Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > বিভিন্ন প্রয়োজনের সহায়ক কিছু অ্যাপ
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: আনোয়ার
মোট লেখা:২
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১৮ - নভেম্বর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
অ্যাপ
তথ্যসূত্র:
অ্যাপ
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
বিভিন্ন প্রয়োজনের সহায়ক কিছু অ্যাপ
বিভিন্ন প্রয়োজনের সহায়ক কিছু অ্যাপ
আনোয়ার হোসেন

পডকাস্ট আজকের ইন্টারনেটের যুগে তথ্য সংগ্রহের মূল উৎস হিসেবে প্রত্যাবর্তন করছে বলে মনে হচ্ছে। সবার পক্ষে সব সময় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নিয়ে বিশেষজ্ঞদের সাথে কথা বলার সুযোগ নাও হতে পারে। সেক্ষেত্রে উপায় পডকাস্ট। এটি একটি দুর্দান্ত সমাধান। আর অসাধারণ সব পডকাস্ট খুঁজে পাওয়াও অপেক্ষাকৃত সহজ। আপনি যদি এই মাধ্যমের ভক্ত হন এবং নতুন পডকাস্ট অ্যাপ্লিকেশনের জন্য বাজারে থাকেন, তবে এখান থেকে বেছে নিতে পারেন বেশ কিছু দরকারি অ্যান্ড্রয়েড পডকাস্ট অ্যাপ্লিকেশন। আবার অনেকে আছেন রেডিওতে আলোচনা অনুষ্ঠান বা বক্তৃতা দেয়ার অনুষ্ঠান শুনতে পছন্দ করেন। সেক্ষেত্রে তারা যেসব ঝামেলায় পড়েন, তার অন্যতম হচ্ছে পছন্দের অনুষ্ঠান নির্বাচন করা বা ডাউনলোড করা। এ কাজগুলো নিয়ে বেশ ঝামেলাই পোহাতে হয় তাদেরকে। যারা তা চান না, তাদের জন্য পডকাস্ট হতে পারে ভালো সমাধান। কেননা, পডকাস্ট অ্যাপ্লিকেশনের এ ধরনের কোনো ডাউনলোড বা নির্বাচনের প্রয়োজন নেই।
কাস্টবক্স

বিনামূল্যে পাওয়া যায় এমন পডকাস্টগুলোর অন্যতম একটি হলো কাস্টবক্স। এর সংগ্রহে আছে ১০ লাখেরও বেশি পডকাস্ট, যেগুলো সাধারণত মিলবে আইটিউনস বা অন্যান্য উৎসে। অ্যাপ্লিকেশনটিতে আছে ৭০টি ভাষা সাপোর্টের সুবিধাসহ আরো কিছু ফিচার, যেমন ল্যাঙ্গুয়েজ লানিং পডকাস্ট, ক্রমকাস্ট সাপোর্ট, অ্যামাজন ইকো সাপোর্ট ইত্যাদি। তাছাড়া এতে আছে একাধিক ডিভাইসে ক্লাউড সিঙ্কিং করার সুবিধা। অ্যাপটির ফ্রি ও পেইড দুই ধরনের ভার্সনই আছে। আবার ফ্রি ভার্সনটিতে সব ধরনের সুবিধা বিদ্যমান থাকলেও কোনো বিজ্ঞাপনের বাধ্যবাধকতা নেই। কাস্টবক্স গুগল প্লে­বেস্ট অব ২০১৭ ও অ্যান্ড্রয়েড একসেরেন্ট অ্যাপ ২০১৭সহ বেশ কিছু পুরস্কার পেয়েছে। এটি ব্যবহার করা সহজ। এতে আছে সুপার ক্লিন লেআউট ও সহজে নেভিগেট করার ইন্টারফেস। এতে সরাসরি স্ট্রিম যেমন করা যাবে, তেমনি বিনামূল্যে যেকোনো সময় যেকোনো জায়গা থেকে পছন্দের পডকাস্ট ডাউনলোড করা যাবে। পডকাস্টের সুবিধা বহুবিধ তাদের অন্যতম হচ্ছে সহজে মোবাইল ফোন বা ডেস্কটপ থেকে অডিও রেকর্ড করা যাবে, যা দিয়ে অসাধারণ সব পডকাস্ট তৈরি করা যাবে। এই অ্যাপে তৈরি করা পডকাস্টের জনপ্রিয়তা বাড়াতে তাদের অ্যাডভান্স অ্যাডভারটাইজিং অ্যালগরিদম ব্যবহার করা যাবে। কোনো হোস্টিং ফি নেই। আবার অডিও আপলোডের ক্ষেত্রে কোনো সীমা ঠিক করে দেয়া নেই।

গুগল পডকাস্ট

গুগল তাদের মেসেজিং নির্বাচনের ক্ষেত্রে যা করেছে, পডকাস্ট নির্বাচনে ঠিক তেমনটাই করেছে। গুগল থেকে পডকাস্টের জন্য বর্তমানে তিনটি ভিন্ন প্লাটফর্ম রয়েছে। প্রথমটি হচ্ছে গুগল পডকাস্ট। এটি প্লে­ব্যাক গতি নিয়ন্ত্রণ এবং সাইলেন্ট সেগমেন্ট স্কিপ করার ফিচারসহ একটি মোটামুটি আদর্শ পডকাস্ট অ্যাপ্লিকেশন। গুগল প্লে মিউজিক গুগলের বর্তমান মিউজিক স্ট্রিমিং সার্ভিস এবং এটি পডকাস্টও সাপোর্ট করে। অনেক লোক ইউটিউবে দৈনিক বা সাপ্তাহিক শো, পডকাস্ট এবং অনুরূপ উপাদান আপলোড করে থাকে। গুগল পডকাস্টে আছে সর্বাধিক বিকল্প। যদি আপনি ইতোমধ্যেই পরিসেবাটি ব্যবহার করেন, তবে গুগল প্লে­মিউজিক দুর্দান্ত, তবে আপনি যদি ইতোমধ্যেই ইউটিউব প্রিমিয়ামের জন্য অর্থ প্রদান করেন, তবে ইউটিউব হতে পারে একটি ভালো পডকাস্ট প্লেয়ার।

পডকাস্ট এডিক্ট

পডকাস্ট এডিক্ট সবচেয়ে জনপ্রিয় বিনামূল্যে পডকাস্ট অ্যাপ্লিকেশনগুলোর একটি। এতে আছে পডকাস্ট, অডিও বুক, লাইভ স্ট্রিমিং রেডিওর বিশাল লাইব্রেরিসহ অনেক কিছু। এমনকি এটি ইউটিউব ও টুইট চ্যানেলগুলোও সাপোর্ট করে। অ্যাপ্লিকেশনটির অন্যতম ফিচারগুলো হচ্ছে পরিবর্তনশীল প্লেব্যাক স্পিড, সাইলেন্স অপশন স্কিপ, ক্রমকাস্ট সাপোর্ট ও সোনোস সাপোর্ট। অ্যাপ্লিকেশনটি বিনামূল্যে ব্যবহার করা যাবে, কিন্তু এটিতে বিজ্ঞাপন আছে। যদি আপনি বিজ্ঞাপনগুলো সরাতে চান, তবে গুগল প্লেস্টোর থেকে এর একটি ঐচ্ছিক সংস্করণের জন্য পয়সা খরচ করতে হবে। অ্যাপটিতে আছে বিল্টইন অডিও ইফেক্ট, যেমন প্লেব্যাক স্পিড, ভলিউম বুস্ট ও স্কিপ সাইলেন্স। এসব সুবিধা স্ট্রিমিং অথবা ডাউনলোডেড ফাইল উভয় ক্ষেত্রেই কাজ করে।

পডকাস্ট গো

ফোনে প্রিয়ার পডকাস্ট শুনতে এটি হতে পারে দারুণ এক অ্যাপ্লিকেশন। এতে অসাধারণ কিছু ফিচার আছে যাদের মধ্যে অন্যতম নিজের পছন্দমতো পডকাস্ট তৈরির সুযোগ, কন্ট্রোল স্পিড রেট, পছন্দের অ্যাপ থিম বেছে নেয়া, স্লিপ টাইমার সেট করা, মেমরি কার্ডে পডকাস্ট এপিসোড সেভ রাখাসহ অনেক কিছু। অ্যাপ্লিকেশনটিতে তিন লাখেরও বেশি পডকাস্ট আছে। আপনার অবসরে এটি হতে পারে দারুণ এক সঙ্গী। সাবস্ক্রাইব করার পাশাপাশি ব্রাউজও করতে পারেন। অ্যাপ্লিকেশনটি উপভোগ করা যাবে বিনামূল্যে, তবে সেক্ষেত্রে বিজ্ঞাপন আসবে। আর বিজ্ঞাপন এড়াতে চাইলে পেইড সংস্করণটির জন্য পয়সা খরচ করতে হবে। এপিসোড ডাউনলোডের মাধ্যমে অফলাইনেও শোনা যাবে। বানানো যাবে নিজের মতো করে প্লেলিস্ট। এখানে থাকা বেশ কিছু থিম থেকে বেছে নেয়া যাবে নিজের পছন্দমতো।

সাউন্ডক্লাউড

পডকাস্ট অ্যাপের মধ্যে সাউন্ডক্লাউড অন্যতম সেরা অ্যাপ্লিকেশন। টেকনিক্যালি এখানে একটি সাবস্ক্রিপশন সেবা আছে। তবে পডকাস্ট শুনতে কোনো অর্থ ব্যয় করতে হবে না। মূলত মিউজিকের জন্য এই অ্যাপটি তৈরি করা। সেদিক বিবেচনায় পডকাস্ট শ্রোতাদের জন্য এটি খুব বেশি বন্ধুভাবাপূর্ণ তা নয়। অফলাইনে শোনার জন্য ট্র্যাক ডাউনলোড করার সুযোগ আছে, সেই সাথে কোনো চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করা যাবে। একটি বিষয় হলো, যেকোনো পডকাস্টের জন্য তৈরি করা অ্যাপের সাথে এর তুলনা করা সঙ্গত হবে না। তবে যারা সাউন্ডক্লাউড ব্যবহার করেছেন বা করতে চান, তাদের জন্য এটি ফ্রিতে খুব ভালো একটি সুযোগ। সাউন্ডক্লাউডের সংগ্রহে আছে ১৫০ মিলিয়নেরও বেশি ট্র্যাক এবং এই সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে। শিল্পী, মিউজিশিয়ানসহ সংশ্লিষ্ট সবাই ক্রমাগত নতুন মিউজিক আপলোড করে যাচ্ছেন। এখানে আপনি হয়তো খুঁজে পাবেন পরবর্তী সময়ে তারকা হতে যাওয়া বড় কোনো শিল্পীকে। এখানে থাকা বিশাল ক্যাটালগ থেকে বেছে নেয়া যাবে হিপ হপ, রক, ক্লাসিক্যাল, জাজ, পডকাস্টসহ আরো অনেক কিছু
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
২০১৮ - নভেম্বর সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস