• ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটিতে ৩০০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে ওরিক্স বায়ো-টেক লিমিটেড
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: নিজস্ব প্রতিবেদক
মোট লেখা:৮৬
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০২০ - আগস্ট
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
কমপিউটার জগৎ
তথ্যসূত্র:
রির্পোট
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটিতে ৩০০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে ওরিক্স বায়ো-টেক লিমিটেড
বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটিতে ৩০০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে ওরিক্স বায়ো-টেক লিমিটেড
কর্মসংস্থান হবে ২ হাজার মানুষের

কমপিউটার জগৎ রিপোর্ট

কালিয়াকৈরে ‘বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটি’তে বায়োটেকনোলজি
নিয়ে কাজ করবে ওরিক্স বায়ো-টেক লিমিটেড। এ লক্ষ্যে
প্রতিষ্ঠানটিকে বøক-২-এ ২৫ একর জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। বঙ্গবন্ধু
হাই-টেক সিটিতে তারা ৩০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করবে
বলে জানা গেছে। গত ১১ আগস্ট আগারগাঁওয়ে আইসিটি টাওয়ারের
অডিটোরিয়ামে এ লক্ষ্যে একটি ত্রিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষর হয়। আইসিটি
বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলমের সভাপতিত্বে চুক্তি
স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি
প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি।
এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে বাংলাদেশে হবে ৩০০ মিলিয়ন ডলারের
বৈদেশিক বিনিয়োগ, প্রায় ২০০০ জনের উচ্চ বেতনের কর্মসংস্থান
সৃষ্টিসহ দেশ বায়ো-প্রযুক্তিতে অনেকদূর এগিয়ে যাবে যা ভিশন-২০২১
বাস্তবায়নে ব্যাপক অবদান রাখবে। উনড়বত বিশ্বে এখন (বিশেষ করে
যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ, চীন, জাপান) বায়ো-টেকনোলজির ব্যাপক ব্যবহার
হচ্ছে। মূলত হিউম্যান প্লাজমা থেকে বায়ো-টেক পণ্য উৎপাদিত হয়।
এইচআইভি এইডস এবং ক্যানসার রোগের চিকিৎসায় এসব বায়ো-
টেক ওষুধ এখন ব্যবহার হচ্ছে। ওরিক্স বায়ো-টেক লিমিটেড বঙ্গবন্ধু
হাই-টেক সিটিতে বছরে ১২০০ টন প্লাজমা বিশ্লেষণে সক্ষম প্ল্যান্ট
নির্মাণ করতে চায় যার সাথে ২০টি প্লাজমা সংগ্রহ স্টেশন সংযুক্ত থ
াকবে। প্রতিষ্ঠানটি এক্ষেত্রে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ অন্যান্য উনড়বত বিশ্বের
মান বজায় রাখার প্রতিশ্রæতি দিয়েছে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের
বাজারে বায়ো-টেক পণ্য সহজলভ্য হবে।
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
২০২০ - আগস্ট সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস