Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > উইন্ডোজ ১০ আপডেট ম্যানেজ করা ও কমপিউটিং জীবন স্বাচ্ছন্দ্যময় রাখা
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: তাসনীম মাহমুদ
মোট লেখা:২
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১৮ - ডিসেম্বর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
উইণ্ডোজ
তথ্যসূত্র:
উইন্ডোজ
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
উইন্ডোজ ১০ আপডেট ম্যানেজ করা ও কমপিউটিং জীবন স্বাচ্ছন্দ্যময় রাখা
উইন্ডোজ ১০ আপডেট ম্যানেজ করা ও কমপিউটিং জীবন স্বাচ্ছন্দ্যময় রাখা
তাসনীম মাহমুদ

উইন্ডোজ আপডেট উইন্ডোজের পরিবর্তনকে ধরে রাখে উইন্ডোজ ১০ আপডেটে। আগের দিনে ব্যবহারকারীরা সিকিউরিটি প্যাচ এবং ড্রাইভার আপডেট বøক করতে পারতেন। মাইক্রোসফট উইন্ডোজ আপডেট প্রসেসকে সহজতর এবং অটোমেটেড করেছে ট্রান্সপারেন্সির মূল্যের বিনিময়ে।

মাইক্রোসফট উইন্ডোজ আপডেট এ সূচনা করে বেশ কিছু নতুন আপডেট। উইন্ডোজ ১০-এ আপডেট বাধ্যতামূলক এবং উইন্ডোজের আগের সবগুলো ভার্সনের তুলনায় অনেক বেশি অটোমেটেড। তবে অনেক ব্যবহারকারী আছেন, বিভিন্ন কারণে অটোমেটেড উইন্ডোজ আপডেট সবসময় পছন্দ করেন না। তাই তাাদের প্রচেষ্টা থাকে কীভাবে উইন্ডাজ ১০-এর অটোমেটেড আপডেট বন্ধ করা যায়। হতে পারে এটি প্রেজেন্টেশনের সময় উইন্ডোজ ১০ যাতে জটিল আপডেটকে প্রতিহত করতে পারে অথবা ডাটা হারানোর ভয়ে মাইক্রোসফটের উইন্ডোজ ১০ ফিচার আপডেট স্থগিত রাখতে পারে। তবে ব্যবহারকারীদের উচিত হবে না সব উইন্ডোজ ১০ আপডেট বন্ধ রাখা, তবে ব্যবহারকারীরা সেগুলো ম্যানেজ করতে পারবেন।

উইন্ডোজ ১০ ফিচার আপডেট এবং সিকিউরিটি আপডেট দেয় গুরুত্বপূর্ণ ও মূল্যবান সার্র্ভিস। এগুলো শুধু উইন্ডোজ, এর অ্যাপ এবং কম্পোনেন্ট প্যাচই করে না, বরং বছরে দুইবার নতুন ফিচার এবং ক্যাপাবিলিটি দেয়। উইন্ডোজ আপডেট স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার পিসির সাথে সংযুক্ত হার্ডওয়্যারের জন্য আপডেটেড ড্রাইভার দেয়, যেমন ইউএসবিযুক্ত প্রিন্টার।

উইন্ডোজ ১০ হোম দিয়ে আপডেট ম্যানেজ করার তিন টুল
একটি পিসি তৈরি করার সময় মাইক্রোসফটের উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমের দুটি অপশন পাবেন, যেমন উইন্ডোজ ১০ হোম এবং উইন্ডোজ ১০ প্রো। উইন্ডোজ ১০ হোম এক সস্তাতর বিকল্প হলেও উইন্ডোজ ১০ প্রো অফার করে কিছু অ্যাডভ্যান্সড ফিচার।

উইন্ডোজ ১০ প্রো ব্যবহারকারীকে দিনের পর দিন আপডেটকে স্থগিত রাখার সুযোগ করে দেয়। যদি আপনি উইন্ডোজ ১০ হোম এডিশন ব্যবহারকারী হন, তাহলে ভাগ্যকে ভালোভাবে মেনে নেবেন। উইন্ডোজ ১০ যেমন করে পিরিয়ডিক সিকিউরিটি আপডেট, তেমনি করে সেমি-ম্যানুয়াল ফিচার আপডেট। এগুলো অবমুক্ত হওয়ার সাথে সাথে আপনার পিসিতে পৌঁছে যাবে। অনাকাক্সিক্ষত উইন্ডোজ ১০ আপডেটের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের জন্য উইন্ডোজ হোম এবং প্রো ব্যবহারকারীদের জন্য রয়েছে একই ধরনের কিছু ফিচার; যেমন অ্যাক্টিভ আওয়ারস, রিস্টার্ট রিমাইন্ডার এবং মেটারড আপডেট।

এগুলোতে অ্যাক্সেস করার জন্য প্রথমে উইন্ডোজ ১০ সেটিংস মেনুতে নেভিগেট করুন। এরপর Home  Update & Security  Windows Update  Advanced options-এ অ্যাক্সেস করুন।

অ্যাক্টিভ আওয়ার

অনাকাক্সিক্ষত উইন্ডোজ ১০ আপডেটের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের জন্য অ্যাক্টিভ আওয়ার (Active Hours) হতে পারে উইন্ডোজ ১০ হোম ইউজারদের সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র। এই সেটিং পাওয়ার জন্য Home  Update & Security  Windows Update  Change active hours-এ নেভিগেট করুন। এখান থেকে আপনি উইন্ডোজকে বলতে পারেন কখন সক্রিয়ভাবে উইন্ডোজ ব্যবহার করবেন এবং কখন উইন্ডোজ আপডেট হবে না। ডিফল্ট বিজনেস আওয়ার হলো সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। আপনি ইচ্ছে করলে উইন্ডোজকে ১৮ ঘণ্টা পর্যন্ত সেট করতে পারেন। এ সময়ে আপডেট হওয়ার সুযোগ দেয়া উচিত হবে না অ্যাক্টিভ আওয়ারের। ব্যবহারকারীকে সতর্ক থাকতে হবে, কেননা এরপরও আপডেট শুরু হতে পারে। ধরুন, বিকেল ৪টায় যখন অ্যাক্টিভ আওয়ার ডিজ্যাবল থাকবে।
এমনটি ঘটে থাকলে আপনি উইন্ডোজের রিস্টার্ট রিমাইন্ডারের মাধ্যমে পাবেন এক রিমাইন্ডার। চেকবক্সের মাধ্যমে We Ollie show a reminder when we Ore going to restart জানতে পারবেন। যদি সবকিছু ফেল করে, তাহলে চেকবক্সে একটি পপআপ নোটিফিকেশন দেখতে পাবেন, যা মূলত উইন্ডোজ রিস্টার্ট এবং ইনস্টল ও আপডেট করে। এমন অবস্থায় আপনাকে কিছু সময় দেবে কাজকে সেভ করা এবং কাজ থেকে বের হওয়ার জন্য। যখন পিসিতে অ্যাক্টিভ আওয়ার এনাবল অবস্থায় ছিলেন, তখন উইন্ডোজ সতর্ক করে দেবে যে আপডেট হওয়ার পথে আছে। অ্যাক্টিভ আওয়ারের সময় উইন্ডোজ আপডেট হয় না, তবে রিমাইন্ড করে যে সবকিছু সেভ হবে।

এটি যথাযথ উপায় নয়। ধরুন, আপনার লাঞ্চের সময় একটি নোটিফিকেশন পপআপ করে তাৎক্ষণিকভাবে অদৃশ্য হয়ে গেল। এক্ষেত্রে একটি আপডেট যে পথিমধ্যে আছে সে সম্পর্কে আপনার নোটিফিকেশনে ন্যূনতম রিমাইন্ডার থাকা উচিত।

উইন্ডোজ আপডেটকে মেটার্ড কানেকশনে ডাউনলোড হওয়া থেকে প্রতিরোধ করা হতে পারে সম্ভাব্য অনাকাক্সিক্ষত উইন্ডোজ আপডেট প্রতিরোধ করার এক চতুর উপায়। এর ফলে উইন্ডোজ বুঝতে পারবে কোনো কোনো ব্যবহারকারীর থাকতে পারে মেটার্ড ডাটা কানেকশন, প্রতি মাসে কতটুকু ডাটা ব্যবহারকারী ডাউনলোড করতে পারবে তা কঠোরভাবের সীমাবদ্ধ করা হয়। মাইক্রোসফট মার্জিতভাবে ব্যবহারকারীকে মেটার্ড কানেকশনের মাধ্যমে অনাকাক্সিক্ষত আপডেট স্থগিত করার সুযোগ করে দেয়। ফলে ব্যবহারকারীকে বাড়তি খরচ করতে হয় না।

একটি কানেকশন মেটার্ড কি না সে ব্যাপারে উইন্ডোজ অসচেতন। আপনার ব্রডব্যান্ড কানেকশনকে মেটার্ড কানেকশন হিসেবে চিহ্নিত করুন Settings  Network & Internet এই লোকেশনে গিয়ে। এরপর Change connection properties সিলেক্ট করুন। এখানে আপনি একটি টোগাল Set as metered connection অপশন দেখতে পারবেন। এরপর আপনি উইন্ডোজ আপডেট সেটিংয়ে ফিরে যেতে পারবেন এবং টোগাল করতে পারবেন Automatically download updates, even over metered data connections...-এ অফ করার জন্য।

দুর্ভাগ্যজনকভাবে যখন আপনার পিসি ইথারনেটে কানেক্টেড হবে, তখন ডিফল্ট আচরণ নিয়ে আপনাকে ভাবতে হবে যে, আপনার পিসি একটি আন-মেটার্ড কানেকশনে আছে। যখন ওয়াই-ফাইয়ে কানেক্টেড হবেন, তখনও সম্ভবত উইন্ডোজ ডাউনলোড করবে priority আপডেট। সুতরাং সত্যিকার অর্থে এটি হতে পারে ফুলপ্রুফ তথা যথাযথ সমাধান। যদি মাল্টিপল ওয়াই-ফাই কানেকশন থাকে, তাহলে আপনাকে এ সবগুলোকে মেটার্ড হিসেবে সেট করতে হবে, যা হবে এক ঝামেলাদায়ক কাজ। উইন্ডোজ ১০ প্রোর জন্য আরেকটি সুবিধাজনক অপশন হলো অল ইন অল।

উপরে উল্লিখিত সবগুলো সেটিং এবং অপশন উইন্ডোজ ১০ প্রোতে পর্যাপ্ত হলেও বাড়তি কিছু অপশন রয়েছে, যা মূলত আপনাকে সুযোগ দেবে কখন আপডেট ইনস্টল করা যাবে তা বেছে নেয়ার। যদি আপনার পিসিটি উইন্ডোজ ১০ হোম পিসি হয়, তাহলে উইন্ডোজ ১০ হোম থেকে উইন্ডোজ ১০ প্রো-এ আপগ্রেড করতে পারবেন কিছু অর্থ খরচ করে অথবা উইন্ডোজ ১০ হোম মেশিন থেকে ব্যবহার করতে পারেন মাইক্রোসফট স্টোর লিঙ্কস।
যদি উইন্ডোজের এন্টারপ্রাইজ অথবা এডুকেশন ভার্সন ব্যবহার করেন, তাহলে উপরে উল্লিখিত কোনো কোনো অপশন আপনার জন্য পর্যাপ্ত নাও হতে পারে, যেহেতু আপনার পিসি কেন্দ্রীয়ভাবে ম্যানেজ হয় আইটি ডিপার্টমেন্ট অথবা অন্য কোনো অ্যাডমিনিস্ট্রেটরের মাধ্যমে, যারা আপনার পিসির জন্য নির্দিষ্ট কিছু পলিসি সেট করেছে।

আসলে উইন্ডোজের সেটিং মেনু Home  Update & Security  Windows Update  Advanced  অপশন উইন্ডোজ ১০ প্রোর সাথে আরো অনেক অপশন সম্পৃক্ত করবে। এতে সম্পৃক্ত থাকবে আপডেট থামিয়ে দেয়ার সক্ষমতা, কখন আপডেট ইনস্টল হবে তা বেছে নেয়ার এবং ফিচার ও সিকিউরিটি আপডেট উভয়ই প্রকৃত অর্থে স্থগিতকরণ ক্ষমতা।
উইন্ডোজ ১০ প্রো মেশিনে দৃশ্যমান অন্যতম এক আচরণ হলো যখন মেশিনে একটি আপডেট রিমাইন্ডার আবির্ভূত হয়, তখন মাইক্রোসফট শুধু আপনার আপডেট ডিলে তথা স্থগিতকরণ অনুমোদন করে না বরং ঠিক কখন স্থগিত হবে তাও নির্দিষ্ট করে। আপনি ইচ্ছে করলে এক সপ্তাহের মধ্যে যেকোনো সময়ের জন্য আপডেটকে সিডিউলও করতে পারেন
অন্যতম এক অধিকতর বিভ্রান্তকর অপশন হলো Choose when updates are installed । এখানে পাবেন দুটি অপশন যেমন সেমি-অ্যানুয়াল চ্যানেল (Semi-Annual Channel) (টার্র্গেট করা) এবং ভ্যানিলা সেমি-চ্যানেল অপশন। এগুলো রেফার করে সেমি-অ্যানুয়াল ডেট যখন প্রতিষ্ঠান বৈশিষ্ট্যসূচকভাবে রিসিভ করে ফিচার আপডেট, যেমন উইন্ডোজ ১০-এর জন্য অক্টোবর ২০১৮ আপডেট (October 2018 Update)।

সাধারণভাবে বলা যায়, টার্গেট করা অপশন অর্থ হলো আপনি ওইদিন সম্পর্কে অথবা প্রায় একই ধরনের দিন সম্পর্কে সাধারণ পাবলিক হিসেবে ফিচার আপডেট পাবেন অর্থাৎ ফিচার আপডেটের ঘোষিত ংযরঢ় ফধঃব পাবেন। পরবর্তী সময়ে পিসি ভ্যানিলায় ‘সেমি-অ্যান্যুয়াল চ্যানেল’ আপডেট রিসিভ করবে, কর্পোরেট আইটি ডিপার্টমেন্ট ফিডব্যাক প্রদান করার পর এবং যেকোনো ইস্যু ফিক্স করার জন্য মাইক্রোসফট ইস্যু করে একটি আপডেট প্যাচ। সেমি-অ্যানুয়াল চ্যানেলের অন্তর্গত আপনি কখন চূড়ান্তভাবে ফিচার আপডেট পাবেন, তার কোনো নির্দিষ্ট ফিক্স করা ডেট নেই। তবে যাই হোক, এটি এখনো সবচেয়ে সংরক্ষণশীল সেটিং যদি নতুন আপডেট ফিচার মেনে নেন।

যদি চান, তাহলে বাড়তি সময় ট্র্যাক করতে পারবেন। ফিচার আপডেট এবং কোয়ালিটি আপডেট স্থগিত করার অপশন দেখতে পারবেন। আসলে আপনি কখন ফিচার আপডেট এবং কোয়ালিটি আপডেট রিসিভ করবেন, সে সম্পর্কে মাইক্রোসফট কম সম্পর্কযুক্ত। কেননা, এটি আপনি স্থগিত করতে পারবেন পুরো ৩৬৫ দিনের জন্য। সিকিউরিটি অথবা কোয়ালিটি আপডেট হলো অধিকতর অপরিহার্য এবং আপনার উইন্ডো আরো ছোট ৩০ দিনের। আপনি খারাপ প্যাচ সম্পর্কে সচেতন থাকার পরও মাঝেমধ্যে এগুলো আবির্ভূত হয়। সুতরাং আপডেট ডেফারেল তথা স্থগিতকরণ অবশ্য প্রোটেক্টেড হওয়া উচিত।

ফাইনাল অপশনকে আমরা বলতে পারি প্যাচের জন্য ভ্যাকেশন হোল্ড করা তথা পজ আপডেট। এখানে গোপনীয়তার কিছু নেই। যদি আপনি বিদেশে ভ্রমণে গিয়ে থাকেন অথবা বিজনেস ট্রিপে অথবা ছুটিতে থাকেন অথবা অনাকাক্সিক্ষত প্যাচের ব্যাপারে মাথা ঘামাতে না চান, তাহলে সেগুলো বøক করে দিতে পারেন সর্বোচ্চ ৩৫ দিনের জন্য। এ কাজটি আপনি বারবার করতে পারেন। পজ করা আপডেট ফিচার আবার এনাবল করার আগে আপনার দরকার উইন্ডোজ আপডেট এবং ডাউনলোড করা।
উইন্ডোজ ১০ হলো এক বিবর্ধক প্লাটফরম এবং মাইক্রোসফট মাঝেমধ্যে বিভিন্ন ফিচার অ্যাড করে, বাদ দেয় এবং বিভিন্ন ফিচারের আচরণ অ্যাডজাস্ট করে
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
২০১৮ - ডিসেম্বর সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস