Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > পিসির ঝুটঝামেলা
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: কজ
মোট লেখা:১০৪১
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১৬ - অক্টোবর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
ট্রাবলশূটিং
তথ্যসূত্র:
ট্রাবলশুটিং
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
পিসির ঝুটঝামেলা
সমস্যা : আমার পিসির মনিটর স্যামসাং ব্র্যান্ডের ২২ ইঞ্চি এলইডি। কয়েক দিন হলো মনিটরের মাঝখানে লাল-নীল রংয়ের ৩-৪টি চিকন রেখা খাড়াভাবে দেখা যাচ্ছে। রেখাগুলো কিছুতেই যাচ্ছে না। এ সমস্যা থেকে কীভাবে মুক্তি পাব?
-পিয়াস
সমাধান : মনিটরে এ ধরনের সমস্যা বেশ কয়েকটি কারণে হতে পারে। মনিটরের কাছে চুম্বক জাতীয় কোনো কিছু থাকলে এমনটা হতে পারে। মনিটরের পাশে রাখা স্পিকারের কারণে এ সমস্যা দেখা দেয়। তাই মনিটরের আশপাশে চুম্বক জাতীয় কোনো ডিভাইস বা কিছু থাকলে তা সরিয়ে ফেলুন। মাদারবোর্ডের র্যা ম সস্নটে র্যা ম সঠিকভাবে না লাগানো থাকলেও এ সমস্যা দেখা দিতে পারে। র্যাফম সস্নট থেকে র্যা ম খুলে তার গোল্ডেন নচ নরম সুতি কাপড় দিয়ে আলতো করে পরিষ্কার করে নিন। সেই সাথে র্যানম সস্নটে কোনো ময়লা জমে আছে কি না, তা দেখে নিন। যদি থাকে, তবে তা ব্রাশ দিয়ে বা বেস্নায়ার মেশিন দিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। গ্রাফিক্স কার্ডে সমস্যা থাকলেও এমনটা হতে পারে। তাই গ্রাফিক্স কার্ড সস্নট থেকে খুলে তা ভালো করে লাগিয়ে স্ক্রু দিয়ে শক্তভাবে লাগিয়ে নিন। গ্রাফিক্স ড্রাইভারের সমস্যার কারণেও মনিটরে দাগ পড়তে পারে। তাই লেটেস্ট গ্রাফিক্স বা ভিডিও ড্রাইভার ডাউনলোড করে তা ইনস্টল করে নিন। নতুন ড্রাইভার ইনস্টল করার আগে পুরনো ড্রাইভার আনইনস্টল করে নিতে ভুলবেন না। যদি এগুলোর কোনো পদ্ধতি কাজ না করে, তবে বুঝতে হবে মনিটরের এলসিডি প্যানেলে বা অন্য কোনো পার্টসে সমস্যা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে মনিটরের প্যানেল বদলানো লাগতে পারে। মনিটরের ব্র্যান্ড ও সাইজভেদে এই প্যানেলের দাম ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে। প্যানেলের দাম ৩-৪ হাজার টাকার মতো পড়তে পারে। মনিটরটি ভালো কোনো সার্ভিসিং সেন্টারে নিয়ে গিয়ে পরীক্ষা করিয়ে দেখুন। যদি দাগের কারণে কমপিউটিংয়ে তেমন কোনো সমস্যা না হয়, তবে শুধু টাকা খরচ না করে যেভাবে আছে সেভাবে চালানোই মঙ্গলজনক।
সমস্যা : আমার নতুন কেনা প্রিন্টার মডেলটি হচ্ছে ক্যানন পিক্সমা আইপি ২৮৭২। প্রিন্টার কিনে আনার পর তা ভালোভাবেই প্রিন্ট করেছে। কিন্তু ২-৩ দিন হলো প্রিন্টারটি কাজ করছে না। প্রিন্ট কমান্ড দিলে কোনো কিছুই হয় না। আরেকটি ব্যাপার জানতে চাই, তা হচ্ছে এই প্রিন্টারের সাথে কি ইঙ্ক ড্রাম যুক্ত করা যাবে?
-রতন
সমাধান : প্রিন্টারের ডিফল্ট সেটিংসে কোনো পরিবর্তন বা কানেকশন লুজ থাকলে এ সমস্যা হতে পারে। যেহেতু নতুন প্রিন্টার তাই এত তাড়াতাড়ি কোনো পার্টস নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা নেই।
প্রিন্টারের কানেকশন ভালো করে চেক করে দেখুন। পাওয়ার ক্যাবল ও ইউএসবি ডাটা ক্যাবল খুলে তা আবার ভালো করে লাগিয়ে নিন। যদি এতে কাজ না হয় তবে প্রিন্টারের ড্রাইভার আনইনস্টল করে তা নতুন করে ইনস্টল করে নিন। ইঙ্ক কার্ট্রিজ যদি তার অবস্থা থেকে সরে যায়, তাহলেও এমনটা হতে পারে। তাই কার্ট্রিজ খুলে তা আবার ভালো করে বসিয়ে দিন। পেপার ফিডিং ট্রেতে কোনো ময়লা বা ধুলাবালি আটকে আছে কি না, তা দেখে নিন। নিয়মিত প্রিন্টার মেইনটেন্যান্স করুন। ব্যবহারের পর প্রিটার কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন যাতে ধুলাবালি না পড়ে। যদি তাতেও সমস্যার সমাধান না হয়, তবে প্রিন্টার বিক্রেতার কাছে নিয়ে যান। কারণ প্রিন্টারের এখনও ওয়ারেন্টি আছে। এই প্রিন্টারে ইঙ্ক ড্রাম লাগানো যায় না, কারণ এর কার্ট্রিজগুলো বেশ ছোট। এই প্রিন্টারের আগের মডেল ক্যানন পিক্সমা আইপি ২৭৭২-এর কার্ট্রিজগুলো কিছুটা বড়, তাই তাতে ইঙ্ক ড্রাম লাগানো যায়। নতুন মডেলটির দামও কম, ডিজাইন সুন্দর, আকারে ছোট ও তুলনামূলকভাবে হালকা। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে ইঙ্ক কার্ট্রিজ আকারে ছোট হওয়ায় বেশি প্রিন্ট করা যায় না। আর ইঙ্ক কার্ট্রিজের দামও প্রায় প্রিন্টারের সমান পড়ে।
ফিডব্যাক : jhutjhamela24@gmail.com

পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
২০১৬ - অক্টোবর সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস