ইউআরএল হিসেবে আপনার Behance Public Portfolio ডিফল্ট হিসেবে সিলেক্টেড থাকে, যা রিজিউমে http://be.net/বিহ্যান্স-ইউজারনেম ফরম্যাটে প্রদর্শিত হবে। অথবা আপনার অন্য কোনো ব্যক্তিগত পোর্টফলিও সাইটের লিঙ্ক দিতে চাইলে Behance Public Portfolio-এর পাশের ডাউন অ্যারো থেকে Other URL সিলেক্ট করে ওই পোর্টফলিও সাইটের লিঙ্ক পেস্ট করুন।
গ. পার্সোনাল স্টেটমেন্ট
রিজিউমের এই ফিল্ডে প্রদত্ত বক্তব্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। রিজিউমে সাধারণত নিজের পেশাগত ব্যক্তিত্ব প্রকাশের জন্য এই স্টেটমেন্ট কার্যকর। তাই এখানে আপনার ক্যারিয়ার অবজেক্টিভের পাশাপাশি পেশাগত দক্ষতার ক্ষেত্র, এম্বিশন ইত্যাদি উল্লেখ করে স্টেটমেন্ট দিতে পারেন।
ঘ. ওয়ার্ক এক্সপেরিয়েন্স
এক বা একাধিক প্রতিষ্ঠানে আপনার পেশাগত অভিজ্ঞতা যোগ করতে Add Work Experience লিঙ্কে ক্লিক করেন। ফলে যে ফরম আসবে তাতে নিচের তথ্য দিতে হবে।
০১. কোম্পানি/অর্গানাইজেশন : আপনি যে প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন তার নাম এখানে দিন।
০২. ওয়েবসাইট : উক্ত প্রতিষ্ঠানের Website URL এখানে টাইপ করুন।
০৩. লোকেশন : প্রতিষ্ঠানটির লোকেশন (কান্ট্রি, সিটি) সিলেক্ট করেন।
০৪. পজিশন : উক্ত প্রতিষ্ঠানে আপনার পজিশন অর্থাৎ আপনি কোন পোস্টে নিয়োজিত ছিলেন তা এখানে উল্লেখ করুন।
০৫. স্টার্টিং ফরম : আপনার জব শুরুর মাস ও সাল নির্ধারণ করতে Month ও Year-এর পাশের অ্যারো থেকে তা সিলেক্ট করুন।
০৬. এডিং ইন : একইভাবে জব শেষ হওয়ার মাস ও সাল নির্ধারণ করুন।
০৭. ডিটেইলস : উক্ত প্রতিষ্ঠানে কী কী দায়িত্ব পালন করতেন, তার বর্ণনা এই ফিল্ডে দিতে পারেন।
সবশেষে Add Work Experience বাটনে ক্লিক করুন। আরও এক্সপেরিয়েন্স যোগ করতে + Add Work Experience-এ ক্লিক করে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে আপনার কর্ম-অভিজ্ঞতার বর্ণনা দিতে পারেন।
ঙ. এডুকেশন
বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আপনার পড়াশোনার তথ্যগুলো এই সেকশনে যোগ করতে পারেন। এডুকেশন যোগ করার নির্ধারিত ফিল্ডগুলো মোটামুটি Work Experience ফিল্ডগুলোর অনুরূপ হওয়ায় তা পূরণ করার পদ্ধতির পুনরাবৃত্তি না করে স্কিপ করা হলো।
চ. অ্যাওয়ার্ডস
+ Add Award লিঙ্কে ক্লিক করে এ পর্যন্ত আপনার অর্জিত অ্যাওয়ার্ডগুলো যোগ করতে পারেন। সেজন্য অ্যাওয়ার্ড প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের নাম, তাদের ওয়েব অ্যাড্রেস, প্রাপ্ত অ্যাওয়ার্ড/কনটেস্টের নাম, অ্যাওয়ার্ড গ্রহণের সাল ইত্যাদি তথ্য প্রদান করে Add Award বাটনে ক্লিক করুন। এ ক্ষেত্রেও একাধিক অ্যাওয়ার্ড যোগ করতে পারেন।
ছ. ল্যাঙ্গুয়েজেস
যেসব ভাষায় আপনার দক্ষতা আছে, সেগুলো যোগ করার জন্য + Add Language-এ ক্লিক করুন। এখানে ভাষার নাম উল্লেখ করুন এবং ওই ভাষায় দক্ষতার মাত্রা (বিগিনার, কনভারসেশনাল, অ্যাডভান্সড, ফ্লুয়েন্ট, নেটিভ) সিলেক্ট করে Add Languge বাটনে ক্লিক করুন। + Add Language-এ ক্লিক করে অন্যান্য ভাষায় দক্ষতা যোগ করা যাবে।
জ. স্কিলস
যেসব বিষয়ে আপনার প্রফেশনাল স্কিল রয়েছে, সেগুলো এখানে উল্লেখ করুন। আপনি যে ক্যাটাগরির কাজ করেন তার কয়েকটি স্কিলসেট তৈরি করে সন্নিবেশ করতে পারেন। আপনি হতে পারেন গ্রাফিক্স ডিজাইনার, ফটো এডিটর, আর্ট ডিরেক্টর, ইলাস্ট্র্যাটর কিংবা ওয়েব ডিজাইনার। সুতরাং এসব ক্যাটাগরির যেসব বিষয়ে আপনার এক্সপারটাইজ রয়েছে তার স্কিলসেট তৈরি করুন। যেমন- আপনি যদি একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হন, তবে আপনার স্কিলসেটে থাকতে পারে Icon and Button Design, Business Card Design, Newsletter Design, Print Element Design, Web Element Design, Form Design, Mockup Design, Web Template Design, UI/UX Design, Photoshop, Illustrator, Fireworks।
ঝ. কাস্টম সেকশন
এই সেকশনে বিহ্যান্স রিজিউমে প্রদর্শন উপযোগী কোনো বিষয় যোগ করতে পারেন, যা হবে আপনার সম্পূর্ণ নিজস্ব সংযোজন। অর্থাৎ এই সেকশনে কোনো টাইটেল এবং ডিটেইলস আপনি নিজে ডিফাইন করতে পারেন। এখানেও একাধিক কাস্টম সেকশন যোগ করার সুযোগ রয়েছে।
যাই হোক, রিজিউমের এসব ফিল্ড পূরণ করার পর আপনার তৈরি করা রিজিউমের লুক দেখতে পারেন। সেজন্য রিজিউম এডিটর পেজের একেবারে উপরের View Resume বাটনে ক্লিক করুন। তাছাড়া ডান পাশের Visible To সেটিংস থেকে আপনার রিজিউমকে Only You (এডিট মোড) থেকে Behance Members Only (শুধু বিহ্যান্স রেজিস্টার্ড ইউজারেরা দেখতে পারবেন) কিংবা Public (সব বিহ্যান্স ভিজিটরের জন্য উন্মুক্ত)-এ পরিবর্তন করতে পারেন।
এভাবে আপনার রিজিউম তৈরি করতে পারেন। ফাইনালি বিহ্যান্স ব্যবহার করা হবে নিচের তিনটি কারণে- ০১. একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে কাজের উদাহরণ ক্লায়েন্টকে দেখানো প্রয়োজনে। আর গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ দেখানোর জন্য বিহ্যান্স হচ্ছে সবচেয়ে ভালো জায়গা। ০২. আপনি ভালো ডিজাইন তৈরি করতে পারলে বিশ্বের বিভিন্ন লোকজন আপনার ডিজাইন দেখবে, আপনার ডিজাইনের প্রচুর ভিউ হবে, অনেকেই আপনাকে তাদের কাজের জন্য হায়ার করবে। বাংলাদেশে এমন অনেকেই আছেন, যারা ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস upwork.com freelancer.com তেমন কোনো কাজই করেননি প্রায় সব কাজই তারা বিহ্যান্স থেকে পেয়েছেন। ০৩. বিহ্যান্স ব্যবহার শুরু করলে এটি হবে আপনার একটি স্থায়ী পোর্টফলিও শোকেস, যা আপনি ফ্রিল্যান্সিং জব ছাড়াও দেশীয় যেকোনো গ্রাফিক্স ডিজাইন কোম্পানিতে কাজ করতে গেলে আপনার কাজ শো করতে পারবেন
ফিডব্যাক : najmul@sylhost.com

পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
২০১৬ - মে সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস