Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > ডিজিটাল পণ্য বিক্রির কিছু সেরা প্ল্যাটফর্ম
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: আনোয়ার হোসেন
মোট লেখা:৬১
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১৬ - সেপ্টেম্বর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
ই-কমার্স
তথ্যসূত্র:
ই-কমার্স
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
ডিজিটাল পণ্য বিক্রির কিছু সেরা প্ল্যাটফর্ম
ডিজিটাল পণ্য হচ্ছে সেই পণ্য- যা বিক্রি, সরবরাহ ও স্থানান্তর করা হয় ডিজিটাল উপায়ে। ডিজিটাল পণ্যের সবচেয়ে সাধারণ উদাহরণ হচ্ছে মিডিয়া ফাইল। যেমন- ভিডিও ফাইল, সেগুলো হতে পারে সিনেমা বা টেলিভিশন অনুষ্ঠান, ব্র্যান্ডেড মাল্টিমিডিয়া ফাইল বা এরকম অন্যান্য পণ্য। ডিজিটাল পণ্যের উদাহরণ হিসেবে আরও বলা যেতে পারে ই-বুক, মিউজিক ফাইল, সফটওয়্যার, ডিজিটাল ইমেজ, ওয়েবসাইট টেম্পলেট, ইলেকট্রনিক ফরম্যাটে ম্যানুয়াল, ওয়েবিনার, ভিডিও টিউটোরিয়াল, ইন্টারনেট রেডিও, ইন্টারনেট টেলিভিশন, স্ট্রিমিং মিডিয়া, ফন্ট ও গ্রাফিক্স, ডিজিটাল সাবস্ক্রিপশন, অনলাইন বিজ্ঞাপন, ইন্টারনেট কুপন, ইলেকট্রনিক টিকেট, অনলাইন ক্যাসিনো টোকেন ইত্যাদির নাম।
এসব পণ্যের নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে, এগুলো অন্যসব ই-কমার্স পণ্যের মতো নয়। তাই সঙ্গত কারণেই এসব পণ্য গতানুগতিক ই-কমার্স পণ্য বিক্রির উপায়ে বিক্রির চেষ্টা করা বোকামি। এসব পণ্য বিক্রির জন্য অন্যান্য পণ্যের মতো কোনো জটিল সফটওয়্যারের দরকার নেই। বরং বলা যেতে পারে, ডিজিটাল পণ্যের বিক্রির উপায় হওয়া উচিত অনেক বেশি সাধারণ এবং ঝামেলাহীন।
আপনি যদি অনলাইনে ডিজিটাল পণ্য বিক্রি করতে চান, তবে এমন একটি বিক্রির উপায় দরকার, যা একই সাথে হবে সাধারণ এবং দ্রুত। ই-কমার্স প্লাটফর্ম প্রচুর আছে, কিন্তু সেগুলো ডিজিটাল পণ্য বিক্রির জন্য আদর্শ নয়। তাই আপনাকে বেছে নিতে হবে এমন একটি প্লাটফর্ম, যা ডিজিটাল পণ্য বিক্রির জন্য সবচেয়ে ভালো। এ লেখায় আমরা অনলাইনে ডিজিটাল পণ্য বিক্রির সবচেয়ে সহজ অপশনগুলো সম্পর্কে জানতে পারব।
ইজি ডিজিটাল ডাউনলোডস
ওয়ার্ডপ্রেস ইন্টারফেস ব্যবহার করে ডিজিটাল আইটেম বিক্রি করতে চাইলে সবচেয়ে সহজ এবং জনপ্রিয় উপায় হচ্ছে ইজি ডিজিটাল ডাউনলোডস। এটি সেটআপের জন্য দরকার মাত্র কয়েক মিনিট। যেহেতু এটি একটি প্লাগইন, তাই আপনাকে সম্পূর্ণ নতুন কোনো ইন্টারফেসে যাওয়ার দরকার হচ্ছে না। আপনার বর্তমান ওয়েবসাইটে থেকেই ডিজিটাল পণ্য বিক্রি করতে পারবেন। প্লাগইনটির রিপোর্টিং ব্যবস্থা খুবই চমৎকার। সেখানে পরিষ্কার-পরিছন্ন গ্রাফিক্স এবং অ্যানালাইটিং আছে, যেগুলোর মাধ্যমে জানা যাবে কত লোক আপনার পণ্যগুলো ক্রয় করেছেসহ অনেক তথ্য।
ফি : প্লাগইনটি ফ্রি ব্যবহার করা যাবে। তবে আপনাকে পেমেন্ট প্রোভাইডারদের ফি দিতে হবে, পাশাপাশি এক্সটেনশন কেনার প্রয়োজন হতে পারে, যার মূল্য ০ থেকে ৮৩ ডলার পর্যন্ত।
সেলফি
সেলফি একটি কমিউনিটি এবং একই সাথে একটি মার্কেটপ্লেস। যেখানে আপনি অসাধারণ সব কনটেন্ট খোঁজার পাশাপাশি নিজস্ব ডিজিটাল কনটেন্ট বিক্রি করতে পারবেন। এই প্লাটফর্মটি খুবই কার্যকর এ জন্য- কনটেন্ট আপলোড এবং প্লাটফর্ম ডিজাইনের জন্য আপনাকে খুব বেশি সময় ব্যয় করতে হবে না। এর ডিজাইন খুবই চমৎকার। এ ছাড়া এই প্লাটফর্মে অন্য বিক্রেতারা তাদের ডিজিটাল পণ্য বিক্রির জন্য কী কী পদক্ষেপ নিয়ে থাকেন বা কী করছেন তা দেখে নিতে পারবেন।
ফি : প্রতি লেনদেনে ২ থেকে ৫ শতাংশ হারে ফি দিতে হয়। তবে ২৫০ ডলার পর্যন্ত লেনদেনের জন্য কোনো চার্জ দিতে হবে না।
সেন্ড ওউল
ডিজিটাল পণ্য বিক্রির সহজ ও নিরাপদ উপায়গুলোর একটি হচ্ছে সেন্ড ওউল। এই প্লাটফর্মের বড় সুবিধাটি হচ্ছে, এটি প্রায় সব ভাষা সাপোর্ট করে। ফলে আপনি বিশ্বব্যাপী পণ্য বিক্রি করতে পারবেন, মানে সারা বিশ্বই হবে আপনার ডিজিটাল পণ্যের বাজার। সেন্ড ওউল ব্যবহার করে আপনার ওয়েবসাইট, সোসিয়াল সাইট বা ব্লগ থেকেও ব্যবসায় করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে আপনাকে যা করতে হবে তা হলো, সেন্ড ওউলের একটি ছোট বাটন আপনার সাইটে বসানো। আরও একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে সেন্ড ওউল অন্যদের মতো আপনার বিক্রির টাকার ওপর ভাগ বসাবে না। আপনার পণ্য বিক্রির টাকা আপনার পকেটেই যাওয়া উচিত বলে তারা মনে করে। তবে মাসিক ন্যূনতম একটি ফি তাদেরকে দিতে হবে। এই প্লাটফর্মে আপনি পাবেন পেপল ও মার্চেন্ট ডটকমের মতো বড় বড় পেমেন্ট প্রসেসর কোম্পানিকে, যারা আপনার টাকা এক মুহূর্তের জন্যও আটকে রাখবে না। ফলে বিক্রির সাথে সাথেই টাকা চলে আসবে আপনার কাছে।
ফি : তাদের মাসিক ফি ৯ থেকে ৩৯ ডলার পর্যন্ত।
গুমরোড
গুমরোড অনলাইনে পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। এটি মূলত সৃজনশীল লোকের ডিজিটাল পণ্য বিক্রির জন্য ডিজাইন করা। এখানে আপনি আপনার গান, কমিকস বই, সফটওয়্যারসহ নানারকম ডিজিটাল পণ্য বিক্রি করতে পারবেন। এর মাধ্যমে আপনি আপনার ফলোয়ারদের কাছে সরাসরি পণ্য বিক্রি করতে পারবেন। আবার এর সাথে আপনার ফেসবুক, ইউটিউব, সাউন্ড ক্লাউড এমনকি ই-মেইল নিউজ লেটারও ইন্টিগ্রেট করতে পারবেন। ডিজিটাল পণ্যের জগতের বড় বড় শিল্পীদের অন্যতম এমিনেম, ন্যাথান বেরি এবং মে ক্যাগনে এই প্লাটফর্মে তাদের পণ্য বিক্রি করেন। এই প্লাটফর্মে আপনার ব্যাংক হিসাব ইন্টিগ্রেট করে দিতে পারবেন। ফলে কয়েক ক্লিকেই আপনি আপনার টাকা স্থানান্তর করতে সক্ষম হবেন।
ফি : প্রতি লেনদেনের ৫ শতাংশ ও ২৫ সেন্ট করে দিতে হবে।
হুকমার্স
অনলাইনে শপ চালু করেছেন এমন লোকের বেশিরভাগই হুকমার্স সম্পর্কে জানেন। এটি ওয়ার্ডপ্রেসের ওপর ভিত্তি করে বানানো একটি প্লাটফর্ম। অনলাইনে অর্থ আয়ের জন্য যেসব ফিচার থাকা প্রয়োজন, এই প্লাটফর্মে তার সবই আছে। এর সিস্টেমটি অনেক বড় হওয়ায় প্রশ্ন আসতে পারে- কয়েক মিনিটের মধ্যে ডিজিটাল পণ্য বিক্রি করে এই প্লাটফর্মটি কতটা সাহায্য করতে পারবে। এই প্লাটফর্মটি মূলত তাদের জন্য, যারা ইতোমধ্যেই হুকমার্স সিস্টেমের সাথে পরিচিত। এটিতে কয়েক ক্লিকের মাধ্যমেই ডিজিটাল পণ্য বিক্রির জন্য যেসব ফিচার দরকার, সেগুলো অ্যাক্টিভ করে নেয়া যায়। এদের অর্ডার প্রসেস খুবই সাধারণ।
ফি : লাইসেন্সের জন্য আপনাকে ৪৯ থেকে ১৪৯ ডলার পর্যন্ত অর্থ গুনতে হবে।
শপিফাই এবং ডিজিটাল ডাউনলোডস
শপিফাইয়ের সাথে আপনাকে একটি অতিরিক্ত অ্যাপ ইনস্টল করে নিতে হবে। অ্যাপটির নাম ডিজিটাল ডাউনলোডস। অ্যাপ ইনস্টলের মাধ্যমে আপনি এই প্লাটফর্মে ডিজিটাল পণ্য বিক্রির পরিবেশ পাবেন। ই-কমার্স পণ্য বিক্রিতে শপিফাই খুবই পরিচিত একটি নাম। অ্যাপটিতে ডিজিটাল পণ্য বিক্রির জন্য এর মূল প্লাটফর্মের ফিচারের প্রায় সবই পাওয়া যাবে। এ প্লাটফর্মের সাহায্যে একবার পণ্য ক্রয় করেছেন এমন ক্রেতাদেরকে পণ্য সম্পর্কে আপডেট জানাতে পারবেন।
ফি : অ্যাপের জন্য আপনাকে কোনো পে করতে হবে না, তবে স্ট্যান্ডার্ড শপিফাই এবং পেমেন্ট প্রসেসিংয়ের জন্য ফি দিতে হবে (প্রতি মাসে ১৪ ডলার থেকে শুরু)


পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
২০১৬ - সেপ্টেম্বর সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস
অনুরূপ লেখা