• ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > শেষ হলো দু’দিনব্যাপী চর্তুথ বিডিসিগ ইন্টারনেট একটি মৌলিক মাবাধিকার
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: নিজস্ব প্রতিবেদক
মোট লেখা:৯২
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০২০ - সেপ্টেম্বর
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
ইন্টারনেট
তথ্যসূত্র:
ইন্টারনেট
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
শেষ হলো দু’দিনব্যাপী চর্তুথ বিডিসিগ ইন্টারনেট একটি মৌলিক মাবাধিকার
শেষ হলো দু’দিনব্যাপী চর্তু বিডিসিগ ইন্টারনেট একটি মৌলিক
মাবাধিকার এবং তা সংবিধানে অন্তর্ভূক্ত হওয়া উচিত

হাসানুল হক ইনু, এমপি
সাবেক তথ্যমন্ত্রী

ইন্টারনেট দুনিয়ার ৯৩ অংশীজনের অংশ নেয়ার মধ্য দিয়ে গত
১২ সেপ্টেম্বর শেষ হলো চর্তু বাংলাদেশ স্কুল অব ইন্টারনেট
গভর্ন্যান্স (বিডিসিগ) ২০২০। বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্ন্যান্স
ফোরামের (বিআইজিএফ) আয়োজনে দু’দিনব্যাপী ৮ ঘণ্টার জুম
প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হয় এই বিডিসিগ। চর্তু বিডিসিগ শুরু হয় ১১
সেপ্টেম্বর। প্র ম দিন ছিল ৪টি সেশন এবং দ্বিতীয় দিন ৬টি সেশন।
৯৩ অংশীজনের উপস্থিতির মধ্যে পুরুষ ছিল ৮২.৮ শতাংশ এবং
মহিলা ছিল ১৭.২ শতাংশ। তার মধ্যে গভর্নমেন্ট সেক্টর থেকে ১৬
জন, টেকনিক্যাল কমিউনিটি থেকে ২৭ জন, অ্যাকাডেমিয়া থেকে ৩৩
জন, প্রাইভেট সেক্টর থেকে ৪৩ জন, মিডিয়া থেকে ১৫ জন এবং
সিভিল সোসাইটি থেকে ১৪ জন অংশ নেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইন্টারনেট
গভর্ন্যান্স ফোরামের চেয়ারপারসন হাসানুল হক ইনু এমপি। এতে
স্বাগত বক্তব্য ও সেশন পরিচালনা করেন বিআইজিএফ মহাসচিব
মোহাম্মদ আব্দুল হক অনু। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনএনআরসি’র
সিইও এএইচএম বজলুর রহমান, ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সির
মহাপরিচালক রেজাউল করিম এনডিসি, আইএসপিএবি সভাপতি
আমিনুল হাকিম এবং বিটিআরসি’র মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার
জেনারেল মো: মোস্তাফা কামাল।

প্রধান অতিথি বিআইজিএফ চেয়ারপারসন হাসানুল হক ইনু
বলেন, ইন্টারনেট একটি মৌলিক মানবাধিকার এবং তা সংবিধানে
অন্তর্ভুক্ত হওয়া উচিত। এছাড়া গ্রাম ও শহরের বৈষম্য দূরীকরণ এবং
স্থানীয়করণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

বিএনএনআরসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম বজলুর
রহমান বলেন, বিআইজিএফ এবং বিডিসিগ সরকার ও আন্তর্জাতিক
পর্যায়ে নীতি-পরিবর্তনসহ বিভিনড়ব বিষয় নিয়ে সংলাপ ও আলোচনা
সভা করে ডিজিটাল বাংলাদেশের কার্যক্রম ত্বরান্বিত করার জন্য
সরকারের সাথে কাজ করছে।

ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সির মহাপরিচালক রেজাউল করিম
এনডিসি বলেন, আমরা কভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলা করছি।
আমাদের তথ্য সাইবার হুমকির হাত থেকে সবকিছু রক্ষা করতে হবে।
আমাদের কাজের সুরক্ষা সম্পর্কে খুব সতর্ক থাকতে হবে। দুর্বার
প্ল্যাটফর্ম গুজব ও ভুল তথ্য হ্রাস করতে সহায়তা করবে।

আইএসপিবিএ সভাপতি আমিনুল হাকিম বলেন, প্রযুক্তির এই
যুগে উদ্যোগটি সময়োচিত এবং প্রশংসনীয়। চতুর্ শিল্পবিপ্লবের সাথে
অভিযোজনের জন্য আমাদের দক্ষতার উনড়বয়ন করতে হবে।

বিটিআরসি মহাপরিচালক বি্ের গডিয়ার জেনারেল মোস্তাফা কামাল
বলেন, ইন্টারনেট সার্ভিস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ও মোবাইল ইন্টারনেট
ব্যবহারকারীদের সহায়তা দেয়ার কথা উল্লেখ করেন এবং যত তাড়াতাড়ি
সম্ভব সব ইউনিয়ন ইন্টারনেট নেটওয়ার্কের আওতায় নিয়ে আসা হবে,
যাতে ইউনিয়নগুলোর সাথে যোগাযোগ রক্ষা করা যায়।
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
২০২০ - সেপ্টেম্বর সংখ্যার হাইলাইটস
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস