Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > পাসওয়ার্ড ম্যানেজার কী, কেন এবং সেরা কয়েকটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: লুৎফুন্নেছা রহমান
মোট লেখা:১৩৮
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১৯ - জানুয়ারী
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
সফটওয়্যার
তথ্যসূত্র:
সফটওয়্যার
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
পাসওয়ার্ড ম্যানেজার কী, কেন এবং সেরা কয়েকটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার
পাসওয়ার্ড ম্যানেজার কী, কেন এবং সেরা কয়েকটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার
লুৎফুন্নেছা রহমান

যদি আপনি ভেবে থাকেন, শিগগিরই পাসওয়ার্ডের ব্যবহার শেষ হয়ে যাবে, তাহলে বলব আবার ভাবুন। কেননা, পাসওয়ার্ড এখনো আছে এবং থাকবে। পাসওয়ার্ড দুর্বহ এবং মনে রাখা কঠিন। পাসওয়ার্ড সেট করার পর কোনো এক সময় আপনাকে আবার পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে বলে। কখনো কখনো পাসওয়ার্ড অনুমান করা যায় এবং সহজে হ্যাকযোগ্য।
তবে যাই হোক, অনেক ব্যবহারকারী আছেন, যারা পাসওয়ার্ড পছন্দ করেন না। তবে পাসওয়ার্ড সেট করা হলো কমপিউটিং জীবনে এক বাস্তবতা। প্রযুক্তির বিবর্তনের ধারায় এসেছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস-স্ক্যানিং টেকনোলজি। ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস-স্ক্যানিং টেকনোলজি দিয়ে এগুলো রিপ্লেস করে পাসওয়ার্ডকে বাতিল করার চেষ্টা করেছে। এগুলোর মধ্যে কোনোটি যথাযথ নয় এবং অনেকেই এখন ফিরে যাচ্ছে বিশ্বস্ত পুরনো পাসওয়ার্ডে, যা অনেকের কাছে অনেকটাই বিরক্তিকর। লক্ষণীয়, বেশিরভাগ লোকই দুর্বল পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেন এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইটে রিইউজ করেন। এখন প্রশ্ন হলো, আপনার ব্যবহৃত সব ওয়েবসাইটে কীভাবে শক্তিশালী, ইউনিক পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন? এ প্রশ্নের একমাত্র সমাধান হলো পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার করা।

পাসওয়ার্ড ম্যানেজার কী?

পাসওয়ার্ড ম্যানেজার হলো পাসওয়ার্ডের একটি বইয়ের মতো এবং একটি মাস্টার কী দিয়ে লক করা, যা শুধু আপনি জানেন। আপনাদের মধ্যে কেউ কেউ ভাবতে পারেন এটি খুব খারাপ। কেননা, কেউ যদি আপনার মাস্টার পাসওয়ার্ড জেনে যায়, তাহলে কী হবে? নিঃসন্দেহে তা হবে উদ্বেগের ও ভয়ের কারণ। ধরে নিতে পারেন, আপনি একটি শক্তিশালী এবং ইউনিক পাসওয়ার্ড বেছে নিয়েছেন, তবে তা স্মরণযোগ্য।

পাসওয়ার্ড ম্যানেজার শুধু আপনার পাসওয়ার্ডই স্টোর করে না বরং এগুলো শক্তিশালী, ইউনিক পাসওয়ার্ড জেনারেট করতে আপনাকে সহায়তা করবে যখন একটি নতুন ওয়েবসাইটে সাইনআপ করবেন। এর অর্থ হচ্ছে, যখনই আপনি একটি ওয়েবসাইট অথবা অ্যাপে যাবেন, তখন পাসওয়ার্ড ম্যানেজার, পাসওয়ার্ড কপি, লগইন বক্সে পেস্ট করা প্রভৃতি কাজের লাগাম টেনে ধরে। সচরাচর পাসওয়ার্ড ম্যানেজারের সাথে ব্রাউজার এক্সটেনশন থাকে, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার জন্য পাসওয়ার্ড পূরণ করে।
পাসওয়ার্ড স্টোর এবং ম্যানেজ করার জন্য ব্যবহৃত একটি সফটওয়্যার অ্যাপ্লিকেশন হলো পাসওয়ার্ড ম্যানেজার। এটি ব্যবহারকারীর বিভিন্ন অনলাইন অ্যাকাউন্ট এবং সিকিউরিটি ফিচার স্টোর ও ম্যানেজ করে। পাসওয়ার্ড ম্যানেজার পাসওয়ার্ড স্টোর করে এনক্রিপটেড ফরম্যাটে এবং একটি মাস্টার পাসওয়ার্ডের সহায়তা আপনার সব পাসওয়ার্ড তথ্যে দেয় নিরাপদ অ্যাক্সেস।

তথ্য এনক্রিপ্ট করার ধরনের তারতম্যের ওপর ভিত্তি করে স্টোরেজের ধরন এবং প্রদত্ত বাড়তি ফিচারের আলোকে পাসওয়ার্ড ম্যানেজারও বিভিন্ন রকম।
পাসওয়ার্ড ম্যানেজার হলো এমন এক অ্যাপ্লিকশন, যা বিপুলসংখ্যক পাসওয়ার্ড এবং অ্যাকাউন্ট তথা মেইনটেইন করার সমাধান হিসেবে কাজ করে। এগুলো বিভিন্ন ধরনের অ্যাকাউন্টের লগইন তথ্য স্টোর করে এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফর্মে সেগুলো এন্টার করে। এটি হ্যাকারদের হামলা প্রতিহত করতে সহায়তা করে, যেমন কী স্ট্রোক লগইন এবং এটি মাল্টিপল পাসওয়ার্ড মনে রাখার প্রয়োজনীয়তা দূর করে।

পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার করতে কেমন লাগে?

পাসওয়ার্ডে দীর্ঘ লিস্ট মনে রাখার পরিবর্তে পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহারকারীর মানসিক চাপ বহুলাংশে কমিয়ে দেয়, বেশি বেশি উৎপাদনমুখী কাজ করার জন্য মস্তিষ্ককে ফ্রি রাখে।

একটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহারের সময় এবং একটি ওয়েবসাইটে লগ দরকার হলে স্বাভাবিকভাবে প্রথমেই দরকার হবে ওই ওয়েবসাইটে ভিজিট করা। এ অবস্থায় ওয়েবসাইটে আপনার পাসওয়ার্ড টাইপ করার পরিবর্তে পাসওয়ার্ড ম্যানেজারে আপনার মাস্টার পাসওয়ার্ড টাইপ করুন, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ওয়েবসাইটে যথাযথ লগইন তথ্য পূর্ণ করে। যদি ইতোমধ্যে আপনার পাসওয়ার্ড ম্যানেজারে লগ করে থাকেন, তাহলে এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার জন্য ডাটা পূর্ণ করবে। ওয়েবসাইটের জন্য কোন ই-মেইল অ্যাড্রেস, ইউজারনেম এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেছিলেন, তা নিয়ে আপনাকে ভাবতে হবে না। কেননা, পাসওয়ার্ড ম্যানেজার আপনার জন্য এ ঝামেলাদায়ক ও বিরক্তিকর কাজটি করে দেবে।

যদি একটি নতুন অ্যাকাউন্ট তৈরি করেন, তাহলে পাসওয়ার্ড ম্যানেজার একটি নিরাপদ র‌্যানডম পাসওয়ার্ড জেনারেট করার জন্য অফার করবে। সুতরাং, আপনাকে এ ব্যাপারে ভাবতে হবে না। ওয়েব ফর্মে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তথ্য পূরণ করার জন্য এটি কনফিগার করা যেতে পারে, যেমন অ্যাড্রেস, নেম এবং ই-মেইল অ্যাড্রেস।

পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার করা দরকার কেন?

পাসওয়ার্ড ম্যানেজার একটি শক্তিশালী ও দৃঢ় পাসওয়ার্ড তৈরি করা এবং মনে রাখার ঝামেলা দূর করে। তিনটি কারণে দৃঢ় পাসওয়ার্ড তৈরি করার ব্যাপারে আমাদেরকে যত্নশীল হওয়া দরকার।
পাসওয়ার্ড প্রায় সব সময় চুরি হতে দেখা যায়। সাইট এবং সার্ভিস সব সময় ব্যত্যয়ের ঝুঁকির মধ্যে থাকে, ফিশিং অ্যাটাকের ম্যাধ্যমে কৌশলে হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে আপনার পাসওয়ার্ড।

সেরা কয়েকটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার

বিভিন্ন ধরনের পাসওয়ার্ড ম্যানেজার থাকলেও সবগুলোর ফিচার যে আমাদের প্রত্যাশিত সব চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম, তা বলা যায় না কোনোভাবে। তবে কিছু পাসওয়ার্র্ড ম্যানেজার আছে, যেগুলো ফিচার বা অপশনের বিবেচনায় অন্যদের তুলনায় সেরা বলা যায়। প্রতিটি হলো সলিড অপশনবিশিষ্ট এবং কোন অপশন আপনার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়, তার ওপর ভিত্তি করে বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের পাসওয়ার্ড ম্যানেজার।

ড্যাশল্যান

ড্যাশল্যান (Dash lane) হলো এক শক্তিশালী দৃঢ় পাসওয়ার্ড ম্যানেজার অ্যাপ এবং নিরাপদ ডিজিটাল ওয়ালেট। এ অ্যাপ প্রায় সব প্লাটফরমে যেমন উইন্ডোজ, ওএস এক্স, আইফোন, আইপ্যাড এবং অ্যান্ড্রয়েড সাপোর্ট করে। প্রায় সব ব্রাউজারের জন্য এগুলোর রয়েছে এক্সটেনশন, সিকিউরিটি ড্যাশবোর্ডের ফিচার, যা আপনার পাসওয়ার্ড অ্যানালাইজ করে। এগুলোর রয়েছে একটি স্বয়ংক্রিয় পাসওয়ার্ড চেঞ্চার, যা আপনার জন্য পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে পারে

ড্যাশল্যানের অন্যতম এক সেরা ফিচার হলোÑ এটি একটি সিঙ্গেল ডিভাইসে সম্পূর্ণ ফ্রি ব্যবহার করা যাবে। যদি ডিভাইসের মাঝে পাসওয়ার্ড সিঙ্ক করতে চান, তাহলে আপনাকে প্রিমিয়াম ভার্সনে আপগ্রেড করতে হবে। তবে এর আগে ফ্রি-তে এটি টেস্ট করে নিতে পারবেন।
সিকিউরিটি প্রসঙ্গে ড্যাশল্যানে রয়েছে বাড়তি সুবিধা, কেননা ক্লাউডে রাখার পরিবর্তে আপনার কমপিউটারে সব পাসওয়ার্ড লোকালি রাখার অপশন পাচ্ছেন।

লাস্টপাস

লাস্টপাস (Last Pass) হলো এক্সটেনশনসহ একটি ক্লাউডভিত্তিক পাসওয়ার্ড ম্যানেজার। এতে সমন্বিত থাকে মোবাইল অ্যাপস, আপনার প্রত্যাশিত সব ব্রাউজার এবং অপারেটিং সিস্টেমের জন্য ডেস্কটপ অ্যাপস। এটি খুব শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ম্যানেজার, অফার করে টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন অপশন। সুতরাং নিশ্চিত থাকতে পারবেন, কেউ আপনার পাসওয়ার্ড ভল্টে লগইন করতে পারবে না। লাস্টপাসে রয়েছে অনেক সিকিউরিটি অপশন। এটি লাস্টপাসের সার্ভারে একটি এনক্রিপটেড ফর্মে আপনার পাসওয়ার্ড স্টোর করে। লাস্টপাস এক্সটেনশন অথবা অ্যাপ লোকালি সেগুলো ডিক্রিপ্ট এবং এনক্রিপ্ট করে যখন লগইন করবেন। সুতরাং লাস্টপাস আপনার পাসওয়ার্ড দেখতে পারবে না যদি তারা চায়। যেহেতু ক্লাউডভিত্তিক পাসওয়ার্ড ম্যানেজার, তাই এটি সবার জন্য নয় এবং অনেকেই এই পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
২০১৯ - জানুয়ারী সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস